খোন্দকার আব্দুল্লাহ মাহমুদ

৫ বছর আগে লিখেছেন

ছি ছি প্রথম আলো

   
বাংলাদেশের গণমাধ্যমের রুচি এত নিচে নেমে গেছে ভাবতেও অবাক লাগে । 
বেশ কিছুদিন ধরে দেখছি প্রথম আলোর অনলাইন সংস্করণে এত অশ্লিল এবং নগ্ন ছবি সহ বিজ্ঞাপন প্রচার করছে । এই প্রত্রিকাটি আবার বাংলাদেশের শিক্ষিত লোকদের পত্রিকা বলে পরিচিত । তা শিক্ষিতর নমুনা যদি নগ্নতা হয় তাহলে খারাপের নমুনা কি ??? এরা আবার নারীদের ওধিকার নিয়ে বড় বড় বুলি ঝারে । তা এয় তার নমুনা । 
ভাবতেও ওবাক লাগে কতটা নিম্ন রুচির হলে এমন বিজ্ঞাপন প্রচার করতে পারে ????
continue reading
Likes Comments
০ Shares

খোন্দকার আব্দুল্লাহ মাহমুদ

৫ বছর আগে লিখেছেন

ইলেক্ট্রনিক্সের হাতে-খড়ি

প্রিয় বন্ধুরা । কেমন আছ । আমি ঢাকা পলিটেকনিকের ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র । ইলেক্ট্রনিক্সের জটিল জটিল বিষয় সমূহ সহজ করে বোঝানোর জন্য আমার এই চেষ্টা ।  আশা করি  ইলেক্ট্রনিক্সের জটিল বিষয় গুলো খুব সহজে সকলের উপযোগী করে উপস্থাপন করতে পারব । শুধু মাধ্যমিক শ্রেণীর পদার্থ বিজ্ঞানের ধারনা থাকলে যে কেউ এই কোর্সটি বুঝতে পারবেন । সহজে বোঝানোর জন্য ছবি উদাহরণ এবং ভিডিও ব্যবহার করা হবে । তাহলে শুরু করা 
ইলেক্ট্রনিক্স বর্তমান বিজ্ঞানের অগ্রগতির পথে প্রধান হাতিয়ার । বর্তমানে সব কিছুয় ইলেক্ট্রনিক্স সিস্টেমের মাধ্যমে নিয়ন্রিত হচ্ছে ।আমাদের ব্যবহার করা মোবাইল ,ক্মপিউটার ,টেলিভিশন সবয় ইলেক্ট্রনিক্স যন্ত্র । তাই সকলের কাছে এই ইলেক্ট্রনিক্সকে সহজ ভাবে উপস্থাপনের উদ্দেশ্যেয় এই লেখা ।  সপ্তাহে ২টি করে লেখা দেওয়ার চেষ্টা করব । এখানে বেসিক থেকে শুরু করে অ্যডভান্সড লেভেল পর্যন্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনার চেষ্টা করব । আশাকরি ইলেক্ট্রনিক্সের  প্রতি আগ্রহীদের উওকারে আসবে । 
কোর্সের বিষয়বস্তু
১) ইলেকট্রনিক্সের ধারনা
২)AC ও DC কারেন্ট
৩)কারেন্ট , ভোল্টেজ ও রেজিসেটেন্স
৪)ওহমের সূত্র
৫)ওহমের সূত্রের প্রয়োগ
৬) ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস
৭) ডায়ডের ব্যবহার
৫)রেক্টিফায়ার
৬)ট্রানজিস্টরের ব্যবহার
৭)অ্যম্লিফায়ার
৮) ট্রানজিস্টর দিয়ে সুইচিং
৯) বিশেষ ধরণের ট্রানজিস্টর
১০) ট্রানজিস্ট বায়াসিং
১১) ক্যপাসিটর
১১)ইলেক্ট্রনিক্স হ্যান্ড টুলস
১২) ইলেক্ট্রনিক্স মেজারমেন্ট টুলস
১৪) ভোল্টেজ ডিভাইডার
১৫ ) সোল্ডারিং আয়রনের বব্যবহার 
১৬) নাম্বারিং সিস্টেম-ডেসিমাল-বায়নারি-হেক্সা ডেসিমাল 
১৬) ডিজিটাল ইলেক্ট্রনিক্সের ধারনা
১৭) ডিজিটাল ক্মপিউটার 
১৮)ক্মপিউটার আর্কিটেকচার
১৯)মাইক্রকন্টলার 
২০)ক্মপিউটার কন্ট্রল সিস্টেম 
২১)সি প্রগ্রামিং 
২২)সিমুলেশান এন্ড ডিজাইন 
২৩)পিসিবি ডিজাইন উইথ ই-ক্যাড
২২)বেসিক ম্যকানিক্স 
২৩)রোবটিক্স 
continue reading
Likes Comments
০ Shares

