Entertainment Image

বলিউড নায়িকাদের প্রেমে আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন



আগে শোনা যেত আন্ডারওয়ার্ল্ড ছাড়া নাকি বলিউড চলতে পারে না। কোন নায়িকা যদি বলিউডে প্রবেশ করতে চায় তাহলে নাকি অন্ধকারজগতের বাদশাদের অনুমতি লাগে। অথবা তাদের কথা মতো চলতে হয়। তাছাড়া তাদের কথামতো না চললে আসে মৃত্যুর হুমকি। শোনা কথা হলেও সত্যি।বলিউডের সঙ্গে আন্ডারওয়ার্ল্ড অতঃপ্রত ভাবে জড়িত। বলিউডের অনেক নায়িকার প্রেমেই হাবুডুবু খেয়েছেন দাউদ ইব্রাহিম থেকে আবু সালেম সহ অনেক আন্ডারওয়ার্ল্ড ডনরা। তাতে অবশ্য সাড়াও দিয়েছেন অনেক বলিউড সুন্দরীরা।

হাজি মাস্তান ও সোনা
মুম্বাইয়ের প্রথম তারকা গ্যাংস্টার মাস্তান হায়দার মির্জা ওরফে হাজি আলী।অন্ধকার জগতের পাশাপাশি ছবিও প্রযোজনা করতেন তিনি।মধুবালার খুব বড় ফ্যান ছিলেন। সেকারণে মধুবালার আদলে দেখতে সোনাকে বিয়ে করেন এই গ্যাংস্টার। ‘ওয়ান্স আপন এ টাইম ইন মুম্বাই’ ছবিতে ফুটে উঠেছে হাজি মাস্তানের কাহিনী।

দাউদ ইব্রাহিম ও মান্দাকিনী
গুঞ্জন আছে মান্দাকিনীর সঙ্গে নাকি সম্পর্ক ছিল দাউদের। নব্বইয়ের দশকে একটি ছবি থেকে ছড়ায় এই জল্পনা। যেখানে পাশাপাশি দেখা গিয়েছিল দাউদ ও মান্দাকিনীকে।

দাউদ ইব্রাহিম ও অনিতা
বলিউডে বিভিন্ন ছবি থেকে বিজ্ঞাপনের দুনিয়ায় পরিচিত মুখ পাকিস্তানি মডেল ও নায়িকা অনিতা।গুঞ্জন আছে, মুম্বাইয়ের ডন দাউদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল তার।বই থেকে চলচ্চিত্র সব জায়গায় আছে দাউদের কাহিনী।

আবু সালেম ও মনিকা
আবু সালেমের সঙ্গে প্রণয় সম্পর্ক গড়ে ওঠে মনিকা বেদীর।২০০২ গ্রেফতার হয় আবু সালেম ও মনিকা।

বিক্রম গোস্বামী ও মমতা
অন্ধকার জগতের সঙ্গে মমতার বেশ ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। প্রথমে মুম্বাইয়ের ডন ছোটা চেতনের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠে তার। পরে ড্রাগ পাচারকারী বিক্রম গোস্বামী সঙ্গে বিয়ে করেন এই নায়িকা। কিছুদিন আগে মাদক পাচারের অভিযোগে স্বামী বিক্রম গোস্বামী সহ কেনিয়ায় গ্রেফতার হন নব্বইয়ের দশকের এই অভিনেত্রী।