Entertainment Image
Entertainment Image

সত্যিকারের ভালোবাসার ১০ সিনেমা

ভালোবাসাকে বিষয়বস্তু করে এ পর্যন্ত যে কত সিনেমা বানানো হয়েছে, তার ইয়ত্তা নেই। সত্যি বলতে, ভালোবাসা ছাড়া কোনো সিনেমা বানানোই তো সম্ভব নয়। তার মধ্যে যে সিনেমাগুলোর কাহিনি স্রেফ ভালোবাসাকে ঘিরেই আবর্তিত হয়, সেগুলোকেই ভালোবাসার সিনেমা বা রোমান্টিক তকমা দেয়া হয়।

এ ধরনের সিনেমার অনেকগুলোই আবার সত্যিকারের ভালোবাসার কাহিনি অবলম্বনেই নির্মিত।সত্যিকারের প্রেম কাহিনি অবলম্বনে নির্মিত হলিউডের সিনেমা নিয়েই সাজানো হয়েছে এ প্রতিবেদন।

ক্লিওপেট্রা (১৯৬৩)
এলিজাবেথ টেইলরের জীবনের অন্যতম সেরা কাজ হয়ে আছে এই ৪ ঘণ্টার ধ্রুপদী সিনেমা।সিনেমাটি মিশরের কিংবদন্তি রাণী ক্লিওপেট্রার জীবন কাহিনি নিয়ে নির্মিত। তবে তাতে মিশরীয় রাণীর জীবনের রাজনৈতিক দিকগুলো যতটা এসেছে, তার চেয়ে বেশি গুরুত্ব পেয়েছে মার্ক অ্যান্টনির সঙ্গে তার প্রেমের আখ্যান। সিনেমাটিতে মার্ক অ্যান্টনির চরিত্রে অভিনয় করেন রিচার্ড বার্টন।

মাই লেফট ফুট (১৯৮৯)
সিনেমাটি মূলত বিখ্যাত আইরিশ লেখক-চিত্রশিল্পী ক্রিস্টি ব্রাউনের জীবনের উপর ভিত্তি করে বানানো।ক্রিস্টি ব্রাউন তার বাঁ পায়ের কেবল বুড়ো আঙুল নাড়াতে পারতেন। এই শারীরিক সীমাবদ্ধতা নিয়েও পরিবারে-সমাজে সংগ্রাম করে তিনি শিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হন। তবে কাহিনিতে বেশি মনোযোগ পেয়েছে তার পরিচারিকা মেরিকারের সঙ্গে তার ভালোবাসার সম্পর্কটাই। অবশ্য সত্যিকারের কাহিনিটা সিনেমার মতো অতটাও মনোহর ছিল না।

টোটাল এক্লিপস (১৯৯৫)
আধুনিক যুগের অন্যতম প্রভাবশালী কবি হিসেবে ধরা হয় আর্তুর র‌্যাঁবোকে। বিশেষ করে তিনি সুররিয়ালিজমের অন্যতম প্রবক্তা হিসেবে বর্ণিত হন। র‌্যাঁবোর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিলেন আরেক ফরাসি কবি পল ভার্লেইন। পূর্বসূরীদের মধ্যে ভার্লেইে-ই তাকে প্রথম কবি হিসেবে স্বীকৃতি দেন। পরে তাদের সম্পর্ক বেশ গভীর হয়ে পড়ে। এমনকি তারা দুজনে প্যারিস থেকে লন্ডনে চলে যান এবং একসাথে থাকতেও শুরু করেন। ভার্লেইন তার স্ত্রী-সন্তানকেও ত্যাগ করেন। পরে অবশ্য তাদের মধ্যে সংঘাত বাঁধে, তাদের ছাড়াছাড়ি হয়। এমনকি...
[…]

