Technology Image

বাজারে আসছে ইমোজি কিবোর্ড



সহজে মনের ভাব প্রকাশে ইমোজির জুড়ি নেই। আর এরা সর্বদাই আমাদের নাগালের বাইরে। আপনার ফোনে এগুলো অন্তত একটি ট্যাপের নিচে লুকিয়ে থাকে। ম্যাক বা পিসিতে এগুলো যুক্ত করার ব্যাপারটি আরও বিভ্রান্তিকর।

তবে এবার সরাসরি কীবোর্ড থেকেই টাইপ করা যাবে ইমোজি। আর এই সুযোগ পাওয়া যাবে ইমোজিওয়ার্কস নামের কিবোর্ডটিতে। যেখানে একই বাটনে ডবল ইমোজি আছে। তবে এটিই ইমোজি কিবোর্ড তৈরির প্রথম উদ্যোগ নয়।

মূল ভাবনা খুবই সরল। আপনি যতক্ষণ পর্যন্ত না চাইবেন ইমোজিগুলো কাজ করুক ততক্ষণ এটি সাধারণ কিবোর্ড হিসেবেই কাজ করবে। ইমোজি মোডিফায়ার চাপ দেওয়ার পরই এটি ইমোজি পোস্টের জন্য কার্যকরী হয়ে উঠবে। কিবোর্ডটি আপনাকে সাম্প্রতিককালে চালু হওয়া স্কিনটোন টেঞ্জারের সুবিধাও প্রদান করবে। কিবোর্ডটিতে এ সুবিধাটি পেতে গেলে আপনাকে অবশ্যই একটি সফটওয়্যার ইনস্টল করা লাগবে। আপনি ইমোজির মডেলও পছন্দমতো পরিবর্তন করতে পারবেন। স্টান্ডার্ড সংস্করণে ৪৭টি, প্লাসে ৯৪, এবং প্রোতে ১২০টি ইমোজি আছে। শিফট বাটন প্রেস করার মাধ্যমে আপনি বিকল্প ইমোজি ব্যবহার করতে পারবেন।

কিবোর্ডটি ম্যাক, উইন্ডোজ এবং আইওএস অপারেটিং সিস্টেমে ব্লুটুথের মাধ্যমে চালানো যাবে। কিবোর্ডটি অ্যাপল ব্যবহারকারীদের কথা মাথায় রেখে তৈরি করা হয়েছে। এটি অ্যাপলের তারবিহীন কিবোর্ডের শেষ ঘন্টা বাজিয়ে দিতে পারে। আর এটি কোন রকম ব্যাখ্যা ছাড়াই অ্যাপলের ডিজাইনকৃত ইমোজিই ব্যবহার করছে। কিবোর্ডের এই আধুনিকতায় অ্যাপলের ভাবনা সম্বন্ধে আমরা নিশ্চিত নই। তবে আইকনগুলোর নকশা বিশেষভাবে অ্যাপলের জন্য করা হয়েছে আর কোম্পানিটি টাকাও খরচ করেছে। আর তাই এটি রক্ষার অধিকার কোম্পানিটির আছে।

ইমোজিওয়ার্কস কিবোর্ডটি এখন আগে থেকেই অর্ডার করা যাবে। কিবোর্ডটি ডিসেম্বরের ১ তারিখের আগে বাজারে আসবে না। যদিও কোম্পানিটি বাজারে ছাড়ার সম্ভাব্য তারিখ পরিবর্তন করতে পারে বলে জানিয়েছে। ৪৭টি ইমোজিসহ কিবোর্ডের দাম পড়বে ৮০ মার্কিন ডলার। আর ৯৪-ইমোজিযুক্ত কিবোর্ড প্লাসের দাম পড়বে ৯০ মার্কিন ডলার্, এবং ১২০ ইমোজি যুক্ত কিবোর্ড প্রো এর দাম পড়বে ১০০ মার্কিন ডলার।