Sports Image

বিশ্বের জনপ্রিয় দশটি খেলা


১। ফুটবলঃ



এটি সকার নামেও পরিচিত যা দুইটি দলের মধ্যে খেলা হয়। একটি বর্তুলাকার বল দিয়ে অন্য দলের জাল পরিহিত চতুর্ভুজাকৃতি জায়গায় নিয়ে যেতে হয় যেটাকে গোল বলে। একমাত্র গোলকিপার হাত দিয়ে বলটি ধরতে পারে। টোটাল ৯০ মিনিটের খেলায় দুই ধাপে ৪৫ মিনিট করে খেলা হয়। বাংলাদেশেও খেলাটি তুমুল জনপ্রিয়।

২। ক্রিকেটঃ



এটা মূলত ব্যাট এবং বলের খেলা। এখানে একদিকে ব্যাট দিয়ে বল মেরে রান করতে হয় তেমনি অন্যদিকে বল ছুঁড়ে ব্যাটসম্যানকে আউট করতে হয়। মাঠের একবারে মধ্যেখানে ২২ গজের লম্বা একটা পিচে এই খেলাটি অনুষ্ঠিত হয়। বর্তমানে ক্রিকেটে তিন ধরনের ফরম্যাট প্রচলিত আছে। এগুলো হচ্ছ, টেস্ট, ওয়াডে ও টি২০।

৩। বাস্কেটবলঃ



এই খেলাটি আমেরিকা, কানাডা, চায়না, ফিলিপাইন ইত্যাদি দেশে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় এবং বিশ্বের ৩য় জনপ্রিয় খেলা। এই খেলায় দুই দলে পাঁচ জন করে খেলোয়াড় থাকে এবং একটি আয়তক্ষেত্রাকার কোর্টে খেলা হয়। দুই প্রান্তেই দশ ফিট উপরে একটি করে ঝুড়ি থাকে। প্রত্যেক দলের উদ্দেশ্যে হচ্ছে আঠার ইঞ্চির গোল ঝুড়ি দিয়ে বল প্রবেশ করানো।

৪। হকি



 জনপ্রিয়তার দিক থেকে তাই হকির অবস্থান চার নম্বারে। এটি এশিয়া, ইউরোপ, আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া ইত্যাদি অঞ্চলের অত্যন্ত জনপ্রিয় খেলা। প্রায় ২-২.২ বিলিয়নেরও বেশি মানুষ খেলাটি পছন্দ করে।

৫। টেনিস



বিশ্বের শীর্ষ ১০টি জনপ্রিয় খেলার মধ্যে টেনিসের অবস্থান পাঁচ নম্বরে। ইউরোপ, আমেরিকা, এশিয়ার প্রায় ১ বিলিয়নের কাছাকাছি ভক্ত রয়েছে টেনিসের। টেনিস খেলায় এক এক দলে একজন করে খেলোয়াড় থাকে। টেনিস খেলায় দুই পক্ষের খেলোয়াড় জালের বিপরীতদিকে একে-অপরের মুখোমুখি অবস্থান নেয়। একদিকের খেলোয়াড় বলটি প্রথমে মারে তার অপরদিকের বিপরীত পাশের খেলোয়াড়ের দিকে। একে সার্ভ করা বলে। যে বল মারে তাকে সার্ভার এবং বিপরীত প্রান্তের খেলোয়াড়কে রিসিভার বলে। ‘সার্ভার’-কে তার বেসলাইনের বাইরেথেকে বল মারতে হয়। তবে রিসিভার যেকোন জায়গায় অবস্থান নিতে পারে। সার্ভিসের বল খেলোয়াড়ের অপর পাশের বিপরীত দিকের সার্ভিস কোর্টে জাল না ছুঁয়ে পাঠাতে হয়।যদি সার্ভিসে কোনো ধরনের ভুল হয়, তবে ‘সার্ভার’ দ্বিতীয় সুযোগ পায় সার্ভিস করার। দ্বিতীয় সার্ভিস ভুল হলে ‘ডবল ফল্ট’ বলে এবং রিসিভার পয়েন্ট পায়।

৬। ভলিবল



ছয় নম্বরে রয়েছে ভলিবল। একটি নেটের দুই পাশে ছয় জন করে খেলোয়াড় থাকে। মাটিতে বল পড়লেই বিপক্ষ দল পয়েন্ট পায়। ১৯৬৪ সাল থেকে সামার অলিম্পিকে এই খেলাটি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

