শীতের রুক্ষতাকে রুখে দিতে একটি প্যাক Nokkhotro Desk

feature-image

গত কয়েকদিন ধরে হুট করেই শীত যেন বেশ জাঁকিয়ে বসেছে। শীতে ত্বক আর চুলের রুক্ষতা যেন সবার জৌলুসেই একটু নিষ্প্রাণতার ছাপ এনে দেয়। আবার ঠাণ্ডার কারনে অনেকে প্যাক বানিয়ে লাগাতেও চান না। আর মৌসুমটাই এমন। একটু আলসেমি লাগে। তাই আলাদা করে ত্বকের জন্য আর চুলের জন্য প্যাক বানিয়ে লাগানো শীতকালে একটু ঝামেলাই মনে হয় সকলের কাছে। তাই শীতের রুক্ষতা এড়ানোর জন্য চটজলদি বানানো যায় এমন একটি প্যাকের কথা বলব আজকে। এটা বানানো যেমন সহজ, তেমনি এটা ত্বক আর চুল দুইয়ের জন্যই দারুন কার্যকর। সবচেয়ে বড় সুবিধা হল, এই প্যাক নরমাল, কম্বিনেশন, ড্রাই, অয়েলি সব রকম স্কিনের অধিকারীরা ব্যাবহার করতে পারেন। চুলের ক্ষেত্রেও তাই।

প্যাকটি তৈরির জন্যঃ
একটি অ্যাভোকাডো
১/২ কাপ দুধ ব্যাস!
এই দুটি মাত্র উপকরণ।

কিভাবে তৈরি করবেনঃ
অ্যাভোকাডোর খোসা ছিলে নিন। মাঝখান থেকে টুকরো করে ভেতরের বীজ ফেলে দিন। এরপর ছোট ছোট টুকরো করে নিন। ব্লেন্ডারে এই টুকরো অ্যাভোকাডো আর আধা কাপ দুধ ঢেলে ব্লেন্ড করে নিন, যতক্ষণ পর্যন্ত একটা ক্রিমি পেস্ট তৈরি হয়।

কিভাবে ব্যাবহার করবেনঃ
চুলে বিলি কেটে আঙ্গুল দিয়ে এই প্যাক পুরো চুলে লাগিয়ে নিন। এরপর চুল হাল্কা করে ক্লিপ দিয়ে খোপার মত করে বেধে রাখুন। যেটুকু রয়ে যাবে সেটুকু লাগিয়ে ফেলুন মুখে, হাতে পায়ে। ৩০ মিনিট পরে পানি দিয়ে চুল আর ত্বক ধুয়ে ফেলুন।এই প্যাক রুক্ষ ত্বকের ওপর আর্দ্রতার একটি পরত সৃষ্টি করবে, চুলে ও ত্বকে পুষ্টি জোগাবে আর রুক্ষতা দূর করে এই শীতে আপনি পাবেন কোমল ত্বক আর চুল! ঘরে বসেই!

সপ্তাহে একদিন এই প্যাক লাগাতে পারেন। রুক্ষতা মোকাবেলার জন্য আর আলাদা করে কোন সৌন্দর্য চর্চার কথা ভাবতে হবেনা আপনাকে।
এটা বানিয়ে রেখে দেওয়া যায়না। তাই যখন ইউজ করবেন তখনই বানিয়ে নেবেন।

অতিরিক্ত শুষ্ক চুল-ত্বকের অধিকারীরা সামান্য মধু মেশাতে পারেন।যেদিন প্যাকটি ব্যাবহার করবেন ঐদিন শ্যাম্পু করার প্রয়োজন নেই। পরের দিন করতে পারেন।

অনেকের প্রশ্ন থাকতে পারে, অ্যাভোকাডো কোথায় পাব? মিনা বাজার, নন্দন সহ প্রায় সব বড় চেইন শপ গুলোতে খুঁজলেই পেয়ে যেতে পারেন।

তবে আর দেরি কেন? ঝটপট এই প্যাকটি ট্রাই করুন আর শীতের রুক্ষতাকে নিমিষেই বিদায় দিন!
A A