Sports Image

জেমস্ রদ্রিগেস অজানা কিছু তথ্য




ফুটবল ইতিহাসে চতুর্থ সর্বোচ্চ ৬৩ মিলিয়ন পাউন্ডে ৬ বছরের চুক্তিতে স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিয়েছেন হামেস রদ্রিগেস। ২৩ বছর বয়সী এ কলম্বিয়ান স্ট্রাইকার সম্পর্কে কিছু জানা-অজানা তথ্য নিচে তুলে ধরা হলোঃ

১। হলিউড সিনেমার গোয়েন্দা চরিত্র ‘জেমস বন্ড’র নামের সঙ্গে মিল রেখে তার নাম রাখা হয় জেমস রদ্রিগেস। কিন্তু কলম্বিয়ার ভাষায় ‘জেমস’ শব্দটি ‘হামেস’ রূপে উচ্চরণ করা হয়। ইংরেজি বানানে অনেকে তাকে জেমস রদ্রিগেস বলে ডাকলেও তিনি নিজে ‘হামেস’ বলে ডাকার অনুরোধ করেন।

২। ছোটবেলা থেকেই রদ্রিগেস তোতলা। মুখের এ জড়তার জন্য ছোটবেলা তাকে চিকিৎসা নিতে হয়েছে। কিন্তু এখনও সেটা কাটেনি। সংবাদ সম্মেলনে কথা বলতে গেলে এখনও তিনি তোতলানো ভাষায় কথা বলেন।

৩। রদ্রিগেসের জীবনের নায়ক দু’জন। এক. জাপানি কার্টুন ‘ক্যাপ্টেন সুবাসা’র প্রধান চরিত্র সুবাসা ওজোরা। জাপানের হয়ে বিশ্বকাপ জেতার স্বপ্ন দেখেন কার্টুনের এই চরিত্রটি। দ্বিতীয়. ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। রিয়াল মাদ্রিদের এ পর্তুগিজ তারকার মতো ফুটবলারই তিনি হতে চেয়েছেন। নিজের জীবনের নায়কের সঙ্গেই তিনি এখন রিয়ালে খেলবেন।

৪। রদ্রিগেসকে ‘এল দিয়েজ’ নামেও ডাকা হয়ে থাকে। কলম্বিয়ার ভাষায় যার অর্থ ‘১০ নম্বর’। ১০ নম্বর জার্সি পরে খেলতে ভালবাসেন বলে ভক্তরা তাকে এই নাম দিয়েছে। স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদে এসে তিনি প্রিয় ১০ নম্বর জর্সিটাই পেয়েছেন।

৫। ব্যক্তিগত জীবনে ২৩ বছর বয়সী রদ্রিগেস বিবাহিত। জাতীয় দলের সতীর্থ গোলরক্ষক ডেভিডের বোন ড্যানিয়েলা ওসপিনাকে তিনি বিয়ে করেছেন। তাদের ঘরে সালোমে নামের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে।

৬। ফুটবলে এমন সমৃদ্ধ ক্যারিয়ারের পরও তিনি এখন লেখাপড়া চালিয়ে যাচ্ছেন। কলম্বিয়ার আবিয়ের্তা বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশুনা করেন।

৭। ফুটবলের পর রদ্রিগেসের প্রিয় খেলা বাস্কেটবল। প্রিয় খেলোয়াড় লেব্রোন। দুই খেলার দুই খেলোয়াড়ের মধ্যে দারুণ বন্ধুত্ব রয়েছে।

৮। স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেয়ার আগ্রহ কখনও তিনি গোপন করেননি। সব সময় প্রকাশ্যেই বলেছেন- বার্সেলোনা নয়, রিয়ালেই তিনি যোগ দিতে চান।