Comments (0)

  • - মোঃসরোয়ার জাহান

    valo laglo

    - প্রহেলিকা

    ভালো লাগা রেখে গেলাম। শুভেচ্ছা জানবেন। 

    - ছড়াবাজ

    ভালো কথার নাইকো ভাত,
    দেশটা এমন, বাংলা জাত!
    সবখানেতে দ্বৈত-প্রমিত,
    সবাই ভুল, রাজায় ঠিক!!

    দ্বৈত-প্রমিত = Double Standard.

খোন্দকার আব্দুল্লাহ মাহমুদ

৫ বছর আগে লিখেছেন

ইলেকট্রনিক্সের ধারণা

এটি একটি ধারাবাহিক পোস্টের ২য় পর্ব । 
আগের পোষ্ট গুলা পাবেন এখানে 
ইলেকট্রনিক্সের ধারণা 
প্রথমে  ইলেক্ট্রনিক্স কি তা সম্পর্কে উইকিপিডিয়া কি বলে  তা একটু দেখে নিই
“Electronics deals with electrical circuits that involve active electrical components such as vacuum tubes, transistors, diodes and integrated circuits, and associated passive interconnection technologies.”
”ইলেকট্রনিক্স তড়িৎ প্রকৌশলের একটি শাখা যেখানে ভ্যাকিউম টিউব, গ্যাস অথবা অর্ধপরিবাহী (semi conductor) যন্ত্রাংশের মধ্য দিয়ে ইলেকট্রনের প্রবাহ, ব্যবহারিক আচরণ ও প্রক্রিয়া আলোচিত হয়”"
ইতিহাস 
১৯০৪ সালে জন অ্যামব্রোস ফ্লেমিং দুইটি তড়িৎ ধারক (electrodes) বৈশিষ্ট সম্পূর্ণ বদ্ধ কাঁচের এক প্রকার নল (vacuum tube) উদ্ভাবন করেন ও তার মধ্য দিয়ে একমুখী তড়িৎ পাঠাতে সক্ষম হন। তাই সেই সময় থেকে ইলেকট্রনিক্‌সের শুরু হয়েছে বলা হয় । 
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগে ইলেকট্রনিক্‌স প্রকৌশল রেডিও প্রকৌশল বা বেতার প্রকৌশল নামে পরিচিত ছিল। তখন এর কাজের পরিধি রাডার, বাণিজ্যিক বেতার (Radio) এবং আদি টেলিভিশনে সীমাবদ্ধ ছিল। বিশ্বযুদ্ধের পরে যখন ভোক্তা বা ব্যবহারকারী-কেন্দ্রিক যন্ত্রপাতির উন্নয়ন শুরু হল, তখন থেকে প্রকৌশলের এই শাখা বিস্তৃত হতে শুরু করে এবং আধুনিক টেলিভিশন, অডিও ব্যবস্থা, কম্পিউটার এবং মাইক্রোপ্রসেসর এই শাখার অন্তর্ভুক্ত হয়। পঞ্চাশের দশকের মাঝামাঝি থেকে বেতার প্রকৌশল নামটি ধীরে ধীরে পরিবর্তিত হয়ে দশকের শেষ নাগাদ ইলেকট্রনিক্‌স নাম ধারণ করে।
উইলিয়াম ব্র্যাডফোর্ড শকলি, জন বারডিন এবং ওয়াল্টার হাউজার ব্র্যাটেইন একসাথে যৌথভাবে ট্রানজিস্টর উদ্ভাবন করেন। ১৯৪৮ সালে ট্রানজিস্টর উদ্ভাবন ও ১৯৫৯সালে সমন্বিত বর্তনী (integrated circuit or IC) উদ্ভাবনের আগে ইলেকট্রনিক বর্তনী তৈরি হতো বড় আকারের পৃথক পৃথক ভ্যাকিউম টিউব যন্ত্রাংশ দিয়ে। এই সব বিশাল আকারের যন্ত্রাংশ দিয়ে তৈরি বর্তনীগুলো বিপুল জায়গা দখল করত এবং এগুলো চালাতে অনেক শক্তি লাগত। এই যন্ত্রাংশগুলোর গতিও ছিল অনেক কম। অন্যদিকে সমন্বিত বর্তনী বা আই সি অসংখ্য (প্রায়ই ১০ লক্ষ বা এক মিলিয়নেরও বেশি) ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র তড়িৎ যন্ত্রাংশ, যাদের বেশিরভাগই মূলত ট্রানজিস্টর দিয়ে গঠিত হয়। এই যন্ত্রাংশগুলোকে একটি ছোট্ট পয়সা আকারের সিলিকন চিলতে বা চিপের উপরে সমন্বিত করে সমন্বিত বর্তনী তৈরি করা হয়। বর্তমানের অত্যাধুনিক কম্পিউটার বা নিত্য দিনের প্রয়োজনীয় ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি সবই প্রধানত সমন্বিত বর্তনী বা আই সি দ্বারা নির্মিত।
আসুন এবার... continue reading
Likes Comments
০ Shares

