লুৎফুর রহমান পাশা

২ বছর আগে লিখেছেন

এ ভোগান্তির শেষ কোথায়!!

চারিদিকে রাস্তা ঘাটের বেহাল দশা। যেমন ভাঙ্গা তেমনি অনিরাপদ। এরপরও ভাবতেই ভালো লাগে আমরা পৃথিবীর সবচেয়ে দামী রাস্তায় চলি। সারাবছর কাজ চলে। ধুলা বালিতে, কাদা বৃষ্টি হলে পানিতে সয়লাব। বারোমাসি সাইনবোর্ড লাগানোই থাকে রাস্তার উন্নয়ন কাজ চলছে সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা দুঃখিত।
রাস্তা গাড়ীর চলাচলের জন্য নহে। কারো পকেট উন্নয়নের জন্যই। তারপরও দয়া করে দুঃখ প্রকাশের জন্য কৃতজ্ঞতা জানানো উচিত।
গত ১৪৬ দিনে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা ১৩২৩ জন। এই মৃত্যুর মিছিল থামছেনা। এই নিয়ে সড়ক বিভাগ রাস্ট্রের কারো কোন মাথাব্যথা নেই।
দুর্ঘটনার লোকজনকে সহযোগিতার পরিবর্তে লুটপাট করছে একদল লোক। আমরা গেলো গেলো বলে চিতকার করছি। অথচ রাস্তার হরহামেশা ছিনতাই হচ্ছে, মেয়েদের ব্যগ, গলার চেইন টেনে নিয়ে যাচ্ছে। কেউ কেউ মারা পড়ছে।
ইদানিং আবার আস্ত মেয়েকেই দিন দুপুরে তুলে নিয়ে যাচ্ছে। সেদিন যাত্রবাড়ীতে এই কারণে এক ছেলেকে ধরে এক বছরের জেল দিয়েছে রেব(য ফলা আসেনা)। যাদেরকে তুলি নিয়ে যেতে পেরেছে তাদের অবস্থা নিত্য পত্রিকায় দেখছি।
খাদ্য ভেজাল পাগল বানিয়ে ছাড়ছে। দেখার মত কেউ নেই। এই রকম অভিবাবকহীন আমরা বেঁচে আছি এটা ভাগ্য বলা যেতে পারে।
এতকিছুর মাঝেও কারো কোন বিকার দেখছিনা। ভাবতে ভালই লাগে সম্ভবত এত সুখী মানুষ পৃথিবীর কোথাও নেই। সবাই এই সবে অভ্যস্থ হয়ে যাচ্ছে।
চাইলে যা কিছু ইচ্ছা করা যায়। প্রতিবাদ প্রতিরোধ প্রতিশোধ নেয়ার কেউ নেই। এর চাইতে স্বাধীন কোন রাস্ট্র পৃথিবীর কোথাও আছে কিনা জানা নেই। ভাবতেই ভাল লাগে আমরা পৃথিবীর সবচেয়ে স্বাধীন রাস্ট্রে বসবাস করি।
continue reading
Likes Comments
০ Shares

লুৎফুর রহমান পাশা

৩ বছর আগে লিখেছেন

জলডুমুর

আমাদের কথা বলে জলের ডুমুর
পাতার ফাঁকেতে উকি দিয়ে পদ্মপানা
আমরা দুজন বাঁচি, শরত নুপুর
ছন্দে বাঝি, দেই মেঘের দুয়ারে হানা
 
আমরা সেবার করেছিনু পন, রয়েছি
পাশাপাশি আগের জনমে যেমন
তেমনি রইবো অব্যয়, চিরকাল, আছি
বিহরে, বিরহি প্রাণ, বৃষ্টিতে চাতক যেমন।
 
ওরা সব গাইবে জলদুপুরের গান
আমরা হবো নিরব পাখি, নিরবতায়
যদি যায় যাক, উবে যাক বিরহী প্রান
বেঁচে রইবো, আহলাদে হেলান আকাশের গায়।
 
ওরা আমাদের কথা বলে, কিষান-
কিষানী। ওরা বাজি নিয়েছে আমাদের প্রান
continue reading
Likes Comments
০ Shares

Comments (0)

  • - টি.আই.সরকার (তৌহিদ)