৭। টেবিল টেনিস



এই খেলাটি পিং পং নামেও পরিচিত এবং বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় খেলা হিসেবে বিভিন্ন দেশের ক্রীড়াবিদদের নিকট অত্যন্ত পরিচিত। ব্যক্তিগত কিংবা দলগত বিষয় হিসেবে এ খেলা টেবিলের উপরের অংশে খেলতে হয়। এছাড়াও, খেলার উপকরণ হিসেবে ব্যাট, ছোট বল, জাল এবং টেবিলের প্রয়োজন পড়ে। ১৮৮০ সালে ইংল্যান্ডে টেবিল টেনিসের উৎপত্তি ঘটে। আধুনিক অলিম্পিকে এ ক্রীড়া ১৯৮৮ সালের সিউল অলিম্পিকে অন্তর্ভূক্ত হয়। 

৮। বেসবল



বেসবল ব্যাট ও বলের একটি দলীয় খেলা যাতে নয়জন খেলোয়াড়বিশিষ্ট দুইটি দল অংশ নেয়। নিক্ষিপ্ত বলে ব্যাট দ্বারা আঘাত করে একটি ৯০ ফুটের রম্বসাকৃতি অংশের চারকোণায় চারটি বেস স্পর্শ করে রান নেয়ার মধ্য দিয়ে খেলাটি সম্পন্ন হয়। ব্যাটিং দলের খেলোয়াড়েরা ফিল্ডিং দলের পিচারের বলের মোকাবিলা করে। পিচার বিভিন্ন উপায়ে ব্যাটিং দলের খেলোয়াড়দের আউট করতে সচেষ্ট হয়। ব্যাটিং দলের একজন খেলোয়াড় যেকোন বেসে থামতে পারেন এবং পরবর্তী সময়ে দলের সহখেলোয়াড়দের হিটের মাধ্যমে বা অন্যান্য উপায়ে পুনরায় এগিয়ে যেতে পারেন। ফিল্ডিংরত দল তিনটি হিটার আউট করলে একটি ইনিংসের সমাপ্তি হয়। মোট নয়টি ইনিংস নিয়ে একটি পেশাদার বেসবল খেলা সম্পন্ন হয়। যে দল এই সময়ের মধ্যে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহ করতে পারে সেই দল বিজয়ী বলে বিবেচিত হয়।

৯। নবম স্থানে আছে দুটি খেলা।

আমেরিকান ফুটবল



আমেরিকান ফুটবলকে আমেরিকায় ফুটবল বলা হয় এবং অনেক দেশে গ্রিড আয়রনও বলা হয়। সকার খেলার মত এখানেও এগারজন খেলোয়াড় থাকে।

রাগবি



রাগবি ফুটবল এক ধরনের দলগত ক্রীড়া যা বিশ্বের সর্বত্র কম-বেশী খেলা হয়ে থাকে। যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, ইতালি, ফ্রান্স, দক্ষিণ আফ্রিকা, আর্জেন্টিনা, জাপান, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জসহ শতাধিক দেশের ক্রীড়াপ্রেমী জনগণ এতে অংশগ্রহণ করেন। এটি বিশ্বের প্রথমদিককার ডিম্বাকৃতির বল যা ফুটবলের ন্যায়। সচরাচর একে রাগবি নামেই অভিহিত করা হয়। দু'টি দল একে-অপরের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় লিপ্ত হয়ে সর্বাধিকসংখ্যক পয়েন্ট সংগ্রহের চেষ্টা চালায়। একজন খেলোয়াড় বল হাতে দৌড়ে যায় ও বলটিকে সহ-খেলোয়াড়ের কাছে দেয়ার উদ্দেশ্যে পেছনে দিতে হয়। কিন্তু সম্মুখে দিতে গেলে লাথি মেরে দিতে হয়। খেলার নিয়ম-কানুন প্রবর্তন ও সুষ্ঠুভাবে খেলা পরিচালনার স্বার্থে ইন্টারন্যাশনাল রাগবি বোর্ড ১৮৮৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

১০। গলফ



গলফ ক্লাব ও বলের একটি খেলা, যাতে খেলোয়াড়েরা ক্লাবের সাহায্যে বলটিকে নির্দিষ্ট গর্তে ফেলার চেষ্টা করেন। গলফ খেলোয়াড়দের বলা হয় গলফার। আর দশটি বলের খেলার মত গলফ মাঠের কোন নির্দিষ্ট আকৃতি থাকে না। গলফ খেলা হয় খোলা মাঠে, যাকে গলফকোর্স বলা হয়। একটি গলফ কোর্সে সাধারণত ৯ থেকে ১৮ টি গর্ত থাকে। প্রতিটি গর্তের জন্য একটি করে টি বক্স থাকে, যেখান থেকে খেলা শুরু হয়।