Beauty Image

স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য রক্ষার বাহারি গোলাপের যত অজানা ব্যবহার



গোলাপ কি শুধু প্রিয়তমার খোঁপাতেই সুন্দর? আর কোনো কাজে সে লাগে না? আপনার হয়তো জানা নেই, কিন্তু অনেক শতাব্দী ধরেই মানুষ সৌন্দর্যচর্চায় ব্যবহার করে আসছে গোলাপ। স্বাস্থ্য রক্ষাতেও আছে এর অভাবনীয় সব গুণাবলী, যাতে আপনিও অবাক হতে বাধ্য।
প্রাচীন গ্রিক এবং রোমান সভ্যতায় গোসলের পানিতে দেওয়া হতো গোলাপের পাপড়ি। শুধু তাই না, গোলাপের পাপড়ি যে খাওয়াও যেতে পারে তা কি আপনি জানতেন? পড়ুন গোলাপের অজানা সব গুণের তালিকা।

রূপচর্চায় অনিন্দ্য গোলাপ
- গোলাপ জল প্রাকৃতিক টোনার হিসেবে কাজ করে। দিন শেষে বাড়ি ফিরে গোলাপ জলে ভিজিয়ে নিন এক টুকরো তুলো এবং ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। এতে মেকআপ তোলা এবং মুখ পরিষ্কারের কাজটাও হয়ে যাবে।
- ত্বকে মসৃণ ভাব আনতে গোলাপ জলের জুড়ি নেই। গোলাপে থাকা তেল ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে। যাদের ত্বক খুব স্পর্শকাতর, তাদের জন্য গোলাপজল বেশি উপকারী
- গোলাপের আছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য। ফলে ব্রণের যন্ত্রণা দূর করতে গোলাপ জল ব্যবহার করতে পারেন। মেথি পেস্ট এবং গোলাপ জল মিশিয়ে তৈরি করতে পারেন ফেস প্যাক যা দারুণ কাজ করবে। ত্বকে জ্বালাপোড়া, লালচে ভাব, একজিমা এবং সোরিয়াসিসের সমস্যা কমাতেও কাজে লাগে এটি।
- অ্যাসট্রিনজেন্ট ব্যবহারের কথা ভাবছেন? দামী কোম্পানির এই পণ্য কিনতে হবে না। নিয়ম করে প্রতিদিন গোলাপ জলের ঝাপ্টা দিন মুখে। ত্বকের জেল্লা ঠিক করে পড়বে।
- চোখের নিচের ডার্ক সার্কেল কমাতে গোলাপ জলে তুলো ভিজিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।
- ঠোঁটের রঙ কালো বলে অনেকেরই চিন্তা থাকে। গোলাপের পাপড়ি পিষে এর সাথে মেশান দুধের সর এবং মধু। মিশ্রণটি ঠোঁটে ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ঠোঁট হয়ে উঠবে গোলাপি এবং তুলতুলে।
- মাথার ত্বক চুলকে চুলকে অতিষ্ঠ আপনি। সেই সাথে বাড়ছে খুশকির যন্ত্রণা? গোলাপ জল মালিশ করতে পারেন। চুলকানি কমে আসবে। শুধু তাই নয়, চুলের বৃদ্ধিও হবে দ্রুত।

স্বাস্থ্য রক্ষায় গোলাপের ব্যবহার
- স্ট্রেসের কারণ মেজাজ খিচড়ে আছে, ঘুম হচ্ছে না? গোসলের পানিতে মিশিয়ে নিন গোলাপের পাপড়ি। শরীর ও মন দুই-ই হালকা করবে এটি।
- ওজন কমাতে কাজে লাগে গোলাপের পাপড়ি, কারণ এটি মেটাবলিজম বাড়ায়। শরীর থেকে দূর করে ক্ষতিকর টক্সিন। এক গ্লাস ফুটন্ত পানিতে ১০-১৫ টি গোলাপের পাপড়ি ফেলে দিন এবং পানির রঙ গোলাপি হয়ে এলে নামিয়ে ফেলুন। এর গোলাপের চা সকালে নিয়মিত পান করতে পারলে অতিরিক্ত ওজন ঝরানো সহজ হবে।
- পাইলসের উপশম করে। হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন। কারণ গোলাপের পাপড়িতে থাকে অনেকটা ফাইবার এবং এটি হজমে সহায়তা করে। ৫০ মিলি. পানির সাথে এক মুঠো গোলাপের পাপড়ি পিষে নিন এবং খালিপেটে পান করুন। ৩ দিন নিয়মিত পান করলে পাইলসের রক্তপাতের সমস্যার উপশম হবে।
- আপনার যৌন জীবনেও নতুন মাত্রা আনতে পারে গোলাপের পাপড়ি। আয়ুর্বেদ অনুযায়ী, গোলাপ আপনাকে আগের চাইতে বেশি প্রাণবন্ত করে ফেলতে সাহায্য করে। প্রতিদিন কয়েকটা গোলাপের পাপড়ি ধুয়ে খেয়ে ফেলুন।
- গোলাপের পাপড়ির চা পান করলে তা লিভার এবং গোল ব্লাডার সুস্থ রাখে। কমায় বিভিন্ন ইনফেকশন। হালকা গলা ব্যাথা এবং জ্বরেও এটি আরাম দেয়।