Sports Image

সাঙ্গাকারার কাছে মাশরাফির আত্মসমর্পণ



টি-টোয়েন্টিতে আর যাই হোক ১১০ রান করে জয়ের স্বপ্ন দেখা যায় না। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) প্রথম দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে তাই প্রথম ইনিংস শেষেই আসলে ম্যাচটা শেষ।

তারপরও, লড়াই চালিয়ে গেল মাশরাফি বিন মুর্তজার দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। আর সেই লড়াইটা চললো ঢাকার ইনিংসের শেষ ওভার পর্যন্ত। তবে, শেষ রক্ষা হল না। চার বল বাকি থাকতে ছয় উইকেটের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লো কুমার সাঙ্গাকারার দল ঢাকা ডাইনামাইটস।

টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামা কুমিল্লা ইনিংসের প্রথম চার ওভারে চারটি উইকেট হারিয়ে ফেলে বিপাকে পড়ে। মাত্র ২৭ রানে চার উইকেট পতনের পর আর তারা মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি।

শেষের দিকে মাশরাফির মাশরাফির ২৫, ক্রিশমার সান্তোকির ২১ ও মাহমুদুল হাসানের ২২ রানের ইনিংসের সুবাদে ১০০ পাড় করে দলটি। ঢাকার হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন আবুল হাসান রাজু। এছাড়া বাঁ-হাতি স্পিনার মোশাররফ হোসেন রুবেল নেন দু’টি উইকেট।

মাত্র ১১১ রানের লক্ষ্যে সাবধানেই ব্যাট করেছে ঢাকা। ২৯ রানে ওপেনার সামশুর রহমান শুভ ১৯ রান করে বিদায় নিলেও অবিচল ছিলেন পাকিস্তানি ওপেনার নাসির জামসেদ। শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারার সাথে ৫৫ রানের জুটিতাতেই জয়ের ভিত মজবুত হয় ঢাকার।

জামসেদ ৪৪ ও সাঙ্গাকারা ২৫ রান করেন। ঢাকার হয়ে সর্বোচ্চ দুটি উইকেট নেন বাঁ-হাতি পেসার আবু হায়দার রানি। আর একটি করে উইকেট নেন মাশরাফি ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সুনীল নারাইন। আগামী ২৪ নভেম্বর কুমিল্লার প্রতিপক্ষ চিটাগং ভাইকিংস। আর এর একদিন পরেই ঢাকা খেলবে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে।