সানস্ক্রিন এর ব্যবহার Nokkhotro Desk

feature-image

*সঠিক সানস্ক্রিন
• প্রতিদিনের ব্যবহারের জন্য এসপিএফ ৩০ দেখে সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উচিত। কিন্তু যদি খেলাধুলা, পাহাড়ে অথবা সমুদ্রের পাড়ে যেতে হয় তাহলে অবশ্যই এসপিএফ ৫০ এর উপর সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উচিত।
• তৈলাক্ত ত্বক ও শুষ্ক ত্বকের জন্য পৃথক পৃথক সানস্ক্রিন পাওয়া যায়। নিজের ত্বকের ধরণ বুঝে সানস্ক্রিন লাগান।
• যাদের ত্বকে আলার্জি আছে তারা অ্যালকোহল ও কৃত্রিম সুগন্ধিযুক্ত সানস্ক্রিন এড়িয়ে চলুন।
• যাদের ত্বকে ব্রণের উপদ্রব বেশি তারা ওয়েল বেসড সানস্ক্রিন না কিনে ওয়াটার বেজড সানস্ক্রিন কিনুন।
• সব সময় ভালো ব্র্যান্ডের সানস্ক্রিন কিনুন। কম দামে খারাপ ব্র্যান্ডের সানস্ক্রিন কিনে টাকা গুলোকে জলে ফেলবেন না।
• সানস্ক্রিন কেনার আগে মেয়াদ দেখে কিনুন।

*ব্যবহারের নিয়ম
• প্রথমে মুখ ভালো করে ফেসওয়াস দিয়ে ধুয়ে মুছে নিন।
• এবার পুরো মুখে সানস্ক্রিন লাগিয়ে নিন।
• শুকিয়ে গেলে নাকের উপর, গালের উচু অংশে ও কপালে ভ্রু এর উপরে আরেক স্তর সানস্ক্রিন লাগিয়ে নিন। ত্বকের এসব স্থান রোদে বেশি পুড়ে যায়।
• সানস্ক্রিন হাতে ও পায়ের খোলা অংশেও লাগিয়ে নিন।
• সানস্ক্রিন লাগিয়ে এর উপর অনায়েসেই মেকআপ করতে পারবেন।
• সানস্ক্রিন লাগানোর অন্তত ৩ মিনিট পর বাইরে বের হওয়া উচিত। ৩০ মিনিটের আগে সূর্যের আলোতে যাওয়া উচিত নয়।
• প্রতি ২ ঘন্টা পর পর মুখ ধুয়ে আবার নতুন করে সানস্ক্রিন লাগিয়ে নিন।
• মেঘলা দিনেও সানস্ক্রিন লাগাতে হয়। কারণ সূর্যের ক্ষতিকর অতি বেগুনি রশ্মি মেঘলা দিনেও ত্বকের ক্ষতি করে।
A A