Site maintenance is running; thus you cannot login or sign up! We'll be back soon.

"আবিষ্কার" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

শাহআজিজ

২ বছর আগে লিখেছেন

রহস্যময় ভ্রাম্যমান পাথরের রহস্য উন্মোচিত এক শতাব্দীব্যাপী গবেষনার পর!

ক্যালিফোর্নিয়ার ডেথ ভ্যালি ন্যাশনাল পার্কের সমতল ভুমিতে কিছু পাথর দেখা যায় যেগুলো কোনো রকম মানুষ বা প্রানীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই একস্থান থেকে অপর স্থানে ঘুরে বেড়ায় এবং এদের যাওয়ার পথে ভুমিতে চিহ্নরেখা রেখে যায়! এধরনের আচরণের কারনে পাথরগুলোকে sailing stone, sliding stone বা gliding stone (পিছলে যাওয়া পাথর) বলা হয়। চিহ্নরেখাগুলো পর্যবেক্ষণ করলে দেখা যায় এদের গতিপথ নিজে নিজে পরিবর্তিত হয়েও যেতে পারে। তবে এই সরণ চোখে পর্যবেক্ষণ করা দুঃসাধ্য কেননা পাথরগুলো অধিকাংশ সময়ই (বছরাধিক কালও হতে পারে) স্থির থাকে এবং হঠাৎ হঠাৎ কয়েক সেকেন্ডের জন্য সচল থাকে।
যেসব পাথরের তলা অমসৃণ সেগুলো সাধারণত একটি খাঁজকাটা পথরেখা এঁকে সোজা পথে... continue reading

৩৭৪

শাহআজিজ

২ বছর আগে লিখেছেন

শাহআজিজ

২ বছর আগে লিখেছেন

ঘন্টা এবং মিনিট কেন ষাট ভাগে বিভক্ত?

আজকের পৃথিবীতে বহুল ব্যবহৃত সংখ্যাগত পদ্ধতিটি হচ্ছে দশমিক (ভিত্তি ১০ এ)। মানুষের হাতের দশটি আঙ্গুল ব্যবহার করে গণনা করা যায় বলেই বোধহয় এই দশভিত্তিক পদ্ধতি চালু হয়েছে। তবে মানব সভ্যতাগুলো বিভিন্ন ধরনের সংখ্যাগত পদ্ধতি যেমন, দ্বাদশমিক (ভিত্তি ১২ তে) এবং ষষ্ঠিক (৬০ এর ভিত্তিতে) ব্যবহার করে প্রথমে দিনকে ক্ষুদ্রতম অংশে বিভক্ত করতে শুরু করে।
সূর্যঘড়ি ব্যবহারের মিশরীয় দলিল খুঁজে পাওয়ার কারণে অধিকাংশ ঐতিহাসিকগণ প্রথম সভ্যতা হিসেবে দিনকে বিভিন্ন ক্ষুদ্রতম অংশে বিভক্ত করার কৃতিত্ব তাঁদের দিয়ে থাকেন। প্রথম সূর্যঘড়িটি ছিল শুধুমাত্র একটি খুঁটি, যা মাটিতে পোতা থাকতো এবং সূর্য থেকে আগত আলো খুঁটিতে আপতিত হয়ে যে ছায়ার সৃষ্টি করতো সেটাই... continue reading

২৩৭

শাহআজিজ

২ বছর আগে লিখেছেন

বৃহস্পতি ।। মহাজাগতিক পর্ব

মহাজাগতিক বিষয়আশয় নিয়ে মানুষের অপরিসীম আগ্রহ । আমার মনে হল এসব বিষয় নিয়ে নক্ষত্রের পাঠকদের কাছে তুলে ধরি । নাসার সাইটে এসব ছাপা হয় নিয়মিত। সমস্যা এর অনুবাদ। ভাবলাম ইংরেজিতেই ছেপে দেই।
Jupiter is known for its stripes and large red spot.
The Galileo spacecraft took this photo of Jupiter's Great Red Spot in 1996.
Jupiter's four largest moons (Io, Europa, Ganymede and Callisto) are known as the Galilean satellites because they were discovered by Galileo Galilei in 1610.
NASA's Juno mission will study how Jupiter, the largest planet in the solar system, formed and became the dynamic world it is today. ... continue reading

২৫৩

শাহআজিজ

২ বছর আগে লিখেছেন

ব্ল্যাক হোল ।। মহাজাগতিক পর্ব

মহাজাগতিক বিষয়আশয় নিয়ে মানুষের অপরিসীম আগ্রহ । আমার মনে হল এসব বিষয় নিয়ে নক্ষত্রের পাঠকদের কাছে তুলে ধরি । নাসার সাইটে এসব ছাপা হয় নিয়মিত। সমস্যা এর অনুবাদ। ভাবলাম ইংরেজিতেই ছেপে দেই। অবশ্য কতৃপক্ষ আপত্তি করলে ছাপব না।
What Is a Black Hole?
An artist's drawing a black hole named Cygnus X-1. It formed when a large star caved in. This black hole pulls matter from blue star beside it.
An artist's drawing shows the current view of the Milky Way galaxy. Scientific evidence shows that in the middle of the Milky Way is a supermassive black hole.
This... continue reading

