Beauty Image

কম ঝামেলায় নিত্যের সাজ



সাজসজ্জায় বেশি মন নেই, খুব একটা মাথা ঘামানো হয় না রোজকার তৈরি হওয়া নিয়ে, এমনটা তো হতেই পারে যে কারো। সবসময় অলঙ্কারের ব্যবহার নিয়েও বিরক্তি থাকতেই পারে। কিন্তু গুছিয়ে তৈরি হওয়ার মানেই যে রাজ্যের আয়োজন, অনেক অনেক গয়নাগাটির বোঝা, নিজের এমন ভুল ভাবনটা এবার তাড়িয়ে ফেলুন। অল্প আয়োজনেই রোজ নিজেকে সাজিয়ে গুছিয়ে রাখার বিদ্যা আয়ত্ত করে নিন।
কোন একটি গয়না বা অনুষঙ্গ বাছাই করুন একদিনের জন্য। খুব নজরকাড়া হতে হবে, তেমন তো কথা নেই। কিন্তু ছিমছাম সুন্দর কোন একটা জিনিষই আপনার সাজের ষোলকলা পূরণ করে দিতে পারে।
যেমনটা করতে পারেন আপনি

হেয়ারব্যান্ড বা ক্লিপ, চুলের এমন অনুষঙ্গগুলো হতে পারে আপনার সাজের উপকরন। রঙেঢঙে বৈচিত্র্যময় সব অনুষঙ্গ সংগ্রহে রাখতে পারেন। খোলাচুল, পরিপাটি খোঁপা বা এলোমেলো বেণি যাই হোক আপনার কেশবিন্যাস, সাথে মানানসই একটি ব্যান্ড বা ক্লিপ আপনার সাজের মাধ্যম হয়ে উঠবে। বা বর্ণিল কয়েকটি হেয়ারব্যান্ড দিয়ে কয়েক ধাপের পনিটেইলেই আপনার সাজের উচ্ছাস প্রকাশ পাবে। করেই দেখুন না কেমন লাগে।

একহাত ভরে চুড়ি পরতে পারেন একদিন। সালোয়ার-কামিজ হোক বা জিন্স-কুর্তি, সবকিছুর সাথেই চুড়ি বা ব্রেসলেট মানিয়ে যায় বেশ। এবং মাথায় রাখুন সেই সহজ সূত্র, চিকন চুড়ি পরলে হাত খানিকটা ভর্তি করেই পরুন আর একটু চওড়া ব্রেসলেটের ক্ষেত্রে একটি বা দুটি বেছে নিন। পোশাকের রঙের বৈপরীত্যে পরুন চুড়ি অথবা ব্রেসলেট, বিষয়টা বেশি নজর কাড়বে তখন।

বড়সড় একটা আংটি গলিয়ে নিন আঙ্গুলে। চাইলে দুই/তিনটি আংটিও পরতে পারেন, একেক রকমের। হাতে তখন চুড়ির গোছা থাকুক বা না থাকুক, কেবল আংটিও আপনার সাজের আয়োজনে প্রভাব খাটাতে সক্ষম।

নাকফুল ভালো লাগে? তাহলে কিন্তু প্রায়দিনই নাকফুল পরতে পারেন আপনি। অন্য কোন গয়না ছাড়াই নাকের ডগায় একটা নাকফুলে আপনাকে স্নিগ্ধ সুন্দর লাগবে।

একরঙা কুর্তির সাথে গলায় হরেক রঙের পুঁতির একটা মালা পরতে পারেন। অথবা বেছে নিতে পারেন রঙিন সুতোর মাঝে ধাতব উপাদানের লকেট। এই একটি জিনিষেই আপনি নিজেকে পুরোপুরি সাজিয়ে তুলতে পারেন একদিন।

চিরায়ত গহনা বাদ দিয়ে সাজসজ্জায় ভিন্ন কিছু যোগ করতে চাইলে তাও সম্ভব। হালের ট্রেন্ড রিস্টব্যান্ড জিনিষটা কিন্তু ফ্যাশন অনুষঙ্গ হিসেবে চমৎকার। কয়েকটি রিস্টব্যান্ডেই আপনার সাজ পূর্ণ করুন। ধারার বাইরে থেকে সবার নজর কাড়বেন আপনি।

ঝামেলার ভয়ে সাজসজ্জায় পুরো ফাঁকি দেয়ার অভ্যাস ছাড়ুন এবার। চাইলে এবং কৌশল খাটালে সবকিছুই আপনার সাধ্যের সীমায় ধরা দেবে। এমন স্বল্প আয়োজনে নিত্যদিনের তৈরি হওয়া তবে এখন আপনার হাতের মুঠোতেই।