Comments (0)

  • - মোঃসরোয়ার জাহান

    বেশ ভালো লাগলো আপনর হাইকু সম্পর্কে লেখা টুকু

খোন্দকার আব্দুল্লাহ মাহমুদ

৫ বছর আগে লিখেছেন

প্রথম রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান !!!!!!!!

বাংলাদেশে যে কারা রাজনিতি করে আর কারা গাজা টানে এইটা বুঝবার পারলাম না ।
তবে বাংলাদেশে রাজনীতি করতে তেমন কোন যোগ্যতা লাগে না সেটা প্রতিষ্ঠিত শুধু ""রাস্তার গরু ছাগল চিনলেয় হয়""" ।
আসলে আন্ডার ম্যেট্রিক হলে সেনা প্রধানের বউ হওয়া যায় ঠিকি ,কিন্তু সেনা প্রধানের পিয়ন হওয়া যায় না ।

এসব আবাল রাজনীতিবিদদের জন্য, যদিও তাদের কোন কাজে লাগবে না ।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির তালিকা
১-- Sheikh Mujibur Rahman (17 April 1971 -12 January 1972)
২--Syed Nazrul Islam (17 April 1971-12 January 1972)
৩--Abu Sayeed Chowdhury (12 January 1972-24 December 1973)
৪--Mohammad Mohammadullah (24 December 1973-25 January 1975)
৫--Sheikh Mujibur Rahman (25 January 1975-15 August 1975)
৬--Khondaker Mostaq Ahmad (15 August 1975 -6 November 1975)
৭--Abu Sadat Mohammad Sayem (6 November 1975-21 April 1977)
৮--Ziaur Rahman (21 April 1977-30 May 1981)
৯--Abdus Sattar (30 May 1981-24 March 1982)
১০--Hussain Muhammad Ershad (24 March 1982-27 March 1982)
১১--Ahsanuddin Chowdhury (27 March 1982 -10 December 1983)
১২--Hussain Muhammad Ershad (11 December 1983-6 December 1990)
১৩--Shahabuddin Ahmed (6 December 1990 -10 October 1991)
১৪--Abdur Rahman Biswas (10 October 1991 -9 October 1996)
১৫--Shahabuddin Ahmed (9 October 1996 -14 November 2001)
১৬--Badruddoza Chowdhury (14 November 2001 -21 June 2002)
১৭--Muhammad Jamiruddin Sircar (21 June 2002 6 September 2002)
১৮--Iajuddin Ahmed (6 September 2002 -12 February 2009)
১৯--Zillur Rahman (12 February 2009 -20 March 2013)
২০--Abdul Hamid(14 March 2013-present)

বহু কষ্টে এই স্পিসটি সংগ্রহ করলাম ।... continue reading
Likes Comments
০ Shares

Comments (2)

  • - মাসুম বাদল

    চমৎকার একটি লেখা উপহার দেবার জন্য

    অশেষ ধন্যবাদ আর শুভকামনা... 

    - দেওয়ান কামরুল হাসান রথি

    ধন্যবাদ বাদল ভাই।

    - আলমগীর সরকার লিটন

    বেশ ভাল লাগল

    স্বাধীনতার শুভেচ্ছা রইল

    ভাল থাকুন -----------

    • - দেওয়ান কামরুল হাসান রথি

      ধন্যবাদ লিটন ভাই।

    Load more comments...