Entertainment Image
Entertainment Image

যেভাবে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিলেন তারা

ভালোবাসার টানে নগর পাড়ি জমানো নতুন কোন ঘটনা নয়। প্রিয়তমাকে হাঁটু ভাজে প্রেম নিবেদন যেন চিরাচরিত বিষয়। তবে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে প্রেমিকাকে অবাক করে দেওয়া, ভেতরে জমে থাকা প্রেমকে যেন আরো উসকে দেয়।
যেমন ধরুন, অঝোরে কাঁদতে কাঁদতে যদি কোন প্রেমিক বলে- চলো বিয়ে করে ফেলি। প্রস্তাবটি বোধয় বেশি আবেগী। কিন্তু বলিউডের অনেক তারকা অভিনেতা রয়েছেন যারা তার প্রিয়তমাকে বাস্তব জীবনে এভাবেই প্রেম নিবেদন করেছেন। বলিউড তারকাদের এমনই কিছু প্রেম নিবেদনের ঘটনা নিয়ে সাজানো হয়েছে এ প্রতিবেদন।
শাহরুখ খান-গৌরী খান
শাহরুখের সঙ্গে যখন ডেট করতেন গৌরী তখন তিনি নিতান্তই কিশোরী। সম্পর্ক ভালোই চলছিল। কিন্তু শাহরুখ ধীরে ধীরে গৌরীর উপর পজ়েসিভ হয়ে পড়েন। গৌরী সে সব সহ্য করেননি। ব্রেক আপ হয় তাদের। একটি জন্মদিনের পার্টির পর মুম্বাই চলে আসেন গৌরী। শাহরুখও তাকে খুঁজতে মুম্বাই আসেন।
একদিন সি বিচে দেখা হয় তাদের। দু’জন দু’জনকে দেখে অঝোরে কাঁদতে থাকেন। বুঝতে পারেন, একে অপরকে ছাড়া থাকতে পারবেন না তারা। শাহরুখ তখন কাঁদতে কাঁদতেই গৌরীকে প্রপোজ় করেন। গৌরীও মানা করতে পারেননি। তারপর ১৯৯১ সালে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

আরবাজ খান-মালাইকা আরোরা খান

আরবাজের সঙ্গে মালাইকার দেখা হয় একটি কফির বিজ্ঞাপনে। সেখান থেকেই বন্ধুত্ব, প্রেম। মালাইকা যখন বুঝেছেন- তিনি তার মিস্টার রাইটকে খুঁজে পেয়েছেন, তখন এক মুহূর্ত অপেক্ষা করেননি। পাঁচ বছর ডেট করেন তারা। তারপর এক নিউ ইয়ারের রাতে মালাইকা আরবাজ়কে বলেন, ‘আমার মনে হয় সম্পর্কটাকে এবার পরবর্তী ধাপে নিয়ে যাওয়া উচিত। তুমি কি আমার সঙ্গে সেই রাস্তায় চলবে?’ আরবাজ়ের উত্তর ছিল, ‘সময় আর জায়গা ঠিক কর।’ আর তারপর ১৯৯৮ সালে বিয়ে করেনেএ জুটি।
অভিষেক বচ্চন-ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন
কুছ না কহোর সেটে ঐশ্বরিয়ার...
[…]

Entertainment Image
Entertainment Image

যা পাচ্ছেন এবারের অস্কার বিজয়ীরা

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি, যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলসে বসছে একাডেমি অ্যাওয়ার্ডের ৮৮তম আসর। অনুষ্ঠানে প্রত্যেক বিজয়ী পাবেন একটি করে স্বর্ণের প্রলেপ দেওয়া পদক। পাশাপাশি তারা পাচ্ছেন ২ লাখ মার্কিন ডলার মূল্যের গিফট ব্যাগ। চলুন জেনে নিই, তাদের জন্য কী থাকছে।
১০ দিনের জন্য ইসরায়েল ভ্রমণ : বিজয়ীরা প্রত্যেকে পাবেন ১০ দিনের জন্য ইসরায়েল তেল আভিভে ভ্রমণের সুযোগ। সেখানে বিনা খরচে তাদের ভ্রমণ এবং খাবারের ব্যবস্থা থাকছে। ইসরায়েলের পর্যটন ব্যবস্থাকে প্রচারের উদ্দেশ্যে এই ভ্রমণের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
দুই সপ্তাহের জন্য জাপান ভ্রমণ : সিনেমার শুটিংয়ের ক্লান্তি এবং জাকজমক পার্টির থেকে দূরে গিয়ে বিজয়ীরা দুই সপ্তাহের জন্য জাপান ভ্রমণের সুযোগ পাচ্ছেন।
বিলাসবহুল গাড়ি ভাড়া নেওয়ার সুযোগ : বিজয়ীরা শুধু যে ভ্রমণের সুযোগ পাচ্ছেন তা নয়, তাদের থাকছে সিলভারকার থেকে ১ বছরের জন্য যে কোনো সময় অডি গাড়ি ভাড়া নেওয়ার সুযোগ।
কসমেটিকস সার্জারি : অস্কার অনুষ্ঠানের পর তারকারা পরবর্তী সিনেমার জন্য নিজেদের প্রস্তুত করবেন। এ সময় তাদের লুক যেন ঠিক থাকে সে কারণে কসমেটিকস সার্জারি এবং স্কিন টাইট ফেসিয়ালের ব্যবস্থাও থাকছে। এছাড়া অস্কারের পার্টি চলবে পরদিন পর্যন্ত। এ সময়ে ছবি, টিভি শুট সব মিলিয়ে ক্যামেরার সামনে তাদের ঠিক রাখার জন্য যা যা প্রয়োজন সবই পাবেন তারকারা।
ব্যক্তিগত ট্রেনিং ব্যবস্থা: সবকিছুর সঙ্গে তারকারা নিজেদের শরীরের গঠন ঠিক রাখার জন্য পাবেন ব্যক্তিগত ট্রেনিং নেওয়ার সুব্যবস্থা।
এত কিছুর পরেও ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য থাকছে আরো বেশকিছু গিফট।
[…]

