"স্বাস্থ্য" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

ডাঃ এন এইচ সার্জা

৫ বছর আগে লিখেছেন

চা সেবনে কিডনীতে পাথর

কিডনীর পাথর রোগটা আমাদের দেশে আগের থেকে অনেক বেড়ে গেছে, আর রেনাল স্টোনের রোগের ব্যপারে আমরা সবাই কম বেশি জানি। প্রধানত কিডনীর ডাক্ট সিস্টেম-এ পাথর হওয়াকেই আমরা রেনাল স্টোন ডিজিস বলি। এই রোগ হওয়ার পেছনে বিভিন্ন কারন দায়ী এবং বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এর কারন মাল্টিফ্যাক্টোরিয়াল। 
এবার চলে আসি আজকের আলোচ্য কথায়, আমাদের প্রায় সবারই অতি পছন্দের পানীয় – চা। জ্বী, চায়ের যেমন হাজারো গুণাবলী রয়েছে, তেমনি অতিরিক্ত চা সেবনে আছে বড় মাত্রার ঝুঁকিও, সেটা হচ্ছে রেনাল স্টোন! 
এর পেছনের কালপ্রিট হচ্ছে – অক্সালেট।
বেশির ভাগ চা এর প্রিপারেশান এ-ই অক্সালেট এর মাত্রা বেশি থাকে যা অতিরিক্ত মাত্রায় সেবন করা শরীরের জন্য... continue reading

৭২৬

ডাঃ এন এইচ সার্জা

৫ বছর আগে লিখেছেন

প্রস্রাবের সাথে রক্ত যাওয়া - সচেতনতা ও সাবধানতা

প্রস্রাবের সাথে রক্ত যাওয়াটাকে মোটেও সাধারন ভাবে ছোটো কিছু ভাবার কারন নেই, কেননা এর বড় একটা কারন ইউরিনারি ট্রাক্ট ইনফেকশান (মূত্রনালীতে ইনফেকশান) হলেও এর আরেকটা কারন হচ্ছে ইউরিনারি ক্যান্সার। ( কিডনী বা ইউরিনারি ব্লাডার(মুত্রথলি)-এ ক্যান্সার)
কথা হচ্ছে কেউই প্রস্রাবের সাথে রক্ত যাওয়াকে মোটেও স্বাভাবিক ভাবে নেয়না বরং খুবই শংকিত হয়ে ওঠে এবং অতি সত্ত্বর কিছু করতে চায়, যত দ্রুত সম্ভব চিকিৎসকের (ইউরোলোজিস্ট) শরনাপন্ন হওয়ার চেষ্টা করে।
অনেকে আবার ভেবেই বসে যে তার কিডনীই হয়তো নষ্ট হয়ে গেছে ... না পারত পক্ষে ব্যপারটা এমন কিছু নয়। প্রস্রাবের সাথে রক্ত তখনই যায় যখন ইউরিনারি ট্রাক্ট–এ কোথাও ইনফেকশান হয়, বা পাথর হয়ে সেটা... continue reading

৪৪৬

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর প্লাস্টিক বোতলজাত পানীয় থেকে সাবধান!!

গত বছর ডিসেম্বরে প্লাস্টিক বোতল উৎপাদন ও ব্যবহার, পুনরায় ব্যবহার করে পানি, কোমল পানীয় ও ওষুধসহ বিভিন্ন খাদ্য দ্রব্য সংরক্ষণ ও বাজারজাতকরণ বন্ধে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। স্বাস্থ্য সচিব, খাদ্য সচিব, আইন সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজি, পরিবেশ অধিদপ্তরের ডিজি, বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের সচিবকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। জনস্বার্থে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আর জে খান রবিনের দায়ের করা রিট আবেদনে বলা হয় প্লাস্টিক বোতলে ব্যবহৃত রাসায়নিক উপাদানকে বিজ্ঞানীরা মানবদেহের জন্য হরমোন বিপর্যয়কারী উপাদান বলেছেন। প্লাস্টিক বোতলে ব্যবহৃত রাসায়নিক উপাদানকে বিজ্ঞানীরা মানবদেহের জন্য হরমোন বিপর্যয়কারী উপাদান বলেছেন। প্লাস্টিক বোতলে ব্যবহৃত উপাদান পানিতে খুব দ্রুত রাসায়নিক বিক্রিয়া সংগঠিত করে। এ... continue reading

৬৪২

দেওয়ান কামরুল হাসান রথি

৫ বছর আগে লিখেছেন

শরীর খানা বিদ্রোহ করেছে

অতিরিক্ত ঠাণ্ডা লাগার ফলে আমার নসিকা দ্বয় বিদ্রোহ প্রকাশ করেছে তাদের একটাই দাবী ঔষধ খেতে হবে না হলে এই জনমে আমার বন্ধ নাক বন্ধই থাকবে আর খুলবে না , এজন্মে মুক্ত বাতাস থেকে বঞ্চিত হতে হবে । আর নাক দুখানা বন্ধ থাকলে আমার কি অবস্থা হবে বুজতে পেড়েছেন , ভাই আমি নাকি সুরে কথা বলতে পারবো না । তারচেয়ে এই ভালো ঔষধ গুলো গিলে ফেলে নসিকা দ্বয়ের সাথে সহমত প্রকাশ করি ।

অতিরিক্ত ল্যাপটপ ব্যাবহারের কারনে চোখ দুখানা ঝাপসা লাগছে তারাও চাচ্ছে আজকে আমি তাড়াতাড়ি তাদের কে ছুটি দিয়ে ঘুমের রাজ্যে চলে যাই নাহলে কালকে তারা... continue reading

৩৫৯

রাজীব নূর খান

৫ বছর আগে লিখেছেন

এলোভেরা বা ঘৃতকুমারী

আমাদের চারপাশে প্রকৃতিতে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা বিভিন্ন গাছ-গাছালি লতাপাতা ফলমূলে রয়েছে অনন্য ভেষজগুণ। যা আধুনিক যুগের অনেক রাসায়নিক প্রক্রিয়ায় তৈরি ওষুধের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি কার্যকর। তেমনিভাবে রয়েছে ঝুলে যাওয়া ত্বক। চোখের তলায় বলিরেখা, নেতিয়ে পড়া বিবর্ণ চুলকে পুরনো লাবণ্য ফিরিয়ে দেয়ার জাদুকরী প্রাকৃতিক শক্তিও লুকিয়ে আছে গাছগাছালি, শিকড়-বাকড়ে।
 
 আমাদের আগের প্রজন্মের নারীরা রূপচর্চা করতেন এসব প্রাকৃতিক ভেষজগুণসম্পন্ন গাছ, লতা-পাতা, ফুল-ফল দিয়ে।এলোভেরা বা ঘৃতকুমারী আমাদের সবারই সুপরিচিত একটি ভেষজ উপাদান।ভেষজ চিকিৎসা শাস্ত্রে এলোভেরার ব্যবহার পাওয়া যায় সেই খৃীষ্টপূর্ব যুগ থেকেই। alovera তখন থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত এলোভেরার অনেক গুণের কথা আবিষ্কৃত হয়েছে। এর মধ্যে ত্বকের দাগ দূর করার ক্ষেত্রে এর... continue reading

৫২৫

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

প্রতিষেধক বিদ্যার জনক, জীবানু গবেষক এডওয়ার্ড অ্যান্থনি জেনার ১৯১তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি

ইংলিশ জীবাণু গবেষক এডওয়ার্ড অ্যান্থনি জেনার। তিনি স্মলপক্সের ভ্যাকসিন উদ্ভাবনের জন্য বিখ্যাত। তাকে 'প্রতিষেধক বিদ্যার জনক' বলা হয়। আজ থেকে ৬০, ৭০ বছর আগেও বসন্ত ছিলো এক মারাত্বক আতঙ্ক। যখন কোনো গ্রামে বসন্ত দেখা দিতো, তা ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করতো, মহামারী আকারে মৃত্যুর কারণ ঘটাতো হাজার হাজার লোকের। বসন্ত রোগে আক্রান্ত হলে খুব কম লোকই বেঁচে উঠতো। যদিও বা কেউ কেউ প্রাণে বাঁচতো, কিন্তু সারা জীবনের জন্য শরীরে বয়ে বেড়াতে হতো সেই মারাত্বক রোগের বীভৎস ক্ষতচিহ্ন। এই কালব্যাধির হাত থেকে যে মহান ব্যক্তি রক্ষা করেছেন পৃথিবীর মানুষকে, তিনি হলেন বিখ্যাত বিজ্ঞানী এডওয়ার্ড অ্যান্থনি জেনার। তিনি সর্বপ্রথম ১৭৯৬ সালে ভ্যাক্সিন... continue reading

৫৩৪

ফেরদৌসা রুহি

৫ বছর আগে লিখেছেন

স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল

গতকাল আমার চোখে সামান্য আঘাত লেগেছিল। কিন্তু সেই আঘাতের কারনে চোখের ডাক্তার আমার এক চোখে ২৪ ঘণ্টার জন্য ব্যান্ডেজ করে দিল। ব্যান্ডেজ করার পর আরেক চোখে সব কিছুই ঝাপসা দেখতে লাগলাম। ডাক্তারকে বললাম ‘’ডাক্তার ভাই আমি তো এক চোখে ভালমতো দেখতে পাচ্ছি না’’। ডাক্তার ভাই বললেন, ‘’আপা এক চোখে যদি সব দেখা যেত তাহলে তো দুই চোখের কোন দরকার ছিল না’’।
 
ডাক্তারের এখান থেকে বের হয়ে এলাম আমার ছেলের কোচিং সেন্টারে। সেখানে ভাবিদের প্রশ্ন ‘’আপা কি হয়েছে, কিভাবে হল, আরও কত কি’’। সেখান থেকে বাসায় ফেরার পথে পরিচিত যেই দেখে তাদেরও এই একই কথা।সবার উত্তর দিয়ে বাসায় এসে আপনজনদের ফোনে জানালাম আমার... continue reading

২১ ৫২৬

ডাঃ এন এইচ সার্জা

৫ বছর আগে লিখেছেন

পিত্তথলিতে পাথর থাকা সত্ত্বেও যদি অপারেশান না করা হয় তবে কি হতে পারে?

‘পিত্তথলিতে পাথর‘ -  টার্মের সাথে আমরা সবাই কম বেশি পরিচিত। যাকে ইংলিশ এ আমরা বলি Gall Stone (Stone in gall bladder) আর চিকিৎসকের ভাষায় বলি Cholelithiasis.
নামের মাধ্যমেই বোঝা যায় যে পিত্তথলিতে পাথর হওয়াকেই গলস্টোন ডিজিজ বা কোলেলিথিএসিস বলে।
 
{ পিত্তথলি আমাদের যকৃত (লিভার) এর নিচের দিকে থাকে যেখানে পিত্ত (বাইল) এসে জমা থাকে এবং পিত্তথলিতে থাকার সময়কালে পিত্তরস তথা বাইলের কিছু পরিবর্তন সাধিত হয়। যখন আমরা চর্বিজাতীয় খাবার খাই তখন সেটা ডাইজেশানের (পরিপাকের) জন্য পিত্তথলি থেকে বাইল বেরিয়ে আমাদের খাদ্যনালীতে আসে।}
 
এবার সরাসরি পিত্তথলিতে পাথর-এ চলে আসি। কিভাবে বা কেনো এই পাথর হতে পারে সেটা নিয়ে পরবর্তিতে আলোচনা করবো।
 
পিত্তথলিতে পাথর হলে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই (প্রায় ৮৫% ক্ষেত্রেই) সেটা... continue reading

২০ ৩৮২২

ডাঃ এন এইচ সার্জা

৫ বছর আগে লিখেছেন

গ্যাস্ট্রিক ও হার্ট বার্ন - প্রতিকার, প্রতিরোধ!

পেটের উপরিভাগেসারাদিন অল্প অল্প করেব্যথা থেকে শুরু করে হঠাৎ তীব্র ব্যথা আর বদহজম বা আহার পরবর্তি ব্যথা - সবই সাধারন টার্মে আমাদের কাছে গ্যাস্টিক এর ব্যথা হিসেবে পরিচিত।
মেডিকেল টার্মে অবশ্য ব্যাপারটাকে পেপ্টিক/ গ্যাস্টিক আলসার এবং ডিওডেনাল আলসার হিসেবে প্রকাশ করা হয়।
আর সহজে বলতে গেলে, পাকস্থলিতে (স্টমাক-এ) বা ডিওডেনাম -এ আলসার তথা ক্ষত সৃষ্টি হওয়ার জন্য রোগকে আমরা সাধারন মানুষেরা গ্যস্ট্রিক এর সমস্যা বলে অভিহিত করি।
কেনো হয়?
প্রধানত স্টমাক এ অতিরিক্ত এসিডিটি হওয়ার জন্যই এই সমস্যা দেখা দেয়।অতিরিক্ত এসিডিটি হলে পাকস্থলী-র মিউকোসার বেরিয়ার নষ্ট হয়ে যায়, ফলে মিউকোসা লেয়ার এসিডের সংস্পর্শে আসে এবং আলসারেশান হয়। আর হেলিকোব্যাকটার পাইলোরি নামক ব্যাকটেরিয়ার প্রভাবে ও এই রোগ হয়,... continue reading

১৫ ৮৩৯

ডাঃ এন এইচ সার্জা

৫ বছর আগে লিখেছেন

ক্রোধ নিবারনে আমরা দীর্ঘশ্বাস নেয়ার কথা বলি, কিন্তু কেনো? কিভাবেই বা কাজ করে?

এই পোস্টের প্রাক কথা –
ক্রোধ বা রাগ – এধরনের টপিকস এ লেখার প্লান ছিলোনা, বরং কিডনীতে পাথর নিয়ে একটা টপিকস এ লিখবো ভাবছিলাম, কিন্তু সাম্প্রতিক সামাজিক অবস্থা বিবেচনা করে মনে হলো আপাতত এটাই বেশি জরুরি!
 
আমাদের প্রাত্যহিক জীবনের বড় অংশ জুড়ে যেমন রয়েছে আনন্দ, ঠিক তেমনি একটা অংশ দখল করে রাখেবেদনা এবং ক্রোধের মত দুঃখজনক ব্যপার! আর আমাদের সবার জীবনেই এই ক্রোধ রিলেটেড নানা ধরনের বিপত্তির গল্পের কোনো অভাবও নেই।
সত্য বলতে যা খারাপ তার ফল কখনোই ভালো কিছু হতে পারে না!
আমরা অনেকেই শুনেছি যে ক্রোধ নিরারনে দীর্ঘশ্বাস নেয়াটা বেশ কার্যকরি, এবং কেউ যদি এটা চেষ্টা করে থাকেন, তবে কিছুটা... continue reading

১০ ৫০৫