Entertainment Image

বলিউড সুপারহিরোর পারিশ্রমিক




হৃতিক রোশন বিশেষত্ব: বলিউডের প্রথম সুপারহিরো। দর্শকদের নজর অসামান্য নাচের প্রতিভায়। কাজের ধরন: অনেকেই হয়তো জানেন না, বছরে মাত্র একটা ছবি করে হূত্বিক। ফলে দর্শকদের একটা চাহিদা থেকে যায় তাঁকে দেখার। অভিনয় থেকে নাচ কিংবা অ্যাকশন, কোনও ক্ষেত্রেই হূত্বিকের কমতি নেই, ফলে অকের পর এক সুপারহিট। পারিশ্রমিক কত: প্রতি ছবিতে ১৫ থেকে ২৫ কোটি টাকা নেন তিনি। পাশাপাশি আছে এনডোরসমেন্ট ফি। সেটার অঙ্কটাও দেড় কোটি টাকার কাছাকাছি। ‘কৃষ থ্রি’-এর জন্য ২৫ কোটি পেয়েছেন, এমনটাই শোনা যাচ্ছে বলিউড পাড়ায়।

অক্ষয় কুমার বিশেষত্ব: মূলত অ্যাকশন হিরো। মার্শাল আর্টে বলিউডে তাঁর জুড়ি মেলা ভার। পাশাপাশি অ্যাকশন কমেডি ঘারাণার ছবিতেও তিনি খুব সফল। বলিউডে তিনি পরিচিত ‘খিলাড়ি কুমার’ নামে। কাজের ধরন: ইন্ডাস্ট্রিতে তিনিই একমাত্র নায়ক, যিনি নিজের স্টান্ট নিজেই করেন। ফলে তাঁর পারিশ্রমিক যে একসময় বেড়েছিল তাতে আর আশ্চর্য কী! পারিশ্রমিক কত: প্রতি ছবিতে দর ১৮ থেকে ২২ কোটি টাকার মধ্যে ঘোরাফেরা করে তার পারিশ্রমিক। আর বিজ্ঞাপনের কাজ করলে ১.৫ থেকে ২ কোটি টাকা। ‘বস’ ছবির জন্য শোনা যাচ্ছে তিনি ১৪ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা পেয়েছেন।

শাহরুখ খান বিশেষত্ব: চলতি বছরে টাকার অঙ্কে তিনি আছেন তিন নম্বরে। যে কোনও রকম চরিত্রেই তিনি অভিনয় করতে পারেন। কাজের ধরন: ছবিতে শাহরুখ খান থাকা মানে, পয়সা উশুল হওয়ার অম্যতম গ্যারান্টি। তাঁর ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’ সুপারহিট। কারণ কমেডি থেকে রোমান্স, সবেতেই শাহরুখ স্বচ্ছন্দ। পারিশ্রমিক কত: ছবি পিছু ৩৫ থেকে ৪৫ কোটি টাকা পারিশ্রমিক নেন শাহরুখ খান। পাশাপাশি ছবির মুনাফায় একটা অংশীদারিত্বও তাঁর থাকে। বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে ২ থেকে ৩ কোটি টাকা নিয়ে থাকেন শাহরুখ খান।

আমির খান বিশেষত্ব: অনস্ক্রিন পারফরমেন্স দুর্দান্ত। ইন্ডাস্ট্রির কাছেও খুবই জনপ্রিয়। তিনি এমন একজন নায়ক যাঁকে দর্শক থেকে ফিল্ম সমালোচক সকলেই প্রশংসা করতে বাধ্য হন। কাজের ধরন: ইন্ডাস্ট্রির কাছে তাঁর নাম ‘মিস্টার পারফেকশনিস্ট’। নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে চিত্রনাট্য থেকে অভিনয় কিংবা ছবির প্রচার, সবটাই থাকে আমিরের নজরদারির মধ্যে। পারিশ্রমিক কত: চলতি বছরে আমিরের দর ঘোরাফেরা করছে ৪০ থেকে ৫০ কোটি টাকার মধ্যে। শোনা যাচ্ছে, ‘ধুম থ্রি’-এর জন্য তাঁর পারিশ্রমিক ৪৫ কোটি টাকা।

সলমান খান বিশেষত্ব: বলিউডের ভাইজান। শুরু করেছিলেন খুব সাধারণভাবে। কিন্ত্ত প্রতিভার জেরে বলিউডের সেরার জায়গাটা তিনি ছিনিয়ে নিয়েছেন। তাঁব ফিল্ম টিনসেল টাউনের প্রচুর রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। কাজের ধরন: সালমন সিঁড়ি ভাঙা অঙ্কে বিশ্বাসী। তাঁর ছবি বক্স অফিসে সাড়া জাগানোর পর, পারিশ্রমিকও বেড়েছে পাল্লা দিয়ে। কিন্তু, তার আগে নিজেকে সুপারহিরো হিসাবে দেখিয়ে ‘দাম’ বাড়নোর চেষ্টা চালাননি কোনও দিন। কেরিয়ারে রোমান্স থেকে অ্যাকশন কিংবা কমেডি, কোনও ধরনের ছবিই বাদ দেননি তিনি।

পারিশ্রমিক কত: ‘দাবাং’, ‘এক থা টাইগার’ লক্ষ্মীলাভের নিরিখে নতুন রেকর্ড করেছে বলিউডে। আর তারপর থেকেই ছবি পিছু সালমন খানের দর ৫০ কোটি টাকা। শোনা যাচ্ছে সুভাষ ঘাইয়ের যে নতুন ছবিতে সালমন সই করেছেন, তাতে তাঁর পারিশ্রমিক ১০০ কোটি টাকা। টাকার অঙ্কে ভাইজানই আপাতত এক নম্বর।