ব্রণ থেকে মুক্তির উপায় Nokkhotro Desk

ব্রণ থেকে মুক্তির উপায়

সুন্দর ও লাবণ্যময়ী ত্বক কে চায় না বলুন। মানুষ সুন্দররে পূজার। বিশেষ করে সব ময়রেো চায় তার মুখরে ত্বক যনে থাকে লাবণ্যময়ী, ব্রণ, কালো দাগ মুক্ত। এ জন্য রুর্পচচার কমতি করে না কউ। কউে কউে আবার চকচকে ত্বকরে জন্য লজোর অপারশনে করন। তবে আপনারা চাইলইে আপনাদরে মুখরে ত্বক তকতকে ঝকঝকে রাখতে পারনে আর হতে পারনে র্আকষণীয় ত্বকরে অধকারী।

নির্দিষ্ট একটা সময়ে কমবেশ সবারই ব্রণ হয়ে থাকে। তবে কিছু কিছু ত্বক বয়সের ধার ধারে নাযেকোন সময়ে ব্রণ উঠে যায়। সাধারণত ব্রণ একটি ত্বকজনিত রোগ।বিশেষ করে মুখের ত্বক খুব সেনসেটিভ। ব্রণ হওয়ার অনেক কারণ আছে যেমন: বয়সন্ধিকাল, নোংরা থাকা, মুখ পরিস্কার না রাখা তৈলাক্ত ত্বক ইত্যাদি।

ব্রণ থেকে মুক্তির সুনির্দিষ্ট কোন চিকিৎসা নেই তবে কিছু নিয়ম অনুসরণ করলে ব্রণ থেকে অনেকটা মুক্তি পাওয়া যায়।সম্প্রতি নিউইয়র্কের মাউন্ট সিনাই হসপিটালের কসমেটিক ও ক্লিনিক্যাল রিচার্স বিভাগের হেড জশুয়া জেইখনার ব্রণ নিয়ে ৪ টি অসাধারণ তথ্য দিয়েছেন। যা পালন করলে এই সমস্যার অনেকটাই সমাধান হবে আশা কররেছেন তিনি।

১. ঘুমানোর স্থান পরিষ্কার: জশুয়া জেইখনার বলেছেন আপনি যে বিছানায় ঘুমান তার চাদর, বালিশের কভার, কম্বল বা গায়ে দেয়ার চাদর নিয়মিত পরিষ্কার রাখা। সপ্তাহে অন্তত একদিন এইগুলি ডিটারজেন্ট পাউডার দিয়ে ধুয়ে দেয়া।

২. চুলের হেয়ার কেয়ার প্রডাক্ট ব্যবহারের সময়ে সচেতন থাকতে হবে। বেশিরভাগ সময়ে দেখা যায় স্প্রে কারার সময়ে তা গালে কপালে লাগে। যা ত্বকের জন্য অনেক ক্ষতিকর।

৩. কম্পিউটার বা ব্যবহারি সরঞ্জামাদি পরিষ্কার রাখা। রিচার্স থেকে জানা যায় কি-বোর্ড , মনিটরের ময়লা, আসবাব পত্র বা ব্যবহারিক
সরঞ্জামাদির ময়লা ত্বকে লেগে ব্রণের সৃষ্টি করে।

৪. জশুয়া জেইখনার শেষ তথ্যটি আরও ইন্টারেস্টিং সেলফোনের কভার নিয়মিত ওয়েট টিস্যু দিয়ে পরিস্কার করা। কেননা সেলফোন কথা বলার সময় মুখের ত্বকের সংস্পর্শে আসে এতে করে ময়লা মুখে লেগে যায় ফলে ব্রণের সৃষ্টি হয়।

এছাড়াও ব্রণ থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিত পানি, ভিটামিন বি+ ক্যাপসুল, রসালো ফল, শাক-সবজি খেতে হভে । যতটা সম্ভব পরিষ্কার পরিছন্ন থাকতে হবে। ফ্যাট যুক্ত খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলাই ভালো।
A A