Lifestyle Image

গর্ভধারণ সম্পর্কে যে বিস্ময়কর তথ্যগুলো আপনি জানেন না



গর্ভধারণ নিঃসন্দেহে নারীর জীবনের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ সময়। একটি একজন নারী হিসেবে তখনই পূর্ণতা পান যখন তিনি মা হওয়ার অনুভূতি পান। গর্ভধারণের পুরোটা সময় মা ও সন্তানের অবিচ্ছেদ্য সম্পর্ক সত্যিই অসাধারণ অনুভূতির সৃষ্টি করে। কিন্তু এই গর্ভধারণ সম্পর্কে এমন কিছু বিস্ময়কর তথ্য রয়েছে যা অনেকেই জানেন না। কিন্তু এই তথ্যগুলো সকলেরই বিশেষ করে নারীদের জেনে রাখা জরুরী। তাহলে আজকে জেনে নিন এমনই কিছু বিস্ময়কর তথ্য।

১) গর্ভধারণের সময় নারীদের ইউটেরাস প্রায় ৫০০ গুন পর্যন্ত বড় হতে পারে। ব্যাপারটি খুবই বিস্ময়কর। উদাহরণ স্বরূপ বলা যায় একটি ছোট আপেল থেকে প্রায় বড় একটি তরমুজের সমান স্ট্রেচ হতে পারে নারীদের ইউটেরাস।

২) গর্ভধারণের সময় নারীদের ঘ্রাণ ক্ষমতা সাধারণের তুলনায় কয়েকগুণ বেড়ে যায়। শুধু তাই নয় এই সময়ে নারীদের মুখের স্বাদ গ্রহনের ব্যাপারটিও কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেয়ে যায়। আর একারণেই অল্পতেই বমিভাব এবং স্বাদের তারতম্য বেশী বঝা যায় গর্ভধারণের সময়।

৩) অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি যে গর্ভে থাকা সন্তান মা যে খাবার খান তার স্বাদ বুঝতে পারে। আর একারণেই মায়েদের খাবারের প্রতি বিশেষ নজর দিতে বলে থাকেন গাইনোকলজিস্টগন।

৪) গর্ভধারণের সময় পায়ের আকার বড় হতে থাকে। কি? খুব অবাক লাগছে? অবাক লাগলেও এটি সত্যি। গর্ভবতী নারীদের পায়ের পাতার আকার বড় হয়ে যায় সাধারণের তুলনায়।

৫) আপনি যদি গড়পড়তা মানুষের তুলনায় লম্বা এবং একটু ভারী স্বাস্থ্যের অধিকারী হয়ে থাকেন তাহলে আপনার টুইনস বা একসাথে কয়েকটি বাচ্চা জন্ম দেয়ার সম্ভাবনা অন্যান্যদের তুলনায় অনেক বেশী থাকে।

৬) গর্ভধারণের সময় নারীর কোনো অঙ্গ যদি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যায় তাহলে ইউটেরাসে থাকা সন্তান কোষ পাঠিয়ে অঙ্গের ক্ষতিপূরণের চেষ্টা করে। সত্যিই অবাক করা তথ্য! তাই নয় কি?

৭) আমরা জানি গড়ে ১০ মাস ১০ দিন গর্ভে সন্তান থাকে। অনেকের আগেও হয়ে যায়। কিন্তু আপনি জানেন কি গর্ভধারণের সবচাইতে লম্বা সময় কতদিনের ছিল? আজ পর্যন্ত বিশ্বে ৩৭৫ দিন অর্থাৎ ১২ মাস ১০ দিন পর্যন্ত গর্ভে সন্তান ধারণ করার রেকর্ড রয়েছে। এবং শিশুটির ওজন ছিল ৭ পাউন্ডেরও কম।