"শিশুতোষ ছড়া" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

এস আহমেদ লিটন

৪ বছর আগে লিখেছেন

শিশুতোষ (R)

শিশুতোষে মন হতে হয়
আরো শিশু,
এই শিশু মনে ভাই
আছে যীশু।
তুল তুলে এই নরম মনে
দাও গো আদর ছোয়া,
এই ছোয়াতে ধুয়ে যাবে
মনের যত ধোয়া।
সকাল দুপুর ছুটবে ওরা
আপন মনে,
সন্ধে হলে পড়তে বসবে
নিজ গুনে।
আদর যত্‌নে
মায়ের আঁচলে ঘেরা,
গুনে মানে এই শিশুরা
হবে দেশ সেরা।
খেলায় খেলায় হবে পড়া
আদর সোহাগ তুলে,
এই খেলাতে হবে বড়
যাবে নাকি ভুলে।
সন্ধে হলে সোনা মানিক
বসবে নিয়ে বই,
সকল পড়া শেষে
ঘুমতে যাবে হৈ হৈ রৈ রৈ। continue reading

৫০২

চারু মান্নান

৪ বছর আগে লিখেছেন

হেমন্তের সকাল

হেমন্তের সকাল
ঘাস ফড়িং এর সবুজ ঘাস
গায়ে মেখে হেমন্তের হিম,
হলুদ বর্ণে পাক ধরেছে
সোনা ঝরা রোদে রিমঝিম।
ক্যামেলিয়া ফুলে শিশির বিন্দু
যেন মুক্তোর দানা সাদা দলে,
মধুর লোভে মৌমাছি ফুলে
ভেজা ডানায় গুনগুনিয়ে ঘুরে।
সকাল বেলা গাছের তলায়
ফুল ঝরে ভেজা ঘাসে,
ভুতু সোনা আঁচল পেতে
ফুল কুড়িয়ে মালা গাঁথে।
হেমন্তকাল/২৫,অগ্রহায়ণ/১৪২১
continue reading

৬৯৮

লিপু রহমান

৪ বছর আগে লিখেছেন

পতাকা

সবুজ রঙে মাঠ হাসে
লাল সূর্য মধ্যে ভাসে,
বাংলা সোনার পতাকা
তাকে নিয়ে স্বপ্ন আঁকা ।
যুদ্ধ করেছে হাজার যোদ্ধা
জীবন দিয়েছে কত বোদ্ধা,
সেই লাল সবুজ পতাকার
ছবি এঁকেছে খোকা এবার ।
continue reading

৯০৯

‍মোঃ মোসাদ্দেক হোসেন

৪ বছর আগে লিখেছেন

লাশ নড়ে

লাশ নড়ে
-মোঃ মোসাদ্দেক হোসেন
মর্গে গিয়ে গেলো দেখা
লড়ছে লাশের দেহ
এ কি হালে হচ্ছে শিক্ষা
বলতে পারো কেহ।
চিকিৎসাটা বাণিজ্যকি কি
চলে টাকার কথায়
কেন নড়ে লাশের দেহ
কেমনে এমন ঘটায়!
চিকিৎসকে জানেনা যে
কোনটি বাঁচা মরা
ফলাফলে সেই ছাত্ররা
কেমনে হতো সেরা!
একি হালে শিক্ষা দেশে
প্রতি প্রশ্ন ফাঁসে
বন্ধ কর এসব নীতি
দেশকে ভালোবেসে।
continue reading

৫৭৭

‍মোঃ মোসাদ্দেক হোসেন

৪ বছর আগে লিখেছেন

শাপলা

শাপলা
- মোঃ মোসাদ্দেক হোসেন
শাপলা ফোটে রূপে রসে
পুকুর ডোবা জলে
শাপলা পাতায় লাফায় লাফায়
ব্যাঙে নাচে খেলে।
সাদা সাদা শাপলা ফোটে
হরেক মাছের দেশে
তুলতে যাই শাপলা মোরা
পুকুর জলে হেসে।
শাপলা ফুলে জলে দুলে
হাত বাড়িয়ে দেই
মুঠোয় পরে শাপলাগুলো
হাতে তুলে নেই।
continue reading

