Food Image

শীতের সেরা ভাপা পিঠা



শীত তো চলেই এসেছে। নিজ হাতে এমন মজার মজার পিঠা তৈরি করে পরিবার ও আত্মীয়স্বজনদের নিয়ে খাওয়ার মজাই আলাদা। আর ভাপা পিঠাকে এক কথায় শীতের পিঠার রাজাই বলা যায় কি বলুন! চলুন তবে শিখে নিই, কীভাবে ভাপা পিঠা তৈরি করতে হয়।

উপকরণঃ
চালের গুড়া ৬কাপ
নারকেল কোড়ানো ২টা
খেজুরগুড় – ২ কাপ
লবন – ২ চা চামচ
পানি – পরিমান মত

প্রয়োজনীয় সরঞ্জামঃ
এছাড়া আরো লাগবে ভাপা পিঠা বানাবার জন্য পাতিল ও ভালভাবে এটে বসে এমন ঢাকনা।
পাতলা কাপড় এর টুকরা।
পিঠার ছাচ বা পছন্দ মত সাইজের বাটি

প্রণালী –
চালের গুড়ায় লবন ও পানি ছিটিয়ে মেখে নিন। ঝুরঝুরে মাখা হবে হাতে চাপ দিলে মুঠি হবে আবার ভেঙে ফেললে ঝুরঝুরে হবে এমন আন্দাজ মত পানি দিবেন। এবার চালের গুড়া টা মোটা চালুনি দিয়ে চেলে নিন।


নারকেল কোড়া ও খেজুরগুড় কুচিয়ে নিন।

পিঠার পাতিলের অর্ধেক এর বেশি পানি দিয়ে চুলায় দিন।পানি ফুটে উঠলে পিঠা বানান।

বাটিতে প্রথমে চালের গুড়া দিন। এর উপর নারকেল আর গুড় দিন। আবার চালের গুড়া দিয়ে ঢেকে দিন।

পাতলা কাপড় দিয়ে পেঁচিয়ে পিঠার পাতিলে উপুড় করে দিয়ে বাটি সরিয়ে নিন। ঢাকনা দিয়ে দিন।

সাইজ বুঝে সময় লাগে ভাপে পিঠা সিদ্ধ হতে।
ছোট পিঠা হলে ২-৩ মিঃ
বড় পিঠা হলে ৪- ৫ মিঃ
সাবধানে ঢাক না খুলে পাতলা কাপড় সহ পিঠা তুলে নিন।
গরম গরম স্বাদ নিন ধোয়া উঠা সুগন্ধি ভাপা পিঠার।

পিঠা বেশি স্পেশাল করতে চাইলে চালের গুড়া পানির বদলে দুধ দিয়ে মাখাতে পারেন। গুড় নারকেল এর সাথে দুধের ক্ষিরসা দিতে পারেন। চেরী কিস্মিস দিয়ে পিঠার উপর ডিজাইন ও করতে পারেন ইচ্ছামত।