লোডিং ...
Site maintenance is running; thus you cannot login or sign up! We'll be back soon.

জ্বর-সর্দি-কাশি তে রসুনের উপকারিতা Nokkhotro Desk

feature-image

হুট করেই ঠাণ্ডা পড়লে জ্বর-সর্দি-কাশি হওয়া খুবই স্বাভাবিক। বিশেষ করে বাচ্চাদের ক্ষেত্রে তো আরও বেশি। ছোট বাচ্চাদের খুব বেশি ওষুধ খাওয়ানো যায় না। তারা খেতে চায় না আর খাওয়ানো উচিতও নয়।

সবার ঘরেই আছে এমন জিনিস যা মুক্তি দিবে সর্দি-কাশি থেকে। সেই জিনিটি বা উপাদান হলো রসুন। জেনে নিন রসুন ব্যবহার করে ঝটপট সর্দি-কাশি থেকে দ্রুত মুক্তি পাওয়া যায়। কেবল ছোটদের নয়, এটা কাজে আসবে বড়দেরও।

১। চটজলদি সর্দি, কাশি ও জ্বর কমাতে রসুন খাওয়ার কোন বিকল্প নেই। তবে কাঁচা নয়, অবশ্যই রান্না করে। রসুনের অ্যান্টিসেপটিক গুণাবলী এসব অসুখের সাথে লড়াই করতে দারুণ সক্ষম। শরীর থেকে দূষিত টক্সিক উপাদান অপসারন করতে ও ঝটপট জ্বর কমাতেও রসুনের জুড়ি মেলা ভার।

২। সর্দি-কাশি বা জ্বরে খাবারে রসুনের ব্যবহার বাড়িয়ে দিন। বড়রা ডালে বা তরকারির সঙ্গে আস্ত রসুন দিয়েই খেয়ে ফেলতে পারেন। ছোটদের তৈরি করে দিতে পারেন গারলিক স্যুপ। যদি তারা গারলিক স্যুপ খেতে না চায়, তাহলে চিকেন স্যুপেই ৬/৭ কোয়া রসুন জ্বাল দিন মিনিট দশেক। তারপর রসুন তুলে ফেলে খেতে দিন।

৩। চটজলদি সর্দি-কাশি ও জ্বর কমাতে রসুনের তেল খুবই উপকারী। সাধারণ সয়াবিন বা অলিভ অয়েল নিন, এতে কয়েক টুকরো রসুন হালকা লাল হয়া পর্যন্ত ভাজুন। ব্যস, তৈরি আপনার গারলিক অয়েল। চাইলে দোকান থেকেও কিনতে পারেন। এই তেল খাবারে, স্যুপে, রান্নায় ব্যবহার করুন। হালকা গরম করে ছোট বাচ্চাদের বুকে মালিশ করে দিতে পারেন। শীতের অসুখ দ্রুত সারবে।
A A