৬৮০

‍মোঃ মোসাদ্দেক হোসেন

৪ বছর আগে লিখেছেন

ফাঁকি

ফাঁকি
-মোঃ মোসাদ্দেক হোসেন
ফাঁকি মানেই পড়ছে বাঁকি
হোকনা সেটা পড়া
হোকনা সেটা কাজে কাজে
কিংবা টাকার তোড়া।
ফাঁকি মানেই বিলম্বতে 
ধ্বংস হচ্ছে সবে
ফাঁকির ফাঁকে জড়িয়ে পড়ে
মুক্তি পাবে কবে?
ফাঁকি মানেই নষ্ট সময়
ডেকে আনা কষ্ট
ফাঁকিটাকে আনলে ডাকি
জীবনটা হয় নষ্ট।
ফাঁকি থেকে উঠরে ডাকি
শপথ নিয়ে মনে
আজি হতে গর্জে ওঠো
প্রতি কাজে ক্ষণে।
যা গেছে তা ফিরবেনা আর
পাবি কেন কষ্ট
নতুন করে কররে শুরু
হবি কেন নষ্ট?
কররে শুরু শেষ সময়ে
বলুক তারা যাতা
দেখবি সেদিন পারবি যে দিন
দিবেনা আর ব্যথা।
তাইতো আজি কররে শুরু
বন্ধ করে ফাঁকি
আলোর মশাল হাতে নিয়ে
উঠরে আজি ডাকি।
continue reading

৫৮৩

লুৎফুর রহমান পাশা

৪ বছর আগে লিখেছেন

বুদ্ধিমান বোকা

আমাদের গফুরে, বড় সড় রাখালে
দুই পশু আছে তার বিশাল গোয়ালে
তাইতো গফুরে উঠে রোজ সকালে
পশু নিয়ে যায় মাঠে ফিরে সেই বিকালে।
সাবধানি গফুর তাই বার বার নেয় খোজ
পশু গুলো আদরের হয়ে উঠে রোজ রোজ।
একখান ছাগী আর এক খান গাই গরু
এই নিয়ে গফুরের রাখালী হয় শুরু।
গরুটা বেয়াড়া কথা কভু শোনেনা
ছাগীটাও কম নয়, ভ্য ভ্য থামেনা।
তবুও সে দুটিকেই ভালবাসে সমানে
অস্থির হয়ে উঠে না থাকলে সামনে।
 
একদিন ছাগীটা চলে গেল পাহাড়ে।
পাহাড়ে উঠে গেলে বিলটাকে মাড়িয়ে
ভাবল ছাগীখানা গফুর কি খুড়া কানা
এই খানে কত ঘাস... continue reading

৭৪৬

‍মোঃ মোসাদ্দেক হোসেন

৪ বছর আগে লিখেছেন

বেহানী

বেহানী
– মোঃ মোসাদ্দেক হোসেন
(রাসেল আমিনের অনুরোধে রচিত)
মিষ্টি মিষ্টি রসের কথা
মুখে মিষ্টি বাণী
শুনতে লাগে অনেক মজা
যেন মহারাণী।
বিদ্রুপেতে অশ্রু ঝরে
ঝরে অগ্নি কথা
হলে দেখা মনমিটিয়ে
বলে সকল ব্যথা।
স্বপ্নচূড়া আবেগ দিয়ে
আত্মার বন্ধনেতে
নেয় ভাসিয়ে সমব্যথা
পথচলার স্রোতে।
সময় নিয়ে বিবেগ দিয়ে
কাটে সারা বেলা
অতীত নিয়ে চিন্তা কিসের
বসে রঙ্গের মেলা।
২৫ নভেম্বর ২০১৪ ইং
দিনাজপুর।
ছবিঃ ইন্টারনেট
continue reading

৫৩৫

চারু মান্নান

৪ বছর আগে লিখেছেন

ছোট্ট সেই ভুতু সোনা

ছোট্ট সেই ভুতু সোনা
ছোট্ট সেই ভুতু সোনা
কৈশোরে চঞ্চল মনা,
লেখা পড়া বেজায় কষ্ট
ধু ছাই শুধু সময় নষ্ট।
এমনি করে স্কুল বাসা
মন লাগে না কিছুতেই খাসা,
রং তুলিতে রঙ মাখালে
ভূতেরা যেন সঙ সাজে।
নদীর ঘাটে কলসি কাঁকে
বধূরা সব নাইয়ে জলে,
সবুজ গাঁয়ের উনুন চালে
বাগ বাকুম কবুতর ডাকে।
১৪২১/১৩/কার্তিক/হেমন্তকাল।
continue reading

৫৪৮

সোহেল আহমেদ পরান

৪ বছর আগে লিখেছেন

শীতের বুড়ি


শীতের বুড়ি
তোমার বিয়ে
আসছো কি গো
ঘোমটা দিয়ে?
নেই আমাদের
কাঁথা-কম্বল,
ছোট্ট কুটির
সেইতো সম্বল।
তোমায় বরণ
করবো কীসে…
ভাবছি বসে
পাইনে দিশে।
continue reading

৬৭১