Travel Image

ঈদের আনন্দ ফ্যান্টাসি কিংডমে



বিশ্বমানের আদলে গড়া উত্তেজনাকর সব রাইডস নিয়ে এই পার্ক তৈরি করা হয়েছে। বিনোদনপিপাসু যে কোনো বয়সের দর্শকের জন্য এ পার্কটি আদর্শ। এখানে রয়েছে দুধরনের প্যাডেল বোটসহ মজার মজার সব রাইড। এই পার্কে সবচেয়ে উত্তেজনাকর ও জনপ্রিয় রাইড হল রোলার কোস্টার। এছাড়াও রয়েছে জায়ান্ট ফ্লুম, শান্তা মারিয়া, ম্যাজিক কার্পেট, ওয়ার্লি বার্ড, হ্যাপি ক্যাঙ্গারু, বাম্পার কার, বাম্পার বোট, জিপ অ্যারাউন্ড, পানি অ্যাডভেঞ্চার, ইজিডিজি, জুজু ট্রেন ইত্যাদি। এছাড়া খাওয়া-দাওয়ার জন্য রয়েছে তিন তারকা মানের আশু ক্যাসেল রেস্টুরেন্ট ও ওয়াটার টাওয়ার ক্যাফে। দর্শনার্থীদের সুবিধার্থে সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটির দিনে সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ও অন্যান্য দিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত পার্ক খোলা থাকে। ঈদ উপলক্ষে দর্শনার্থীদের জন্য পার্ক কর্তৃপক্ষ আকর্ষণীয় কনসার্টসহ ড্যান্স শো, ডিজে শো এবং অ্যাক্রোব্যাট শো এর ব্যবস্থা করেছে। ঈদের এই উত্সবমুখর দিনগুলোতে ফ্যান্টাসি কিংডম বর্ণালি সাজে সজ্জিত হবে এবং থাকবে নানা ধরনের মাস্কাট, যা বাচ্চাদের দেবে অফুরন্ত আনন্দ।


ওয়াটার কিংডম
পানির মধ্যে অফুরাণ বিনোদন, যা কি না একমাত্র ওয়াটার কিংডমে সম্ভব। মাটির নিচ দিয়ে আকর্ষণীয় এক টানেল পার হয়ে তবেই এই ওয়াটার কিংডমে যাওয়া যায়। এখানকার উল্লেখযোগ্য রাইডগুলো হল-ওয়েভপুল, স্লাইড ওয়ার্ল্ড, লেজি রিভার, ফ্যামিলিপুল, টিউবস্লাইড, মাল্টিস্লাইড, ওয়াটারপুল, ডুমস্লাইড, লস্ট কিংডম, প্লে জোন ও ড্যান্সিং জোন। এখানে সাগরের উত্তাল ঢেউয়ে আপনি ভিজে যাবেন; তাই আপনাকে সঙ্গে আনতে হবে অতিরিক্ত কাপড় ও তোয়ালে। পুরুষ ও মহিলাদের জন্য রয়েছে আলাদা আলাদা চেঞ্জ রুম। পার্কে খাওয়া-দাওয়ার জন্য ফাস্টফুড শপ, আইসক্রিম শপ, রেস্টুরেন্টসহ রয়েছে গিফট শপও। দর্শনার্থীদের সুবিধার্থে সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটির দিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এবং অন্যান্য দিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত পার্ক খোলা থাকে। দর্শনার্থীদের জন্য আয়োজন করা হয় আকর্ষণীয় কনসার্টসহ ড্যান্স শো, ডিজে শো, গেম শো, র্যাফেল ড্র এবং অ্যাক্রোব্যাট শো।

হেরিটেজ পার্ক
দেশের ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা ও চমত্কার সব রাইড নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে হেরিটেজ পার্ক। বিনোদনপ্রেমী বাঙালিকে দেশের ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচয় ও চমত্কার সব রাইডে চড়ার সুযোগ রয়েছে হেরিটেজ পার্কে। হেরিটেজ পার্কে যেসব ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা রয়েছে তার মধ্যে জাতীয় স্মৃতিসৌধ, আহসান মঞ্জিল, চুনাখোলা মসজিদ, কান্তজীর মন্দির, জাতীয় সংসদ ভবন, ষাটগম্বুজ মসজিদ ও পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার উল্লেখযোগ্য।

ইতিহাস ও ঐতিহ্যের এসব নিদর্শন দেখে নেওয়ার ফাঁকে ফাঁকে সপরিবারের উপভোগ করতে পারবেন মজার মজার রোমাঞ্চকর সব রাইড। উল্লেখযোগ্য রাইডসগুলো হল-জায়ান্ট ফেরিস হুইল, পাইরেট শিপ, ড্রাই স্লাইড, কফি কাপ, ব্যাটারি কার, ফ্যামিলি ট্রেন, ফ্লুম রাইড, সার্কাস সুইং, প্যাডেল বোট ইত্যাদি। শিশুদের নির্মল ও নিরন্তর আনন্দের জন্য রয়েছে ‘বাউন্সি স্লাইড’ রাইড। খাওয়া-দাওয়ার জন্য রয়েছে অত্যাধুনিক ফুড কোর্ট ও রেস্টুরেন্ট। দর্শনার্থীদের সুবিধার্থে সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটির দিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ও অন্যান্য দিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত পার্ক খোলা থাকে।

এছাড়া ফ্যান্টাসি কিংডমে আসলে আরও পাবেন ওয়াটার কিংডমে অবস্থিত মোটেল আটলান্টিস এবং এক্সট্রিম রেসিং গো-কার্টে ভ্রমণের সুযোগ। ফ্যান্টাসি কিংডম সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্যের জন্য: ৮৮৩৩৭৮৬, ৯৮৯৬৪৮২, ৭৭০৭৯৪৬-৪৯, ০১৯১৩৫৩১৩৮০, ০১৯১৩৫৩১৪১৯, ০১৯১৩৫৩১৩৮১।