"উদ্যোগ" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

রুহুল আমিন

৩ বছর আগে লিখেছেন

=== ফিরে অাসা ===

 
অনেক দিন না ভুল অনেক বছর পর অাসলাম, বন্ধুরা অাপনারা কেমন আছেন?
ররর continue reading

৪১৪

কাঠ পুতুল

৩ বছর আগে লিখেছেন

কোথায় গেলো দেশের সুুশীল সমাজ ?

বিষয় টা নিয়ে লিখব লিখব করে আজ লিখেই ফেললাম।   না তিনি কোনো মহান ব্যক্তি নয়।   তিনি একজন লেখিকা। যার নাম আমরা সবাই জানি। তাকে আবার ঘৃণাও করি।   যার লেখা যৌন অনুভূতি গুলোকে জাগ্রত করে। যার লেখা আমাদের সমাজীকতাকে ছোট করে। যার লেখা আমাদের ধর্মীয় অনুভূতিকে আঘাত করে।   এই কারনেই তাকে এদেশ থেকে বিতারিত করা হয়েছে।   তিনি তসলিমা নাসরিন।।   তিনি এ দেশ থেকে বিতারিত তার লেখার কারনে। কিন্ত তাতে কি কোনো ফল হয়েছে ?   বই মেলায় এমন কোনো স্টল নেই যেখানে তার বই বিক্রি হচ্ছে তা। দেশের এমন কোনো পত্রিকা নেই যেখানে তার লেখা প্রকাশ হয়... continue reading

৪৮৩

সমুদ্র মিত্র

৩ বছর আগে লিখেছেন

মনোবিজ্ঞান

বাবা-মা তাঁদের সন্তানকে যত দ্রুত একটা বিষয় সহজে শিখাতে পারে, মনে হয় না অন্য কেউ বা কোন ভাবে তা করা বা বুঝা সম্ভব নয়। বিশেষ করে বাবা-মার উচিৎ শৈশব - কৈশোরে ছেলেমেয়েদের সাথে নিত্যনতুন আর কিছু সুন্দর বিষয়ের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়া,তাদের উচিৎ ছেলেমেয়েদের কল্পণার জগৎকে আরও বিস্তৃত ঘটানো। হতে পারে সেটা একটা ছোট্র কবিতা,রূপকথার গল্প নয়তো বিজ্ঞানের কোন ম্যাজিক আরও কতকি আছে । সেখানে আমরা কি করি,তাঁদের বেঁধে রাখি।তাঁদেরকে নিয়ে আমাদের ভয়ের আর দুশ্চিন্তার অন্ত নেই । তাঁদের বাইরের পরিবেশের সাথে মিশতে দেই না।তাদের কল্পণার জগৎ শূণ্য করে দেই ।   আর অন্যদিকে,আমাদের দেশে বলতে গেলে প্রায় ৯৮ ভাগ... continue reading

৭৯৪

ব্লগ সঞ্চালক

৪ বছর আগে লিখেছেন

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত প্রতিযোগিতার ফলাফল ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান

খুবই লজ্জিত যে, জুলাই মাসের শুরুতে এসে আমরা স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত প্রতিযোগিতার ফলাফল ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান -এর আয়োজন করতে যাচ্ছি। আসলে বিভিন্ন অজানা কারনে প্রতিযোগিতায় কবিতা ও গল্প জমা পড়েছিল খুবই কম। আমরা বিলম্বের দায়ভার মাথা পেতে নিয়েই ফলাফল ঘোষণা করছি। সেই সাথে জানাচ্ছি, আগামী ১০-ই জুলাই, ২০১৫ তারিখ, শুক্রবার-এ নক্ষত্র অফিস-এ (৫৭/১২ পান্থপথ, ঢাকা) বিকাল ৫টায় পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানের আয়োজন আমরা করতে যাচ্ছি। 
উক্ত পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান-এ আপনাদের উপস্থিতি আমাদের একান্ত কাম্য। 
স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে প্রতিযোগিতার ফলাফলঃ  
গল্প বিভাগে যারা পুরস্কার পাচ্ছেনঃ 
* ইনজামুল হক (গল্পঃ অপেক্ষা ও আর্তনাদ) 
* টি আই সরকার তৌহিদ (গল্পঃ মুক্তির মুক্তি) 
* দীপঙ্কর বেরা (গল্পঃ বিজয় হাসি)
কবিতা বিভাগে যারা পুরস্কার পাচ্ছেনঃ 
* মোঃ মালেক জোমাদ্দার... continue reading

১৯ ৫৯৫

শামিম রহমান আবির

৪ বছর আগে লিখেছেন

ব্লগের এডমিন ও ব্লগারদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি!!!

