Beauty Image

ত্বকের সতেজতায় বডি লোশন



জেনে নিন বডি লোশনের কার্যকরী কিছু ব্যবহার ও উপকারিতা-

*যে কোনো বডি লোশন কেনার আগে লক্ষ্য করে নিন যে এটি আপনার ত্বকের সঙ্গে মানানসই কিনা।
*গোসলের পরই বডি লোশন লাগিয়ে নিন, এতে করে ত্বক দ্রুত ও বেশি সময়ের জন্য মসৃণ থাকবে।
*রাতে ঘুমানোর আগে হাতে পায়ে বডি লোশন লাগিয়ে নিন, এতে করে শীতেও হাত ও পা গরম থাকবে।
*বডি লোশন ভালো করে ত্বকে মেশাবেন যাতে করে কাপড়ে লেগে না যায়।
*পুরনো বডি লোশন ব্যবহার করবেন না, পুরনো বডি লোশন ত্বকের ক্ষতি করতে পারে।
*বডি লোশন মুখে লাগাবেন না। কারণ মুখের ত্বক অনেক সংবেদনশীল হয়ে থাকে।
*ত্বক যদি অতিরিক্ত শুষ্ক থাকে তবে বডি লোশনের সঙ্গে ভ্যাসলিন মিশিয়ে মাখতে পারেন।
*মাঝে মাঝে না বরঞ্চ বডি লোশনের উপকার পেতে ধারাবাহিক ব্যবহার করা উচিত।

শুধু ত্বকের শুষ্কতা দূর করার জন্যই যে বডি লোশন ব্যবহার করা হয় তা কিন্তু নয়, শুষ্কতা দূর করা ছাড়াও বডি লোশনের বেশ কিছু উপকারিতা আছে-

*ত্বকের তারল্য ধরে রাখতে: বডি লোশন শরীরের উপরি ভাগে পাতলা আবরণ তৈরি করে যাতে শরীরের ভেতরের পানি তাড়াতাড়ি শুকিয়ে না যায়। যা শুষ্ক দিনগুলোর এবং শুষ্ক ত্বকের জন্য অত্যন্ত জরুরি। তাই শীত ছাড়াও ব্যবহার করতে পারেন বডি লোশন।
*শুষ্কতার কারণে ত্বকে অনেক অবাঞ্ছিত দাগ তৈরি হয়, অনেকের ফাটা দাগগুলো আরো স্পষ্ট হয়ে যায়। এ বিরক্তিকর দাগগুলো থেকে মুক্তি পেতে ব্যবহার করুন ভালো ব্র্যান্ডের বডি লোশন।
*বডি লোশনের সুগন্ধ এবং পূর্ণ ম্যাসাজ আপনার শরীরের ক্লান্তি দূর করতে সহায়ক। বডি লোশনের সুগন্ধ আপনাকে রাখবে প্রফুল্য। বডি লোশনের সুগন্ধ শীতে আপনাকে আরো ফ্রেশ অনুভূতি দেবে।
*শীতে কালো দেখানোর সমস্যায় কম বেশি সবাই পড়েছেন। বডি লোশন এক্ষেত্রে সহজ সমাধান দিতে পারে। কিছু কসমেটিক লোশন আছে, যা আপনাকে শীতেও দেবে উজ্জ্বল আভা।