Entertainment Image
Entertainment Image

তারকাদের মিলন মেলা ( বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি বনভোজন ২০১৮)

বাংলা চলচ্চিত্র শিল্পের পথিকৃৎ থেকে শুরু করে বর্তমান প্রজন্মের বেশিরভাগ তারকারা উপস্থিত হয়েছিলেন এই অনুষ্ঠানে। দিনব্যাপি নানা ধরনের খেলাধুলা ভোজন কালচালাল প্রোগামে সাজানো ছিল অনুষ্ঠানটি। সেই সাথে ছিল বাশির সুর, পুতুল নাচ, সাপের খেলা বানর নাচ সহ পিঠাপুলির উৎসব। সারা দিন উপভোগ করেছেন তারকারা। এপ্রসঙ্গে সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর বলেন। প্রতিবছর এইদিনটির জন্য অপেক্ষা করেন প্রত্যেক শিল্পিগন। আমরা শুধুই আন্ন্দ করার জন্য এখানে এসেছি সন্ধ্যায় ফানুস উড়িয়ে সকল কস্ট মান অভিমান ও ভেদাভেদ ভুলে এক হয়ে বাংলা চলচ্চিত্র কে সামনে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয় করেন তারা। প্রায় ৩৫০০ জন মানুষের এরেন্জমেন্ট ছিল এ অনুষ্ঠানে।
সারাদিন হৈ হুল্ল করে কাটিয়ে রাত ১০.০০ টার দিকে অনুষ্ঠানের ইতি টানেন সমস্ত শিল্পির জাতীয় সংগীত গাওয়ার মধ্য দিয়ে।
[…]

Entertainment Image
Entertainment Image

কঙ্গনা রানাউত

কঙ্গনা রানাউত আমার খুবই পছন্দের অভিনেত্রী। অভিনয় তো ভালো লাগেই। ব্যক্তি জীবনে তাঁর সাহসিকতা আমাকে মুগ্ধ করে। সাহসিকতা বললে ভুল হবে। কঙ্গনা যেরকম কথা বলেন তা দুঃসাহসিকতার পর্যায়ে পড়ে।
বলিউডে কাজ করে কেউ তিন খান কিংবা করন জোহরকে চটাতে চান না কোনোভাবেই। অথচ কঙ্গনা করন জোহরের মুখের উপর তাঁকে, 'ফিল্ম মাফিয়া' বলে দিলেন। কোন খানের সাথে কাজ করতে আগ্রহী প্রশ্নের উত্তরে ভনিতা না করে সরাসরি 'কারো সাথে নয়' বলে ফেললেন। আরো বললেন, "আমি মনে করি না ছবি হিট করাতে কোনো খানের সাথে অভিনয়ের প্রয়োজন আছে!"
উল্লেখ্য, সালমান খানের ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব দুইবার ফিরিয়ে দিয়েছিলেন কঙ্গনা। কিক এবং বাজরাঙ্গি ভাইজানে কঙ্গনার অভিনয়ের প্রস্তাব ছিলো। ফিরিয়ে দেয়ার কারণ একটাই। খানদের বেশিরভাগ ছবিতে অভিনেত্রীদের গুরুত্ব খুবই কম থাকে। কঙ্গনা সেটা পছন্দ করেন না। তিনি লিড রোলেই কাজ করতে আগ্রহী।
'রেঙ্গুন' মুভির প্রমোশনে সাইফ আলী খানের সাথে বসে ছিলেন। উপস্থাপক তাঁর কাছে জানতে চাইলেন সাইফ আলী খান কেমন মানুষ? কঙ্গনা বললেন-
"তিনি পারিবারিক ঐতিহ্যে প্রাপ্ত স্টারডাম থেকে অভিনয়ের সুযোগ পেয়েছেন। সব সময় 'আমি স্টার' এরকম একটা ভাব দেখান!"
আমি শুনে জিভে কামড় দিয়েছি। বাপরে বাপ। মেয়ে তো নয় পুরোপুরি অগ্নিগোলক! :)
বলিউডে কাজ করে এ রকম কথাগুলো বলা কোনো অভিনেতার পক্ষেও হয়তো সম্ভব নয়। এটা আগুন নিয়ে খেলার মতোই ভয়ানক হতে পারে ক্যারিয়ারের জন্য। অথচ কঙ্গনা ব্যতিক্রম। তিনি যেনো অগ্নি রাজ্যের দুঃসাহসী রাজকন্যা। কথাবার্তায় আগুন ঝরাতেই যতো সুখ তাঁর!
[…]