Lifestyle Image

কর্ণফ্লাওয়ারের ব্যবহার



*তেলাপোকার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে সমপরিমাণ কর্ণফ্লাওয়ার ও প্লাস্টার অফ প্যারিস একসাথে মিশিয়ে তেলাপোকা ঘরে ঢোকা এবং লুকোনোর জায়গায় দিয়ে রাখুন।

*জানালার গ্লাস পরিষ্কার ও চকচকে করতে কর্ণফ্লাওয়ারের সাথে পানি মিশিয়ে মিশ্রন তৈরি করুন। এই মিশ্রণটি জানালার গ্লাসে লাগিয়ে একটি কাপড় দিয়ে আলতো করে ঘষে নিন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

*কাপড় থেকে রক্তের দাগ দূর করতে কর্ণফ্লাওয়ার পানিতে মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করে নিন। এরপর তা কাপড়ের রক্তের দাগের উপর ঘষে লাগিয়ে নিন। খানিকক্ষণ রেখে একটি টুথব্রাশ দিয়ে ঘষে তুলে নিন। যদি দাগ এরপরও থাকে তাহলে আরও ১ বার একই কাজ করুন। এরপর কাপড় ধুয়ে রোদে শুকিয়ে নিন।

*অতিরিক্ত ডায়াপার পড়িয়ে রাখলে শিশুর দেহে র্যা শ উঠে যায়। এর যন্ত্রণা থেকে শিশুকে মুক্তি দিতে ডায়াপার পরিবর্তনের সময় শিশুর দেহে র্যাযশ উঠা বন্ধ হবে। এছাড়াও শিশুর গোসলের পানিতে ১/৪ কাপ কর্ণফ্লাওয়ার গুলে নিলেও সমস্যা সমাধান হবে।

*তরকারীতে বেশি পানি পড়ে গেলে অনেক জ্বাল দিলেও ঝোল ঘন হয় না। পাতলা ঝোল দেখতেও ভালো লাগে না। এক কাজ করুন কিছুটা কর্ণফ্লাওয়ার দিয়ে নিন। তরকারীর ঝোল ঘন হয়ে যাবে।

*তৈলাক্ত ত্বকের যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে ব্যবহার করতে পারেন কর্ণফ্লাওয়ার। সাধারণ পাউডার ব্যবহার না করে অল্প কর্ণফ্লাওয়ার ত্বকে ব্যবহার করুন। কিংবা পাউডারের সাথে মিশিয়ে রাখতে পারেন কর্ণফ্লাওয়ার। অরিতিক্ত তেল শুষে নেয়ার কাজ করবে কর্ণফ্লাওয়ার।

*কাপড় থেকে কালির দাগ তুলতে কর্ণফ্লাওয়ারের সাথে দুধ মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করে নিন। এরপর তা দাগের উপর লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে একটি টুথব্রাশ দিয়ে ঘষে তুলে নিন কাপড় থেকে কালির দাগ উঠে যাবে।

*পুড়ে যাওয়া ত্বকের তাৎক্ষণিক ঘরোয়া চিকিৎসার জন্য ব্যবহার করতে পারেন কর্ণফ্লাওয়ার।

৮ কাপ কুসুম গরম পানিতে ১ টেবিল চামচ কর্ণফ্লাওয়ার ও ১ টেবিল চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে এতে গজ বা পরিষ্কার কাপড় চুবিয়ে পোড়া অংশে আধা ঘণ্টা লাগিয়ে রাখুন।