খোন্দকার আব্দুল্লাহ মাহমুদ

৫ বছর আগে লিখেছেন

আমার জীবন

আমার জীবন   আজ আমি সকলের সাথে আমার জীবনের কিছু  বিষয় শেয়ার করব

আমি খন্দকার আব্দুল্লাহ মাহমুদ ঢাকা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের ইলেক্ট্রনিক্স প্রকৌশল বিভাগের শিক্ষাত্রী । শিক্ষা ও প্রযুক্তি বিষয়ক পলিটেকনিক শিক্ষত্রীদের একমাত্র ব্লগ সাইট পলিটেকনিক ব্লগের সহ প্রতিষ্ঠাটা (www.polytechnicblog.com -প্রযুক্তির শিক্ষায় প্রগতির পথে )  । এছারা আমার নিজের ব্লগ সাইটে লেখালেখি করি  (www.amar-patshala.blogspot.com)  । ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের প্রফেশনাল সংগঠন IDEB -এর অফিসিয়াল পেজের অ্যডমিন  এবং IDEB-র  স্টাডি এন্ড রিসারস সেলে শিক্ষা এবং আইসিটি নিয়ে  কাজ করছি ।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত পদার্থ-ইলেকট্রনিক্স ও যোগাযোগ প্রকৌশল বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর ড় জাহিদ হাসান মাহমুদের সঙ্গে  ‘শিক্ষা কৃষি শিল্প জাতীয় সম্পদ রক্ষায় সকল দেশ প্রেমিক এক হও’ এই শ্লোগানকে ধারণ করে ‘সংস্কৃতির নয়া সেতু’  সংগঠনটির সাথে কাজ করে যাচ্ছি ।

ইলেকট্রনিক্সের প্রতি আমার আগ্রহ অনেক ছোট থেকেয় । হলিউডের সিনেমা এবং সাইন্স ফিকশান বই গুলো পড়ে আমার ইলেকট্রনিক্সের প্রতি আগ্রহ জন্মে । ক্লাশ ৭ এ থাকতেয় আমি সোল্ডারিং আয়রন এবং অ্যভো মিটার  দিয়ে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স যন্ত্রপাতি নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট শুরু করি । ইলেকট্রনিক্সের প্রতি ভালবাসায় আমাকে ঢাকা পলিটেকনিকের ইলেকট্রনিক্স বিভাগে নিয়ে আসে ।অ্যডভান্স কন্ট্রোল সিস্টেম ,এম্বেডেড সিস্টেম ,রোবোটিক্স , ভিএলএসআই ,এফপিজিএ ,ভিএইছডিএল,ডিজিটাল কম্পিউটার ,আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সি  নিয়ে কাজ এবং গবেষনার ইচ্ছা  আছে ।বর্তমানে মাইক্রো কন্ট্রলারের  সাহায্যে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করছি । ""এম্বেডেড সিস্টেম ডিজাইনিং ও পিএলসি"'বিষয়ে বাংলাদেশের অন্যতম গবেষনামূলক প্রতিষ্ঠান অন্যরকম গ্রুপের পাই ল্যবস থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছি ।

প্রথম আলো আয়োজিত  ""আই জিনিয়াস ""প্রতিযোগিতায় কুস্টিয়া জোনে ফাস্ট-রানার আপ , অ্যনিমেল অ্যন্ড অ্যগ্রিকালচার টেকনোলজি ফেয়ারে বায়োগ্যাস প্রযেক্ট উপস্থাপন করে বিজয়ী , আন্ত স্কুল বিজ্ঞান প্রতিযোগিতায় প্রথম পুরষ্কার সহ স্থানীয় বিতর্ক প্রতিযগিতায় প্রথম এবং বিভিন্ন... continue reading
Likes Comments
০ Shares

Comments (2)

  • - মাসুম বাদল

    চমৎকার... 

     

     

    সালাম ও শুভকামনা জানবেন... 

    • - মেজদা

      ধন্যবাদ বাদল ভাই। শুভেচ্ছা জানবেন। 

    - আলমগীর সরকার লিটন

    মেজদা

    একি ভাবনা অসাধারণ

    স্বাধীনতার শুভেচ্ছা রইল

    ভাল থাকুন-----

    • - মেজদা

      ধন্যবাদ আলমগীর। স্বাধীনতার শুভেচ্ছা সকলের জন্য। 

    - লুৎফুর রহমান পাশা

    বাপরে। মেজদা তো দেখি বড়দা হয়ে যাইতেছেন।

    • - মেজদা

      মাঝে মাঝে ছোট ছোট কথায় কিছু লিখতে। ধন্যবাদ

    Load more comments...