Technology Image

গুগল ড্রাইভের নতুন ৬টি ফিচার সম্পর্কে জেনে নিন



আপনারা যারা ক্লাউড স্টোরেজ ব্যবহার করে থাকেন তারা নিশ্চয়ই গুগল ড্রাইভের সাথে পরিচিত। গুগল ড্রাইভ একজন ব্যবহারকারীকে ক্লাউড স্টোরেজ স্পেস সুবিধা ছাড়াও, গুগল ডক-এক্সেল ইত্যাদি চমৎকার সুবিধা দেয়ায় এবং অবশ্যই ফ্রি সার্ভিস হওয়ায় ব্যবহারকারীদের মধ্যে এটি খুবই জনপ্রিয়। সম্প্রতি জনপ্রিয় এই সার্ভিসে যুক্ত হয়েছে নতুন ৬টি চমৎকার কাজের ফিচার।

ভয়েস টাইপিং
গুগল ভয়েস রিকগনিশন নিয়ে কাজ করছে এ নতুন কিছু নয়। সম্প্রতি তারা তাদের এই গবেষণার ফলাফলকে যুক্ত করেছে গুগল ড্রাইভের সাথে, আরও স্পেসিফিকভাবে বলতে গেলে এই সুবিধাটি যুক্ত করা হয়েছে গুগল ডকের সাথে। এখন আপনি টাইপিং না করেই গুগল ডকে ভয়েসের মাধ্যমে আপনার প্রয়োজনীয় লেখাগুলো লিখে ফেলতে পারেন এবং মজার বিষয় হচ্ছে এই ভয়েস টাইপিং প্রযুক্তিটি প্রায় ৪০টির মত ভাষা সমর্থন করে থাকে।
এই ফিচারটি ব্যবহার করার জন্য প্রথমে যে কোন ডকুমেন্ট ক্রোম ব্রাউজারের মাধ্যমে খুলুন (গুগল ড্রাইভে) এবং এরপর টুল থেকে ভয়েস টাইপিং সিলেক্ট করুন। এরপর মাইক্রোফোনের আইকনে ক্লিক করে কথা বলা শুরু করুন। ব্যাস।

গুগল ডক থেকেই রিসার্চ করার সুবিধা
অ্যান্ড্রয়েডের জন্য যে গুগল ড্রাইভ সুবিধাটি রয়েছে সেখানে একটি নতুন রিসার্চ টুল যুক্ত করা হয়েছে যার ফলে আপনি একটি গুগল ডক নিয়ে কাজ করতে করতেও সেই ডকটি ক্লোজ না করেই গুগল সার্চ করতে পারবেন। এই সুবিধাটি আপনি কোন তথ্য যোগ করার ক্ষেত্রে বা ছবি যোগ করার ক্ষেত্রেও যোগ করতে পারবেন। এটি গুগল ড্রাইভের মূল ভার্সনেও যোগ করা হবে তবে প্রথমে এটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপেই যোগ করা হবে।

টেমপ্লেটস
বলতে গেলে গুগলের প্রায় সব প্রোডাক্টিভিটি টুলগুলোকে নতুন ভাবে রিফ্রেশ করা হছে এবং এর মাধ্যমেই গুগল ড্রাইভে যুক্ত করে দেয়া হয়েছে গুগলের টেমপ্লেট সুবিধা যার ফলে আপনি এখন ডক, শীটস এবং স্লাইডের জন্য বিভিন্ন রকম ফিচারড টেমপ্লেট দেখতে পাবেন পেজের উপরের অংশে।

নিউ চেঞ্জেস বাটন
এখন থেকে শেয়ার্ড ডকুমেন্টের ক্ষেত্রে আপনি খুব সহজেই এতে করা পরিবর্তনগুলো দেখতে পারবেন। আপনি এই পরিবর্তনগুলো দেখার জন্য একটি নতুন 'see new changes' বাটন দেখতে পারবেন যার ফলে আপনি প্রতিটি পরিবর্তন কে করেছে-কখন করেছে-কতটুকুই বা করেছে এসব তথ্য জানতে পারবেন।

এক্সপ্লোর ইন শিট
গুগল স্প্রেডশিটে নতুন একটি তুল যোগ করা হয়েছে এবং এর মাধ্যমে এটি আপনার জন্য স্বয়ংক্রিয় ভাবেই কিছু ডিফরেন্ট চার্ট তৈরি করতে সক্ষম। এর ফলে আপনি আপনার প্রস্তুতকৃত ডাটাগুলো আরও পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে এক্সপ্লোর করতে পারবেন এবং এতে আপনার সময়ও কম খরচ হবে।

নতুন ফর্ম
বিভিন্ন রকম তথ্য কালেক্ট করার জন্য গুগলের ফর্ম অনেক হ্যান্ডি একটি ফিচার। এবং এই নতুন ফর্ম ফিচারের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই এই ফর্মগুলোকে আরও বেশি করে কাস্টোমাইজ করে নিতে পারবেন।