লোডিং ...
Site maintenance is running; thus you cannot login or sign up! We'll be back soon.

শীতের চারটি পিঠা Nokkhotro Desk

বাংলাদেশে ইতোমধ্যেই চলে এসেছে শীতের আমেজ। একটু একটু করে কয়াশাও পড়া শুরু হয়ে গিয়েছে। এই শীতের শুরুতেই আসুন জেনে নেওয়া যাক চারটি শীতের পীঠের রন্ধণ প্রণালী।   

নকশি পিঠা

feature-image

উপকরণ:
১। সেদ্ধ চাল - আধা কাপ,
২। ভাজা মুগডাল - আধা কাপ,
৩। চামচ ময়দা - ১ টেবিল,
৪। বেকিং পাউডার - এক চিমটি,
৫। গুঁড়ো চিনি - ২ টেবিল চামচ,
৬। তেল - ১ টেবিল চামচ,
৭। ডিম ১টি
৮।চিনি - ২ কাপ,
৯। পানি - আধা কাপ।

প্রণালী:
১। আধা কাপ পানি দিয়ে ২ কাপ চিনি মিশিয়ে ঘন সিরা তৈরি করতে হবে।
২। সেদ্ধ চাল ভিজিয়ে রেখে নরম হলে গুঁড়ো করে ফেলতে হবে।
৩। ভাজা মুগ ডাল অল্প পানিতে সেদ্ধ করে বেটে নিতে হবে।
৪। ময়দার সাথে বেকিং পাউডার মিশিয়ে নিতে হবে।
৫। গুঁড়ো চিনি ও তেল এক সঙ্গে ফেটে চালের গুঁড়ো, ডাল ও ময়দা দিয়ে নাড়তে থাকতে হবে। প্রয়োজন হলে সামান্য পানি দিয়ে মাখিয়ে নিতে হবে।
৬। কামির ৩ ভাগ করে ৪ মিলিমিটার পুরু রুটি বেলুন।
৭। বিভিন্ন আকারের পিঠা কাটার জন্যে বিভিন্ন ধরণের খেঁজুর কাঁটা বা চোখা ছুরি ব্যবহার করতে হবে।
৮। খেঁজুর কাঁটা দিয়ে পিঠার ওপরে বা কিনারায় মনের মত নকশা এঁকে নিতে হবে।
৯। সব শেষের কাজটি হল পিঠা ভাজা। পিঠা ডুবো তেলে ভেজে ২-৩ মিনিট গরম সিরায় ডুবিয়ে রেখে তুলে নিন।


চন্দ্রপুলি

feature-image

উপকরণ:
১। দুধ - আধা লিটার,
২। খেঁজুর গুড় - ২০০ গ্রাম,
৩। নারিকেল কুরানো - ৩ কাপ,
৪। ময়দা - ৩ কাপ,
৫। চিনি - ১ কাপ।

প্রণালী:
১। দুধ জ্বাল দিয়ে ঘন এক কাপ করুন।
২। অর্ধেক নারিকেল মিহি করে বেটেনিন।
৩। দুধের সঙ্গে চিনি, নারিকেল মেশান।
৪। ময়দা দিয়ে কাই তৈরি করে নিন।
৫। বাকি নারিকেলের সঙ্গে গুড় মিশিয়ে জ্বাল দিন।চটচটে হলে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন।
৬। ময়দার খামির দিয়ে রুটি বেলে নারিকেলের পুর ভরে বাঁশের চটা বা ছুরি দিয়ে অর্ধচন্দ্রাকারে কাটুন। ৭। তেল গরম করে একবারে ৩-৪টি পিঠা ডুবো তেলে ভাজুন।


ভাপা পিঠা

feature-image

উপকরণ:
১। সেদ্ধ চালের গুঁড়ি - ৮ কাপ,
২। লবণ গুঁড়ো - ২ চা চামচ,
৩। চিনা বাদাম মোটা কুচি - আধা কাপ,
৪। কনডেন্সড মিল্ক - আধা কৌটা।

প্রণালী:
১। সেদ্ধ চালের গুঁড়ি মিহি চালনিতে চেলে নিন।
২। গুঁড়িয়ে লবণ মেশান। এমন আন্দাজে পানি ছিটিয়ে মেশান যেন গুঁড়ি ভিজা মনে হয় অথচ দলা না বাঁধে। পানি মেশাবার পরে গুঁড়ি আবার ছেলে নিন।
৩। ভাপা পিঠার পাত্রে (মাটির লোটায়) পানি ফুটান। পিঠার পাত্রের পরিবর্তে অন্য ছোট মুখের হাঁড়িতে ছিদ্র করা মাটির ঢাকনা আটা দিয়ে এঁটে দেয়া হয়।
৪। পিঠার জন্য দুটি ছোট বাটি নিন। বাটিতে গুঁড়ি অল্প অল্প করে ছড়িয়ে দিন। মাঝে দুই চা-চামচ, কনডেন্সড মিল্ক রাখুন এবং উপরে চিনা বাদাম ছিটিয়ে দিন।
৫। তারপর আবার গুঁড়ি ছিটিয়ে দিয়ে বাটি ভরে গেলে হাত দিয়ে গুঁড়ি সমান করে দিন। চাপবেন না। পাতলা ভিজা কাপড়ের টুকরো দিয়ে পিঠা ঢেকে দিন।
৬। বাটির নিচের কাপড় মুঠো করে ধরে বাটি উল্টে ফুটন্ত পানির পাত্রের মুখে বসান। বাটি তুলে ফেলুন। ৭। পিঠা কাপড় দিয়ে ঢেকে তার ওপরে ঢাকনা দিন। দু’মিনিট পরে কাপড়সহ পিঠা তুলে দিন।


পাটি সাপটা

feature-image

উপকরণ:
ময়দা - দেড় কাপ,
ডিম - ২টা,
কনডেন্সড মিল্ক - আধা টিন,
লবণ পরিমাণ - মত,
পানি - ১কাপ,
চামচ চিনি - ২ টেবিল,
নারিকেল কুরানো - দেড় কাপ অথবা দুধের ক্ষীর - ১ কাপ ।

প্রণালী:
১। ডিম ফেটে কনডেন্সড্‌ মিল্কের সঙ্গে মেশান।
২। পানি মিশিয়ে ময়দা দিয়ে গোলা করুন। চিনি ও লবণ মেশান।
৩। হাতল দেয়া ছোট ফ্রাইং প্যান গরম করে চার ভাগের এক কাপ গোলা দিন। প্যান ঘুরিয়ে গোলা চারদিকে প্যানের সমান করে ছড়িয়ে দিন। পিঠা প্যানের কিনার ছেড়ে আসলে তুলে নিন।
4. সব পিঠা হয়ে গেলে ক্ষীর বা নারিকেল পুর দিয়ে মুড়ে চেপে দিন।
A A