Beauty Image

বেকিং সোডায় রূপচর্চা



বেকিংসোডা যদিও রান্নাঘরের একটি নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী কিন্তু মুখের এবং চুলের যত্নে এই উপাদানটি বেশ কার্যকরী ভূমিকা রাখে। চলুন জেনে নেই যেভাবে রূপচর্চায় বেকিং সোডা কাজ করে-

*আমরা যখন ঘেমে যাই তখন আমাদের শরীরে একধরনের তিক্ত গন্ধ হয়ে যায় । বেকিংসোডা এই তিক্ত ঘামের গন্ধ দূর করতে সহায়তা করে। এর জন্যে এটি অল্পকিছু পানির মাঝে গুলিয়ে ডিউডোরেন্ট হিসেবে বাহুর নিচে ব্যবহার করতে পারেন। এতে ভালো ফলাফল পাবেন।

*চুলের পরিচর্যায় বেকিং সোডার ব্যবহার চুলকে করে তোলে প্রাণবন্ত আর উজ্জ্বল। এর জন্য প্রতিদিনের শ্যাম্পুর সাথে কিছুটা বেকিং সোডা মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

*শীতে বা অন্যান্য সময়ে আবহাওয়ার কারণে আমাদের চামড়া অনেক সময় মরে যায়। এ সময় ত্বক অনেক বেশি রুক্ষ আর অমসৃণ হয়ে পড়ে। এই রুক্ষ ত্বকের হাত থেকে রক্ষা পেতে আপনি বেকিং সোডার একটি প্যাক ব্যবহার করতে পারেন। এর জন্য গরম পানি দিয়ে বেকিং সোডা গুলিয়ে মুখে মাখুন এবং ১০-১৫ মিনিট পরে তা ধুয়ে ফেলুন। এতে করে আপনার ত্বকের মরা চামড়া তুলে দিয়ে নতুন চামড়া তৈরিতে সহায়তা করবে পাশাপাশি ত্বকের উজ্জ্বলতাও বৃদ্ধি করবে।

*এমন অনেকেই আছেন যাদের দাঁত কিছুটা হলদেটে। ভাবলেই অবাক হবেন যে এই বেকিংসোডা এমন হলদেটে দাঁত সাদা ঝকঝকে করে তোলে নিমেষেই। এর জন্য যা করবেন তা হল এক টেবিল চামচ বেকিং সোডা এবং ৫ ফোঁটা হাইড্রোজেন পারোক্সাইড মিশিয়ে দাঁত ব্রাশ করার আগে ৫ মিনিট দাঁতে লাগিয়ে রাখুন।এরপরে ব্রাশ করে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে ২ দিন ব্যবহারে আপনার দাঁত হয়ে উঠবে উজ্জ্বল ঝকঝকে আর প্রাণোচ্ছ্বল।

*নিয়মিত বেকিংসোডার একটি প্যাক মুখে ব্যবহারে মুখের যেসব অবাঞ্চিত দাগ রয়েছে তা দূর হয়ে যায় এবং ত্বকে লাবণ্যতা ফুটে ওঠে।