Lifestyle Image

সম্পর্কে বিশ্বাস




* কোনো মিথ্যা কথা, ভুল বোঝাবুঝির জন্য আপনার প্রেমিকের যদি বিশ্বাস ভাঙে, তাহলে প্রথমে নিজেকে প্রশ্ন করুন কেন সেই পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছিল৷ তারপর বদলান নিজের মানসিকতা, স্বভাব। একদিনে হবে না কিন্তু ক্রমশ প্রেমিককে বোঝাতে হবে, আপনি আর আগের মতো নেই। আপনার মুখের ভাব আর মনের কথায় যেন কোনো অসামঞ্জস্য ফুটে না ওঠে৷পরিবর্তনগুলো প্রতিদিন চালিয়ে যেতে হবে।

* দোষ যদি আপনার হয় মানে আপনার কাজ, মানসিকতার জন্য অনেকেই আপনার ওপর থেকে বিশ্বাস হারিয়েছে, তাহলে আপনাকে থাকতে হবে শান্ত ও সংযত৷ যদিও এটা খুব একটা সহজ নয়৷উল্টোদিক থেকে এটাও ভাবুন আপনার কৃতকর্মের জন্য রাতারাতি কারওর পক্ষেই আপনাকে ক্ষমা করে বিশ্বাস ফিরিয়ে আনা সম্ভব নয়৷তাই শান্ত রেখে অযথা উত্তেজিত হওয়া, স্ক্যান্ডাল ছড়ানোর মতো ব্যাপারগুলো বন্ধ করুন।

* আপনার ওপর থেকে সঙ্গী বা সঙ্গীনীর বিশ্বাস হারিয়ে গেলে, তা ফিরিয়ে আনতে কয়েক সপ্তাহ বা মাসখানেক সময় দিন৷দুদিন ভালো ব্যবহার করে যদি বার বার তাকে জিজ্ঞেস করতে থাকেন, আপনি কতটা পাল্টেছেন, তাহলে পরিস্থিতি আরও বিগড়ে যাবে।

* ছেলে হোক বা মেয়ে দোষ যে পক্ষেরই হোক, আই অ্যাম স্যরি বলার মধ্যে কিছু দোষ নেই। কারণ আপনার সঙ্গীটিও দেখতে চান, আপনি কতটা আন্তরিক পুরো ব্যাপারটা সামলে অন্যের বিশ্বাসভাজন হতে চান।

* আপনাদের দুজনের মধ্যে ইমোশনাল টাচআপের কাজ করতে পারে স্বচ্ছতা। বিশেষ করে ঝগড়ার সময় কোনও বেঁফাশ কথা মুখ দিয়ে বের করেও কথা ঘুরিয়ে বা মিথ্যে কথা বলে তা চাপা দেওয়ার চেষ্টা করবেন না। খোলামেলা আলোচনা করুন৷ আপনার ওপর সঙ্গীর বিশ্বাস থাকবে।

* নিজের বিশেষ কিছু সমস্যাকে যেগুলো একান্তই ব্যক্তিগত বা আপনাদের দুজনের সেগুলোকে সোশ্যাল মিডিয়ায় অন্য কারওর সঙ্গে আলোচনা করবেন না। সঙ্গীর বিশ্বাস আর মনোবল দুই-ই এতে নষ্ট হয়ে যাবে৷ আর মনে রাখবেন সম্পর্কে স্বচ্ছতা রাখতে হবে বলেই, সব সময় অপরজনকে সমস্যার কথা বলে গেলে সে বিরক্ত হবেই।

* কোনো ভুল বোঝাবুঝি, মিথ্যে আশ্বাস বা অন্য কোনও কারণে একান্তই যদি আপনাদের সম্পর্কটা আর জোড়া না লাগে, তাবে সেটাই মেনে নিন। অযথা অন্যজনের নামে কুৎসা রটাবেন না৷ বরং এবারের ভুলগুলো থেকে শিক্ষা নিন, কীভাবে ভবিষ্যতে সততা আর শ্রদ্ধার ভিত্তিতে তৈরি হতে পারে সম্পর্ক।

...বিশ্বাস একবার ভেঙে গেলে ফিরিয়ে আনা সত্যিই কষ্টকর, তবে একেবারে অসম্ভব নয় একটু চেষ্টা করলে আপনিও পারবেন।