Travel Image

ভ্রমণে অবশ্যই এড়িয়ে চলবেন যেসব সাজপোশাক



দৈনন্দিন জীবনে কত রকমের পোশাক-আশাকই তো পরিধান করি আমরা। নিজেদেরকে আরো একটু ভালো দেখাতে চেষ্টার কমতি থাকে না কারো। কিন্তু ভ্রমণের সময় ব্যাপারটা কিন্তু কেবল ভালো দেখার ভেতরেই সীমাবদ্ধ থাকেনা। সেটার সাথে যোগ হয় আরো অনেক কিছু। আরমদায়ক, মানানসই আর শরীরের পক্ষে ঠিকঠাক- এমন অনেক কিছুই মাথায় রাখতে হয় আমাদেরকে ভ্রমণের কাপড় নির্বাচনের সময়। কারণ, এখন এতটা সমস্যাকর মনে না হলেও ভ্রমণের কোন একটা সময় গিয়ে সেগুলোই হয়তো ঝামেলায় ফেলে দেবে আপনাকে। আর তাই ভ্রমণের সময় বিরত থাকুন এই কয়েকটি পোশাক ও আনুষাঙ্গিক পরিধান করা থেকে।

১. আঁটসাঁট কাপড়
ভ্রমণের সময় আঁটসাঁট কাপড় না পরাটাই ভালো। কারণ, এতে করে কোনভাবেই আপনার ভ্রমণকে উপভোগ করতে পারবেন না আপনি। চলাচলের ক্ষেত্রে বাঁধা সৃষ্টি করবে এটা আপনার জন্যে। পাশাপাশি আঁটসাঁট কাপড় পরিধান করলে রক্তনালীতে রক্ত চলাচলে সমস্যা সৃষ্টি হয়। ডিপ ভেইন থ্রম্বোসিস বা রক্তনালীতে রক্ত জমাট বাঁধার মতন প্রাণসংহারী সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে এটি। আর তাই ভ্রমণের সময় ব্যবহার করুন আরামদায়ক, খানিকটা ঢিলেঢালা আর মানানসই কাপড়। এতে করে আপনার শরীর আর মন দুটোই ভালো থাকবে।

২. হাই হিল
ভ্রমণের ক্ষেত্রে পোশাকের পরেই যে জিনিসটির কথা চলে আসে সেটা হচ্ছে জুতো। জুতো তো আপনাকে অবশ্যই পড়তে হবে। কিন্তু সেটা কোন ধরনের জুতো হবে তা বাছাই করার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকুন। বর্তমানে হাই হিলের ফ্যাশন চলে আসায় অনেকেই ভ্রমণের সময়েও হাই হিল ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু সেটা পায়ের ব্যাথা, গোড়ালির সমস্যা থেকে শুরু করে আরো মারাত্মক সব ঝামেলা সৃষ্টি করতে পারে। আর তাই ব্যবহার করুন আরামদায়ক আর সহজে হাঁটতে পারার উপযোগী জুতো। এক্ষেত্রে কেডস বা বুট হতে পারে আপনার প্রথম পছন্দ।

৩. সুগন্ধি
সুগন্ধি বা পারফিউম ব্যবহারের ক্ষেত্রে সচেতন হোন। হতেই পারে আপনার কাছে সুগন্ধিটি যথেষ্ট ভালো মনে হচ্ছে। কিন্তু সেটা হয়তো আপনার পাশের মানুষটির কাছে একেবারেই অস্বস্তিকর লাগছে। হালকা পারফিউম চালানো যায়। কিন্তু কড়া পারফিউমের ব্যবহার ভ্রমণে একেবারেই না করার চেষ্টা করুন। আর সেটা যদি হয় আকাশ ভ্রমণ তাহলে পারফিউমের কথা মাথা থেকে বাদ দিয়ে পরিষ্কার একটি কাপড় পরিধান করুন কেবল।

৪. আপত্তিকর পোশাক
ভ্রমণে আপত্তিকর যে কোনো রকমের কাপড় পরা থেকে বিরত থাকুন। কেবল ভ্রমণে যেখানে যাচ্ছেন তাদের মূল্যবোধ আর রুচিকেই সম্মান জানাতে নয়, নিজেকে নিরাপত্তা দিতেও ভালোভাবে চিন্তা করে বাছাই করে নিন ভ্রমণের পোশাক। হতেই পারে আপনার পোশাকের ওপরে এমন কিছু লেখা আছে যেটা ঘুরতে যাওয়া স্থানটির রাজনৈতিক কিংবা সামাজিক পরিবেশকে উত্তপ্ত করে তুলতে পারে। যে কোনো অফিসের ব্র্যান্ড সম্বলিত পোশাক পরা থেকেও বিরত থাকুন। চেষ্টা করুন সাধারণ পোশাক পড়তে।

৫. অতিরিক্ত অলঙ্কার
ভ্রমণে হালকা বোধ করাটা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। আর তাই নিজেকে অতিরিক্ত অলঙ্কারে মোড়ানো থেকে বিরত থাকুন। এছাড়াও নিরাপদ ভ্রমণের জন্যেও এ পদ্ধতিটি অনেক বেশি কার্যকর। পাশাপাশি মেটাল ডিটেক্টরের হাত থেকে তাড়াতাড়ি ছাড়া পেতে আপনার সাদামাটা সাঁজগোজই সাহায্য করবে আপনাকে।