Entertainment Image

নতুন রেকর্ডে পপ সম্রাট



পপ সম্রাট মাইকেল জ্যাকসন পৃথিবীতে নেই। কিন্তু রয়েছে তার সৃষ্টিকর্ম। আর এর মাধ্যমেই ভক্তদের হৃদয়ে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। নতুন খবর হল মৃত্যুর পরও ২০১৫ সালে রেকর্ডিং মিউজিক বিক্রিতে ৭৫ মিলিয়ন পাউন্ড আয় হয়েছে। যা নতুন একটি রেকর্ড। আর এ তথ্য জানিয়েছে ফোবর্স। মাইকেল জ্যাকসন তিন দশকের বেশি সময় ধরে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন। তিনি বেঁচে থাকাকালীন ৭১৯ মিলিয়ন পাউন্ড আয় করেছেন। আর ২০০৯ সালে তার মৃত্যুর পর তার গান বিক্রি করে আয় হয়েছে ৬৫৩ মিলিয়ন পাউন্ড।

২০০৯ সালের ২৫ জুন মাইকেল জ্যাকসন ৫০ বছর বয়সে হার্ট অ্যাটাকে লস অ্যাঞ্জেলেসের তার নিজ বাড়িতে মারা যান। তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক কনরাড মুরি অতিমাত্রায় চেতনানাশক ওষুধ দিয়েছিলেন বলে প্রমাণিত হওয়ায় ২০১১ সালে তার বিরুদ্ধে জ্যাকসন হত্যার অভিযোগ আনা হয়। তিনি এ মামলায় অভিযুক্ত হন। ১৯৫৮ সালের ২৯ আগস্ট আমেরিকার গ্যারি ইন্ডিয়ানায় জন্মগ্রহণ করেছিলেন এ পপ রাজা। তিনি মাত্র ৫ বছর বয়সেই ১৯৬৩ সালে পেশাদার সঙ্গীত শিল্পী হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। তখন জ্যাকসন ফাইভ নামের ব্যান্ডের সদস্য হিসাবে গান গাইতেন।

পরিবারের ৭ম সন্তান মাইকেল। তার প্রতিভার কথা জানান দিয়েছিলেন মাত্র ৫ বছর বয়সেই। এরপর সময়ের সাথে পাল্লা দিয়েই ১৯৭১ সাল থেকে একক শিল্পী হিসাবে গান গাইতে শুরু করেন। এরইমধ্যে তার গাওয়া ৫টি গানের অ্যালবাম বিশ্বের সর্বাধিক বিক্রিত রেকর্ডের তালিকায় যুক্ত হয়েছে। যা হলো, অফ দ্য ওয়াল (১৯৭৯), থ্রিলার (১৯৮২), ব্যাড (১৯৮৭), ডেঞ্জারাস (১৯৯১) এবং হিস্টরি (১৯৯৫)। সঙ্গীত সেই সঙ্গে, নৃত্য এবং ফ্যাশন তিনিটি ধারার চমকপ্রদ প্রদর্শনই তাকে অন্য সবার থেকে আলাদা করেছে। ১৯৮০র দশকে মাইকেল জ্যাকসন সঙ্গীত শিল্পীদের মধ্যে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছান।