Beauty Image

ঘরোয়া উপায়ে দূর করুন মুখের বড় বড় রোমকূপ



আমরা ত্বকের বিশেষ করে মুখের ত্বকের পরিচর্যা করে যত ভালো করার চেষ্টাই করিনা কেন যদি মুখের রোমকূপ বড় থাকে তাহলে তা মুখের খুঁতকে আরো স্পষ্ট করে তোলে। বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে এবং যাদের ত্বক তৈলাক্ত তাদের মুখের রোমকূপ গুলো বড় হতে থাকে। ত্বকের এই বড় রোমকূপ সমস্যা সমাধানের বিভিন্ন ধরনের উপায় রয়েছে। তবে বাণিজ্যিক উপায়ের চেয়ে ঘরোয়া সমাধান গুলো সাধারণত গুণগত মান ও খরচের দিক থেকে ভালো হয়ে থাকে। এই সমস্যা নারী ও পুরুষ উভয়েরই হতে পারে।

এখানে কিছু প্রাকৃতিক সমাধানের কথা উল্লেখ করা হলো-

মেয়োনেজ
মেয়োনেজ এর মাঝে থাকা ভিনেগার এবং ডিম ত্বকের রোমকূপের আকৃতি সংকোচন করতে এবং ত্বককে টান টান করতে সাহায্য করে। এক টেবিল চামচ মেয়োনেজ মুখে মেখে ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন মুখ। নিয়মিত করলে ভালো ফলাফল পাবেন। তবে যাদের ত্বক তৈলাক্ত তাদের জন্য এটা উপযুক্ত নয়।

কাঠ বাদামের মাস্ক
১/৩ কাপ কাঠবাদাম নিয়ে গ্রাইন্ডারে গুঁড়ো করে তাতে পানি মিশিয়ে পেস্ট বানাতে হবে। তারপর সেটা নাক থেকে লাগানো শুরু করে যেখানে যেখানে দৃশ্যমান রোমকূপ আছে সেখানে লাগিয়ে রেখে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর কুসুম গরম পানিতে মুখ ধুয়ে নিন। ভাল ফলাফল পেতে সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করুন।

মাঠা
ত্বকের যত্নে একটি পুরাতন উপকরণ হচ্ছে মাঠা যা খোলা রোমকূপের আকৃতি ছোট করতে সাহায্য করে। রাতে মুখ ভালো করে ধুয়ে নিয়ে একটি তুলা্র বলে মাঠা ভিজিয়ে সারা মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট রাখুন। রাতপর ঠাণ্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে নিন।

লেবুর রস
ত্বকের জন্য লেবুর রসের উপকারিতার কথা সবাই জানি। সামান্য লেবুর রস পানির সাথে মিশিয়ে তাতে তুলার বল ভিজিয়ে মুখে মেখে আধা ঘণ্টা রেখে ঠাণ্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে নিন। খেয়াল রাখতে হবে যেন চোখে না লাগে।

মুলতানি মাটি
সপ্তাহে একদিন মুলতানি মাটির মাস্ক মুখে লাগালে রোমকূপ থেকে তেল ও ময়লা বের হয়ে তা পরিষ্কার হবে এবং রোমকূপের আকৃতি ছোট করে অতিরিক্ত তেল শোষণ করে।

শশা, আপেল, ডিম এবং দুধের মাস্ক
একটি ডিমের সাদা অংশের সাথে ১ টেবিল চামচ গুঁড়ো দুধ মিশিয়ে ব্লেন্ড করুন যতক্ষন না ফোম হয়। এবার এর সাথে যোগ করুন শশা এবং আপেলের টুকরো এবং আবার ব্লেন্ড করে পেস্ট তৈরি করুন এবং মুখে মেখে ১৫ মিনিট রাখুন। তারপর কুসুম গরম পানিতে ধুয়ে নিন মুখ।

পাকা পেঁপে
মুখ ভালো করে ধুয়ে এক টুকরো পেঁপে ছিলে নিয়ে মুখে আলতো ভাবে ঘষুন। এভাবে ১৫ মিনিট রাখার পর কুসুম গরম পানিতে মুখ ধুয়ে নিন। এটি ব্যবহারের ফলে মুখে ব্রন থাকলেও তার পরিমান কমবে।

ফেসিয়াল ক্রিম ও লেবুর রস
একটি পাত্রে ফেসিয়াল ক্রিমের সাথে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে মাস্কের মত মুখে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট রেখে কুসুম গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

দই, মধু, আপেল ও লেবুর রস
এই মাস্ক রাতে শোবার আগে ব্যবহার করার জন্য উত্তম। মিহি কুচি আপেলের সাথে ১ টেবিল চামচ দই, এক টেবিল চামচ মধু এবং কিছুটা লেবুর রস খুব ভালো করে মিশিয়ে যতটুকু সম্ভব মসৃণ করে পেস্ট বানাতে হবে। তারপর মিশ্রণটি ১৫-২০ মিনিট মুখে লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই মাস্কটি মুখের ত্বককে মসৃণও করতে সাহায্য করে।