Entertainment Image

সালমানের দখলেই থাকছে বলিউডের ঈদ



আসছে রোযার ঈদে মুক্তি পেতে যাচ্ছে বলিউড সুপারস্টার সালমান খানের ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’। প্রায় ১০০ কোটি রুপি বাজেটে নির্মিত এই সিনেমার মুক্তির আগেই শুরু হয়ে গিয়েছে এর আয়ের হিসেব। ভারতে হারিয়ে যাওয়া এক মেয়েকে নিজ দেশ পাকিস্তানে ফিরিয়ে দেয়ার দায়িত্ব নিজ কাঁধে তুলে নিতে দেখা যাবে সালমান খানকে। আর এই সিনেমার মধ্য দিয়েই প্রায় এক বছর পর সালমানপ্রেমীরা তার সিনেমা দেখার সুযোগ পাবেন।

ব্লকবাস্টার হিট হতে যাওয়া ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ এর মূল কাহিনিই গড়ে উঠেছে পাকিস্তানের এক মেয়েকে ঘিরে। দুর্ভাগ্যক্রমে মেয়েটি কথা বলতে পারে না, কিন্তু সে হারিয়ে যায় ভারতে। ভারত থেকে সে কী ভাবে ফিরে যাবে নিজ দেশে? হঠাৎ করেই মেয়েটি দেখা পায় হিন্দু দেবতা হনুমান অর্থাৎ বাজরাঙ্গ বলি ভক্ত সালমান খানের সঙ্গে। টান টান উত্তেজনাপূর্ণ অ্যাকশন, রোমাঞ্চে ভরপুর এই কাহিনিই দেখা যাবে ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ সিনেমাটিতে।



কাশ্মীর উপত্যকার অনেক সুন্দর সুন্দর জায়গায় ধারণ করা হয়েছে ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ সিনেমার দৃশ্য। এমনকি পাহেলগাম ও গুলমার্গের রিসোর্টেও হয়েছে এর দৃশ্যধারণের কাজ। শুধু তাই নয়, প্রথমবারের মত ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ই কাশ্মীরের আশমুকাম দরগায় শুটিংয়ের অনুমতি পায় যা এর আগে কেউ পায়নি। এই সিনেমাটি নিয়ে সালমান ভক্তদের আগ্রহের আরো একটি বিশেষ কারণও কিন্তু রয়েছে। এই সিনেমার শুটিং চলাকালীনই কিন্তু সালমান খানের ২০০২ সালের ‘হিট অ্যান্ড রান’ মামলার শুনানির রায় ঘোষিত হয়। রায়ে সালমানের পাঁচ বছরের কারাদণ্ডাদেশ হলে ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ সিনেমার শুটিংও পড়ে যায় বিপর্যয়ের মুখে। ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ আসন্ন ঈদে মুক্তি পাবার সকল সম্ভাবনাই তখন বাতিল হয়ে যায়। পরে অবশ্য সালমান তার রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করলে তার কারাদণ্ডাদেশ স্থগিত হয় এবং তিনি ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ সিনেমার কাজ শেষ করেন।



সালমানের ভক্ত শুধু যে ভারতেই রয়েছেন তা কিন্তু নয়, সালমান তার পাকিস্তানি ভক্তদের প্রতি তার ভালোবাসা প্রদর্শনের জন্য পাকিস্তানেও যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। ভারত-পাকিস্তানে কাশ্মীর নিয়ে দ্বন্দ্বের কথা তো সকলেরই জানা। এখন শোনা যাচ্ছে ঈদে পাকিস্তানের দুইটি সিনেমা মুক্তি পাবে বলে সালমান খানের ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ সিনেমাটি পাকিস্তান জুড়ে ঈদে মুক্তি পাচ্ছে না। পাকিস্তানে সিনেমাটি ঈদের এক সপ্তাহ পরে মুক্তি পাবে বলেই জানা গেছে।

শাহরুখ ও সালমান খান শত্রু থেকে আবারো বন্ধুতে পরিণত হন গত বছরে সালমান খানের বোন অর্পিতা খানের বিয়ের সময়েই। বন্ধু সালমানের ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ সিনেমার পোস্টার কিন্তু টুইটারে সর্বপ্রথম শাহরুখ খান ও আমির খানই প্রকাশ করেন। এই বিষয়টিও কিন্তু ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ দেখার জন্য ভক্তদের আগ্রহ আরও বাড়িয়ে দিয়েছে।



‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ সিনেমায় সালমান ছাড়াও আরো অভিনয় করছেন কারিনা কাপুর খান ও নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি। সালমানের প্রেমিকা হিসেবে কারিনা অভিনয় করলেও নিন্দুকেরা বলছেন এই সিনেমায় নাকি কারিনার উপস্থিতি খুবই স্বল্প সময়ের জন্য। এই সিনেমায় কারিনার চেয়ে বেশি গুরুত্ব নাকি পেয়েছে পাকিস্তানি শিশুটি। এর আগে অবশ্য ২০১১ সালে কারিনার বিপরীতেই সালমান খানের ‘বডিগার্ড’ দারুণ ব্যবসাসফল হয়েছিল।
প্রায় প্রতি বছরই ঈদে সালমানের সিনেমা মুক্তি পেয়ে আসছে এবং এর প্রত্যকেটি সিনেমাই হয়েছে ব্লকবাস্টার হিট। এর আগে ‘ওয়ান্টেড’ (২০০৯), ‘দাবাং’ (২০১০), ‘বডিগার্ড’(২০১১), ‘এক থা টাইগার’ (২০১২) এবং ‘কিক’ (২০১৪) ঈদে মুক্তি পেয়েছে। গত বছর মুক্তি পাওয়া ‘কিক’ সিনেমা তো ৩০০ কোটি রুপিরও বেশি আয় করেছে। আর এবার কবীর খান নির্মিত ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’ ৩০০ কোটি রুপির মাইলফলক কত দ্রুত স্পর্শ করেন তাই দেখার অপেক্ষা।