Sports Image

অ্যান্ডারসনের ৪০০James Michael \"Jimmy\" Anderson



“যখন আপনার দলে তার মতো একজন স্পেশাল প্লেয়ার থাকবে তখন আপনি যে কোন মুহূর্তে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে ফেলতে পারবেন। নিঃসন্দেহে সে আমার দেখা অন্যতম সেরা সুইং বোলার”।

জিমি অ্যান্ডারসন প্রসঙ্গে এমন ব্যাখ্যা দাঁড় করান ইংলিশ কাপ্তান অ্যালিস্টার কুক। অ্যান্ডারসনকে অনেকটা বিরল প্রজাতির সুইং বোলিং জাতির শেষ প্রতিনিধি বলা চলে। ফ্ল্যাট উইকেট আর দুই প্রান্ত থেকে দুইটি নতুন বল ব্যবহারের ফলে সুইং নামের শিল্প আজকে বিলুপ্তির পথে। জিমি অ্যান্ডারসন সেই বিলুপ্ত শিল্পীদের মধ্যে একজন যে নতুন বলকে দুই দিকে সুইং করাতে পারেন। এমন কোন ব্যাটসম্যান নেয় যে অ্যান্ডারসনের সুইং এ পরাস্থ হয়নি।

অ্যালিস্টার কুক যে ভুল বলেননি, একমাত্র ইংলিশ বোলার হিসাবে টেস্ট ক্রিকেটে চারশত উইকেট নিয়ে কুকের ব্যাখ্যা সঠিক প্রমাণ করেছেন অ্যান্ডারসন। কয়েকদিন আগেই স্যার ইয়ান বোথামকে পেছনে ফেলে ইংল্যান্ডের হয়ে সবচেয়ে বেশি উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব করেছিলেন অ্যান্ডারসন। এরপরও অ্যান্ডারসনের উইকেট শিকারের নেশা থেমে যায়নি। যেন নিজে ছাড়িয়ে যাওয়ার মিশনে নেমেছেন তিনি। ইংল্যান্ড বনাম নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার হেডিংলি টেস্টের ১ম দিনে নতুন বলে নিউজিল্যান্ড ওপেনার মারটিন গাপটিলকে স্লিপকে (কট অ্যাট ক্রিজ) ক্যাচ আউট করার মাধ্যমে ৪০০ উইকেট শিকারের অভিজাত ক্লাবে অন্তর্ভুক্ত হল অ্যান্ডারসন। ইংল্যান্ডের হয়ে টেস্ট ক্যারিয়ারে অ্যান্ডারসনের শিকার মোট ৪০১ উইকেট।

অ্যান্ডারসন ছাড়াও ৪০০ উইকেট শিকারির ক্লাবে আরও ১২ জন বোলার আছেন। আটশ উইকেট নিয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকায় সবার ওপরে রয়েছেন শ্রীলঙ্কান গ্রেট মুত্তিয়া মুরালিধরন। সাতশ আট উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় তালিকায় রয়েছেন দ্যা কিং অফ স্পিন শেন ওয়ার্ন। ৬১৯ উইকেট নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন ভারতের অনিল কুম্বলে।