    চমৎকার অণু ! ভালো লাগলো ।

    শুভেচ্ছা ও ভালবাসা ।

    • - দীপঙ্কর বেরা

      ধন্যবাদ। ভাল থাকবেন। 

লুৎফুর রহমান পাশা

৩ বছর আগে লিখেছেন

বই আলোচনাঃ আবু ওসমানের নিজস্ব ভুল – লেখক পলাশ মাহবুব

ওসমান সাহেব ভুল করে ফেলেছেন। একজন অযোগ্য ছাত্রকে প্রশ্নপত্র সরবরাহ করে ডাক্তার হওয়া সুযোগ করে দিয়েছেন। যখন ভুল ভেঙ্গেছে ততদিনে অনেক দেরী হয়ে গেছে। তিনি এখন সেই ডাক্তারের ছুরির নিচে অপারেশনের টেবিলে কাতরাচ্ছেন। ভাবছেন ভুল ডাক্তারের কাটাকুটির চাইতে মরে যাওয়া ভাল। ভুলটা উনার একান্তই নিজের। এর সাক্ষীও একমাত্র তিনি নিজেই। সেই সুত্রে এটাকে আবু ওসমানের নিজস্ব ভুলই বলা যায়। বয়ানটা বেশ শক্তিশালী।
এভাবেই সমকালীন বিষয়, সমকালীন অংসঙ্গতি নিয়ে চারিপাশে চেনা মানুষের গল্প রম্য আর তীর্যক ভাবে তুলে এনেছেন সময়ের আলোচিত কথাসাহিত্যিক পলাশ মাহবুব। ২০১৬ সালের বইমেলায় প্রকাশিত বইয়ের নাম আবু ওসমানের নিজস্ব ভুল। অন্য প্রকাশ থেকে প্রকাশিত রম্য গল্পের সংকলনটির প্রচ্ছদ করেছেন জনপ্রিয় প্রচ্ছদ শিল্পী ধ্রুব এষ। যতদুর জানা যায় প্রচ্ছদের আলোকচিত্রটি ধ্রব এষের নিজের ছবি যেখানে তিনি সিড়ি দিয়ে নামছেন। আলোকচিত্রের ক্যমেরা যার মুন্ডু বাদ পড়ে গেছে। লেখক স্বত্বের বইটির মুল্য রাখা হয়েছে দুইশত টাকা।
পলাশ মাহবুব মুলত গল্প, উপন্যাস লেখেন। পাশাপাশি ছড়াও লিখেন। লেখার অন্যতম প্রধান বিষয় সমকালীনতা আর লেখনির ধরণ তীর্যক ও রম্য। আবু ওসমানের নিজস্ব ভুল গ্রন্থটি আগাগোড়া তীর্যক রসাত্নক গল্পের সমাহার। পড়ার সময় হা হা হো হো করে হাসি আসবেনা কিন্তু লবন দিয়ে জিহ্বা নাচিয়ে তেতুল খাওয়ার মত এক চোখ বন্ধ হয়ে আসবে।
যারা গল্পের প্লট খুজে পাননা। অথবা গল্প খুঁজতে অনেক পথ পাড়ি দিয়ে তবে গল্প সংগ্রহ করতে হয় তাদের সহায়ক হতে পারে পলাশ মাহবুবের বই আবু ওসমানের নিজস্ব ভুল।  লেখক তার চারিপাশের জগত, কর্মক্ষেত্র থেকে শুরু করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের গল্প সাবলীলভাবে নিজস্ব ঢঙ্গে বর্ণনা করে গেছেন। তার লেখার একটা নিজস্ব ভঙ্গি আছে যা সহজেই পাঠককে আকর্ষন করবে। ছোট ছোট... continue reading
Likes Comments
০ Shares

লুৎফুর রহমান পাশা

৩ বছর আগে লিখেছেন

৮ তারিখের ক্রেস্ট/পুরস্কার যারা নিতে পারেননি।

নক্ষত্র পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে যে বিজয়ীরা আসতে পারেন নাই তারা আগামী ১৩ই এপ্রিল বুধবার বিকাল ৪ টায় কারওয়ান বাজার আমার অফিসে চলে আসতে পারেন। ক্রেষ্ট, সার্টিফিকেট এবং বই এক সাথে নিয়ে নিতে পারেন। হতে পারে গল্প আড্ডা। কনফার্ম করার জন্য বিশেষ বিশেষ ভাবে অনুরোধ। ফোনঃ ০১৯১৪২১৩৬৬১     continue reading
Likes Comments
০ Shares

লুৎফুর রহমান পাশা

৩ বছর আগে লিখেছেন

এক লাইনের কাব্য

দানবের সামনে আয়না মেলে ধরো, যেন স্বরুপ দেখা যায়। continue reading
Likes Comments
০ Shares
Load more writings...