Sports Image

ইউনিস খানের যত রেকর্ড



ইউনিস খান হল পাকিস্তানের টেস্টে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। তবে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হওয়া ছাড়াও আরো কিছু রেকর্ড আছে ইউনিস খানের যেগুলো প্রমান করে ইউনিস খানের অবদান পাকিস্তানের জন্য কতটা। চলুন একবার দেখে আসি রেকর্ডগুলো।

সর্বোচ্চ গড়ঃ কমপক্ষে ২০ ইনিংস খেলেছে এমন পাকিস্তানিদের মধ্যে ইউনিসের গড়ই সবচেয়ে বেশি। ইউনিস খানের গড় যেখানে ৫৩.৯৭ সেখানে জাভেদ মিয়াদাদের ৫২.৫৭ এবং মোহাম্মদ ইউসুফের ৫২.২৯। দেশের হয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের মধ্যে শুধু সাঙ্গাকারা আর জ্যাক ক্যালিসের গড়ই এর থেকে বেশি।

সর্বোচ্চ সেঞ্চুরিঃ পাকিস্তানের হয়ে টেস্টে সর্বোচ্চ ৩০টি সেঞ্চুরি ইউনিস খানের। ইনজামাম উল হক ২৫ টি সেঞ্চুরি নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন।

সর্বোচ্চ ক্যাচঃ পাকিস্তানের হয়ে টেস্টে সর্বোচ্চ ১১০টি ক্যাচ নিয়েছেন ইউনিস খান। দ্বিতীয়তে মিয়াদাদের ৯৪ ক্যাচ।

সর্বোচ্চ সেঞ্চুরি পার্টনারশিপঃ পাকিস্তানের ৬১ টি সেঞ্চুরি পার্টনারশিপে ক্রিজের একপ্রান্তে ছিলেন ইউনিস খান যেখানে মিয়াদাদ ছিলেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫০টিতে।

দেশের জয়ে গড় রানঃ পাকিস্তান জয় পেয়েছে এমন ম্যাচগুলোর মধ্যে ইউনিস খান রান করেছেন ৭৬.৭০ গড়ে। শুধু ইনজামাম উল হক ৭৮.১৬ গড়ে রান করে তার উপরে রয়েছেন। এছাড়া তার ১৬টি সেঞ্চুরিতে পাকিস্তান জয়ের হাসি হেসেছে যেখানে ইনজামামের ১৭টি সেঞ্চুরি পাকিস্তানকে জয় উপহার দিয়েছে।

এছাড়া টেস্টের চতুর্থ ইনিংসে আছে তার ৫টি সেঞ্চুরি যেটি আর কারো নেই। টেস্টের চার ইনিংসেই ৪৫ এর উপর গড় প্রমাণ করে কিভাবে তিনি যে কোন ইনিংসেই সমান দক্ষ যেটি বেশিরভাগ গ্রেট ক্রিকেটারদের নেই। আর ৩৫ বছর বয়সের হওয়ার পরে তার রান সংগ্রহ এবং গড়েও যে তিনি রেকর্ড করবেন তার আলামত ও এখন পাওয়া যাচ্ছে।

সব মিলিয়ে পাকিস্তান ক্রিকেটে জাভেদ মিয়াদাদ এবং ইনজামাম যেমন সবসময় গ্রেট হিসেবে পরিচিত হয়ে ছিলেন ইউনিস সেখানে দীর্ঘ সময় প্রথমে ইনজামাম পরে ইউসুফের ছায়ায় থাকলেও চুপেচুপে নিজের কাজটি যে ঠিকই করে গেছেন তারই প্রমাণ এই পরিসংখ্যানগুলো। জানিয়েছেন ১০০০০ রানের মাইলফলক অতিক্রম করতে চান। আর তাহলে যে পাকিস্তান ক্রিকেটে তিনি গ্রেট হিসেবেই সমাদৃত হবেন তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।