 

 
 
আমার ব্লগিং জীবনের শুরু প্রথম আলো ব্লগের হাত ধরে । সেই প্রথম থেকেই আমার নিকট প্রথম আলো ব্লগ যে অসাধারণ ভালো লাগা নিয়ে এসেছিলো তা দিনকে দিন বেড়েই চলছিলো। চলছিলো বলছি কারণ- প্রথম আলো ব্লগ বন্ধ হয়ে গেছে। নানামুখী টানাপোড়েনের মধ্য দিয়ে যাওয়ার প্রেক্ষিতে ব্লগ বিতর্কিত হয়ে উঠেছে তা বুঝি। আমি আমার সাথের বেশ কয়েকজন শক্ত লেখককে ব্লগ মডেরেটেশনের গাফেলতির কারণে (যদিও ব্যাপারটির সাথে জাতীয় স্বার্থ জড়িত বলে আমি মডারেটরদের কাঠগড়ায় দাঁড় করাবো না) ব্লগ ছেড়ে চলে গেছেন কিংবা ব্লগ বিমুখ হয়ে গিয়েছেন। রয়ে গেছে কিছু আগাছা। অবশ্য এর মধ্যেও যে কিছু মানিক-রতন... continue reading

৫৭৬

নূর মোহাম্মদ নূরু

৪ বছর আগে লিখেছেন

১৫ মার্চ বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবসঃ “স্বাস্থ্যকর খাদ্য ভোক্তার অধিকার”

আজ ১৫ মার্চ বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস। ভোক্তা অধিকার সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানো দিবসটির লক্ষ্য। একজন ক্রেতার মৌলিক অধিকারের উন্নতি সাধন, বাজার ব্যবস্থার অপব্যবহার দূর করা ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা দিবসটির উদ্দেশ্য। ১৯৬০ সালে সুইজারল্যান্ডের রাজধানী হেগে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ভোক্তা সংগঠনের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে গঠিত হয় ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন অব কনজিউমার্স ইউনিয়ন। যার বর্তমান নাম হচ্ছে কনজিউমারস ইন্টারন্যাশনাল। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডি প্রথমবারের মতো ভোক্তা অধিকারকে সংজ্ঞায়িত করেন এবং ভোক্তা আন্দোলনের আনুষ্ঠানিক ঘোষনা দেন। ১৯৬২ সালের ১৫ মার্চ কংগ্রেসে মিঃ কেনেডি তাঁর বক্তৃতায় ভোক্তাদের স্বার্থ রক্ষার বিষয়ে ১। নিরাপত্তার অধিকার, ২। তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার, ৩। পছন্দের অধিকার এবং ৪। অভিযোগ... continue reading

৫১৯

নূর মোহাম্মদ নূরু

৪ বছর আগে লিখেছেন

আর্ন্তজাতিক নারী দিবসে বাংলাদেশসহ পৃথিবীর সকল নারীদের প্রতি আমাদের গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা

৮ মার্চ, আন্তর্জাতিক নারী দিবস (আদি নাম আন্তর্জাতিক কর্মজীবী নারী দিবস)। সারা বিশ্বব্যাপী নারীরা একটি প্রধান উপলক্ষ্য হিসেবে এই দিবস উদযাপন করে থাকেন। ‘বিশ্বে যা কিছু মহান সৃষ্টি চির কল্যাণকর/ অর্ধেক তার করিয়াছে নারী, অর্ধেক তার নর।’ একথা অনস্বীকার্য যে, বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো আমাদের দেশের নারীর অগ্রগতির জোয়ার দৃশ্যমান। বর্তমানে ১ কোটি ৬৮ লাখ নারী কৃষি, শিল্প ও সেবা—অর্থনীতির বৃহত্তর এই তিন খাতে কাজ করছেন। অর্থনীতিতে নারীর আরেকটি বড় সাফল্য হলো, উৎপাদনব্যবস্থায় নারীর অংশগ্রহণ বেড়েছে। মূলধারার অর্থনীতি হিসেবে স্বীকৃত উৎপাদন খাতের মোট কর্মীর প্রায় অর্ধেকই এখন নারী। এ খাতে ৫০ লাখ ১৫ হাজার নারী-পুরুষ কাজ করেন। তাঁদের মধ্যে নারী ২২... continue reading

৬০৯

টি.আই.সরকার (তৌহিদ)

