Health Image

ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে মেনে চলুন এই ছোট্ট ১০ টি বিষয়




ক্যান্সার এমন একটি মরণব্যাধি যার প্রতিষেধক আজ পর্যন্ত আবিষ্কার হয় নি। ক্যান্সারে আক্রান্তের অনেক কারণই রয়েছে। তবে এই ক্যান্সার আক্রান্তের বেশীরভাগ কারণ মানুষের জীবনযাপনের উপরেই নির্ভর করে থাকে। অর্থাৎ আপনার দৈনন্দিন জীবনের নানা কাজ ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ানোর জন্য এবং কমানোর জন্যও দায়ী। তাই এই মরণব্যাধির হাত থেকে নিজে এবং নিজের পরিবারকে বাঁচাতে চাইলে সতর্ক থাকতে হবে। দৈনন্দিন জীবনে মেনে চলতে হবে গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় যা ক্যান্সারের ঝুঁকি কমিয়ে দেবে অনেকাংশেই।

১) প্রচুর পরিমাণে শাকসবজি ও ফলমূল খান
প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় রাখুন আঁশযুক্ত খাবার এবং ফলমূল ও শাকসবজি। ইউনিয়ন ফর ইন্টারন্যাশনাল ক্যান্সার কনট্রোল এর গবেষণা অনুযায়ী আপনি যতোটা নিরামিষ ভোজী হবেন ততোই আপনার ক্যান্সারের ঝুঁকি কমবে।

২) ওজনের দিকে কড়া নজর রাখুন
ওজন একেবারেই বাড়তে দেবেন না। আপনার দেহের উচ্চতা ও বয়স অনুযায়ী যতোটা ওজন থাকা উচিত ততোটা ধরে রাখার চেষ্টা করুন। কারণ বাড়তি ওজন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয় অনেকাংশে।

৩) লাল মাংস খাওয়া একেবারে বন্ধ করুন
গবেষণায় দেখা যায় গরুর লাল মাংস সরাসরি ক্যান্সারের কোষ গঠনে ভূমিকা পালন করে থাকে। বিশেষ করে তাই আজ থেকেই লাল মাংস খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

৪) শারীরিক পরিশ্রম
আপনি দেহকে যতোটা সক্রিয় রাখতে পারবেন আপনার ক্যান্সারের ঝুঁকি ততো কমবে। অলস দেহ ক্যান্সারের কোষ গঠনের অন্যতম প্রধান উৎস।

৫) প্রসেসড খাবার থেকে দূরে রাখুন
গবেষণায় দেখা যায় প্রতিবছর শুধুমাত্র আর্টিফিশিয়াল প্রসেসড খাবার খাওয়ার কারণে হাজার হাজার মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে আর্টিফিশিয়াল ফ্লেভার, রঙ ও প্রসেসড খাবার থেকে দূরে থাকুন।

৬) ধূমপান ও মদ্যপান থেকে দূর থাকুন
ধূমপান ও মদ্যপান দেহে ক্যান্সারের কোষ গঠনের জন্য দায়ী। কারণ নিকোটিন এবং অ্যালকোহল নানা শারীরিক সমস্যার পাশাপাশি দেহে ক্যান্সারের কোষ গঠনে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই বাঁচতে চাইলে দূরে থাকুন।

৭) সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে দূরে থাকুন
স্কিন ক্যান্সারের জন্য মূলত দায়ী থাকে সূর্যের ক্ষতিকর অতিবেগুনী রশ্মি। সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত কড়া রোদে কোনো ধরণের প্রোটেকশন ছাড়া বের হওয়া একেবারে কমিয়ে দিন।

৮) ব্যায়াম করুন
আপনি পাতলা স্বাস্থ্যের অধিকারী হলে যদি মনে করে থাকেন আপনার ব্যায়ামের প্রয়োজন নেই তাহলে ভুল ভাবছেন। ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে যে কোনো স্বাস্থ্যের মানুষের নিয়মিত ২০-৩০ মিনিট ব্যায়ামের প্রয়োজন রয়েছে।

৯) মানসিক চাপ থেকে দূরে থাকুন
গবেষণায় দেখা যায় মানসিক চাপ দেহে ক্যান্সারের কোষ গঠনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই পরবর্তীতে মানসিক চাপের ব্যাপারে সাবধান।

১০) নিয়মিত চেকআপ করান
আমাদের মূল সমস্যা একেবারে অসুস্থ না হয়ে পড়লে ডাক্তারের কাছে যাই না। কিন্তু নিয়মিত চেকআপ করার অভ্যাস মারাত্মক রোগ প্রতিরোধ করতে পারে। কারণ প্রাথমিক অবস্থায় ধরা পড়া যে কোনো রোগ দ্রুত ও সঠিকভাবে নিরাময় সম্ভব। তাই বছরে ১ বার হলেও চেকআপ করিয়ে নিন।