Travel Image

লাল শাপলার রাজ্যে ভ্রমণ।

একি অপরুপ রুপ মা তোমার হেরি ও পল্লি জননী। হ্যা হাজার রুপে রুপবতি আমাদের এই বাংলাদেশ। এদেশের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে আছে হাজারো পর্যটন এলাকা। রুপের রানি বলা হয় আমাদের দেশকে। সেই রুপের রেশ ধরেই বরিশালের লাল শাপলার রাজ্যের কথা বলবো আজকে।প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যরে অপার লিলাভুমি এই লাল শাপলার রাজ্য

বরিশালের উজিরপুর থানার সাতলা গ্রামে লালা শাপলার রাজ্যের অবস্থান। প্রতি বছর বর্ষার সময়ে হাজার হাজার জমিতে ফোটে এই লাল শাপলা। তবে লাল মাপলার আসল রুপ দেখতে চাইলে সকাল ৮ টার আগে যেতে হবে । কারন শাপলা ভোর বেলায় ফুটে আর রোদের আলো পড়লে বুজে যায়।তবে লাল শাপলার রুপ দেখতে চাইলে আগের দিন গিয়ে থাকা ভালো যদিও ভালো কোন থাকার জায়গা নাই।আত্মীয় স্বজন না থাকলে একটু সমস্যা হতে পারে । তবে বরিশালের মানুষ আতিতীয়তায় উদার। তাতে কি ভ্রমণ তো আরামের জন্য না। শাপলার রাজ্য ঘুরে দেখতে লোকাল এলাকার মানুষের সাহায্য নিন। নৌকা ভাড়া করে নিবেন মন মতো ঘুরে বেড়াবেন শাপলার রাজ্যে। জলের সাথে শাপলার নিবিড় প্রেম আর সেই প্রেমের স্বাক্ষি আপনি ব্যপারটা ভাবতেই গায়ে শিহরণ জাগে। শাপলা পাতার সবুজ রঙের রিফ্লেকশনে পানের রঙ সবুজ মনে হবে। সবুজ রঙের পানির উপর লাল শাপলা একবার কল্পনা করে দেখুন কি মায়াবী প্রকৃতির রুপ। এরকম রুপে ভ্রমণ পিয়াসুরা ভিমরী খায় অবিরত। এই রুপ মিস না করতে চাইলে আজই চলে আসুন দলবল বেধে।

কিভাবে যাবেন

ঢাকা টু বরিশাল বাসে বা লঞ্চে যেতে পারেন।
বরিশাল শহর থেকে উজিরপুর যাওয়ার বাস পাবেন।
আর উজিরপুর থেকে অটো বা সিএনজিতে সোজা সাতলাগ্রাম
বর্ষাকাল তো নৌকায় পার হওয়াও লাগতে পারে।

খরচ:

ঢাকা বরিশাল লঞ্চে ২০০ টাকা বাসে ৪০০ টাকার মতো
বরিশাল থেকে উজিরপুর বাসে ৬০ থেকে ৮০ টাকা
উজিরপুর থেকে সাতলা গ্রাম অটোতে ৫০ টাকা
থাকা খাওয়া নিজের উপর।

উপরোক্ত খরচ আনুমানিক ধরা হয়েছে কমবেশী হতে পারে।