৪ বছর আগে লিখেছেন

"আমাদের নৈতিকতা কোথায় ???" (আমার Facebook ID থেকে নেয়া)

কিছুদিন আগে (সম্ভবত ১৯ নভেম্বর-২০১৪) অফিসের একটা বিশেষ প্রয়োজনে ঢাকা গেলাম। কাজ শেষ করে সেদিন ফেরা হয়নি। পরদিন সকালে অফিস (আশুলিয়া) ধরতে সকালে ঘুম থেকে উঠেই রওনা হলাম। আব্দুল্লাহপুর এসে আশুলিয়ার গাড়িতে (মিনিবাস) উঠলাম। আমার সামনের সিটে ২৪-২৫ বছরের দুটি ছেলে-মেয়ে একসাথে ডাবল(টু) সিটে বসা। কথা শুনে যা বোঝা গেল, তাতে তারা ইউনিভার্সিটিতে একই সাথে পড়ালেখা করে, হয়তো খুব ভাল বন্ধুও হতে পারে কিংবা তার চেয়েও বেশিকিছু ! প্রথম দিকে খুব ভালই মনে হল দু’জনকে। কিছুদূর যেতেই তাদের কথাবার্তা ও আচরণ কিছুটা দৃষ্টিকটু মনে হতে লাগলো। গাড়িতে যে আরো মানুষজন আছে সেটা যেন মনেই হচ্ছিল না তাদের কাছে। একজন আরেকজনের... continue reading

৪৯২

আবিদ রহমান

৪ বছর আগে লিখেছেন

চাকরি করা ছাড়াও সুন্দর আয় করা, স্বাধীন জীবন এবং অন্যান্য

গ্র্যজুয়েশন শেষ করার পর আমাদের প্রথম পদক্ষেপ হয় একটি চাকরি খোজা। অনেকেই আবার গ্র্যাজুয়েশনের আগেই চাকরি খোজা শুরু করে। প্রয়োজনের তাগিদে তখন পড়া লেখা শেষ করার আগেই চাকরিতে প্রবেশ করে। এবং নাম মাত্র মূল্যে নিজের জীবনের অমূল্য সময় গুলো বিক্রি করতে থাকে।
 
পরিচিত অপরিচিত সবার কাছ থেকেই একটা প্রশ্ন কমন পাওয়া যায়। কি কর তুমি? যদি কোন ইনিস্টিটিউটে ভর্তি থাকি, বলা যায়, পড়ালেখা করি। যদিও পড়া লেখা  করতে ইন্সটিটিউট এর প্রয়োজন হয় না।
যদি কোথাও না পড়ি, তখন যদি বলি কিছু করি না। তখন প্রশ্ন কর্তার অভিব্যাক্তি অবশ্যই ভালো দেখায় না। আর উত্তর যদি হয় জব করি, ঐ... continue reading

৭২৯

নূর মোহাম্মদ নূরু

৪ বছর আগে লিখেছেন

শিক্ষাব্রতী ও সমাজসেবক দানবীর হাজী মোহাম্মদ মোহসীনের ২৮২তম জন্মবার্ষিকীতে ফুলেল শুভেচ্ছা

শিক্ষাব্রতী ও সমাজসেবক দানবীর হাজী মোহাম্মদ মোহসীন। শুধু দানশীলতা নয়, আরবি ফরাসি-উর্দু ও ইংরেজি ভাষায় এবং ইতিহাস বীজগণিতে তাঁর অগাধ পাণ্ডিত ছিল। অনাড়ম্বর জীবনযাপনের অধিকারী হাজী মোহাম্মদ মেহসীনের মনোবৃত্তি আমাদের আজকের ভোগবাদী সমাজে এক অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হিসেবে কাজ করছে।বিশাল সম্পত্তির আয় চিরকুমার মোহসিন নিজের সুখ-স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য ব্যয় না করে দীন-দুঃখীর দুঃখ মোচনের জন্য ব্যয় করেছেন। বাংলাদেশের বিভিন্ন শহরে বিশেষ করে কলকাতার সীমানাবর্তি এলাকাগুলোতে তিনি অনেক সম্পতি আহলে বাইতের অনুসারী শীয়াদের নামে ওয়াক্বফ করে গেছেন। হুগলী-ঢাকা-চট্টগ্রাম-যশোর প্রভৃতি স্থানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বহু অর্থ দান করেছেন। মৃত্যুর ছয় বছর পূর্বে ১৮০৬ সালে একটি তহবিল গঠন করে ধর্ম ও জনহিতকর কার্যে সম্পত্তি দান করেন। মোহসীন... continue reading

৭৫৮