২৮৯

টোকাই

৪ বছর আগে লিখেছেন

থ্রি ডি প্রিন্টার

বর্তমানে নতুন একটি প্রযুক্তির নাম হল থ্রি ডি প্রিন্টার । আমরা ব্যাবহারিক কাজে যেমন কোন কিছু প্রিন্ট করি - ছবি , কোন ডকুমেন্ট , বই , পত্র পত্রিকা , ব্যানার ইত্যাদি ; সেগুলো হল টু ডি । মানে হল দ্বিমাত্রিক ।  এখন ত্রিমাত্রিক প্রিন্ট করার প্রযুক্তি চলে এসেছে । অর্থাৎ এই প্রযুক্তিতে কোন কিছু প্রিন্ট করলে তার দৈর্ঘ্য - প্রস্থের পাশাপাশি উচ্চতা থাকবে । বাস্তবে কোন কিছু যেমন দেখি তেমন । যেমন ধরুন আপনার একটি ছবি প্রিন্ট করলে টু ডি-তে একটি পৃষ্ঠার মধ্যে দেখতে পাবেন । কিন্তু থ্রি ডি-তে পুরো বাস্তব মুখের ছবি পাবেন । বোঝার সুবিধার্থে , মূর্তি দেখতে... continue reading

৮৮৯

Md Abu Taher

৪ বছর আগে লিখেছেন

যাত্রা নাস্তি

আমি সবাইকে লাল গোলাপে শুেভচ্ছা দিলাম। আমি এই প্রথম ব্লগারের আঙিনায় প্রবেশ করলাম। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন। continue reading

৬৫০

অর্বাচীন পথিক

৪ বছর আগে লিখেছেন

মঙ্গলের পথে মঙ্গল-অমঙ্গলের ধ্বনি

মঙ্গল গ্রহের কথা কে না জানে এই পৃথিবীতে। লাল এ গ্রহকে নিয়ে পৃথিবীর মানুষের জল্পনা কল্পনার শেষ নেই। তবে কিছটা হলেও শিথিল হতে যাচ্ছে সেই জল্পনা কল্পনার। পৃথিবী থেকে লাল এই গ্রহের দুরত্ত প্রায় ৫ কোটি ৫০ লাখ কিলোমিটার। তবে প্রযুক্তির কল্যাণেই সেই দুরত্ত এখন কমে এসেছে। আর তাই চলছে সেই খানে মানুষ বসবাস করানোর সকল প্রস্তুতি। কয়েক বছর পর অথাৎ ২০২৫ সালে মানুষ প্রথম বসবাস শুরু করবে এই লাল গ্রহে।
২০২৫ সালে বসবাসের উদ্দেশে মানুষের যাএা শুরু হচ্ছে মঙ্গল গ্রহে :
মঙ্গল গ্রহে মানুষ পাঠানোর এ আয়োজন করেছে নেদারল্যান্ডসের একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান মার্স ওয়ান। আর তার এই... continue reading

১০ ৬৮৬

নূর মোহাম্মদ নূরু

৪ বছর আগে লিখেছেন

প্রতিষেধক বিদ্যার জনক, জীবানু গবেষক এডওয়ার্ড অ্যান্থনি জেনার এর ১৯২তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি

ব্রিটিশ জীবাণু গবেষক এডওয়ার্ড অ্যান্থনি জেনার। তাঁকে বলা হয় ‘প্রতিষেধক বিদ্যার জনক’। স্মলপক্সের ভ্যাকসিন উদ্ভাবনের জন্য বিখ্যাত তিনি। আজ থেকে ৬০, ৭০ বছর আগেও বসন্ত ছিলো এক মারাত্বক আতঙ্ক। যখন কোনো গ্রামে বসন্ত দেখা দিতো, তা ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করতো, মহামারী আকারে মৃত্যুর কারণ ঘটাতো হাজার হাজার লোকের। বসন্ত রোগে আক্রান্ত হলে খুব কম লোকই বেঁচে উঠতো। যদিও বা কেউ কেউ প্রাণে বাঁচতো, কিন্তু সারা জীবনের জন্য শরীরে বয়ে বেড়াতে হতো সেই মারাত্বক রোগের বীভৎস ক্ষতচিহ্ন। এই কালব্যাধির হাত থেকে যে মহান ব্যক্তি রক্ষা করেছেন পৃথিবীর মানুষকে, তিনি হলেন বিখ্যাত বিজ্ঞানী এডওয়ার্ড অ্যান্থনি জেনার। তিনি সর্বপ্রথম ১৭৯৬ সালে ভ্যাক্সিন আবিষ্কার করেন। গুটি... continue reading

৫৩০

Zobaer Bin Liaquot

৪ বছর আগে লিখেছেন

নোকিয়া একটি অতীতের নাম !!!

মোবাইল বলতে একসময় অনেকেই নোকিয়াকেই বুঝত। নিম্নবৃত্ত হতে শুরু করে সমাজের উচ্চবৃত্তদের হাতের মুঠোতে সবচেয়ে বেশী শোভা পাওয়া মোবাইলটির নাম নিঃসন্দেহে নোকিয়া। বর্তমান প্রতিযোগিতার বাজারে নোকিয়ার হারিয়ে যাওয়া এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।
১৮৬৫ সালে ফ্রেডরিক ইডেস্টামেরকাগজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কতৃক নোকিয়া প্রথম প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৭১ সালে ইডেস্টাম তার এক ঘনিষ্ট বন্ধু লিও ম্যাচলিনের সাথে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে নোকিয়া কোম্পানি আকারে আত্মপ্রকাশ করে। প্রথম দিকে নোকিয়া বিভিন্ন পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য পার্লস এনালাইজার জাতীয় ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী প্রস্তুত করত। ১৯৮৭ সালে নোকিয়া সর্বপ্রথম মোবিরা সিটিম্যান নামে এন এম টি নেটওয়ার্কের অধীনে মোবাইল ফোন বাজারজাত করে।
১৯৯৪ সালে তাদের ২১০০ সিরিজের ফোন... continue reading

৭৫৩