"স্বাস্থ্য" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

ডাক্তার দ্যা বৈজ্ঞানিক

৫ বছর আগে লিখেছেন

গরম পানি পানের অবিশ্বাস্য ১২টি উপকারিতা

গরম পানি পানের
অবিশ্বাস্য ১২টি উপকারিতা:
১. ওজন কমবে গরম পানি শরীরের বিপাক ক্রিয়া খুব ভালভাবে সম্পন্ন করে। যার ফলে বাড়তি মেদ কমবে। তবে আরো বেশি কাজ দিবে যদি সকালে খালি পেটে গরম পানির সাথে লেবু মিশ্রিত করে পান করেন। এটা বডি ফ্যাট ভাঙতে সাহায্য করবে।
২. গলা ও নাসারন্দ্রের মধ্যে সমন্বয় সাধন করবে ঠাণ্ডা লাগা, কফ জমে যাওয়া এবং গলা ব্যাথায় গরম পানি খুব কার্যকর ভূমিকা রাখে। এটা কফ তরল করে বের করে দেয়। গলা ব্যথা কমায়। এছাড়া নাসারন্দ্রের পথ পরিষ্কার রাখে।
৩. মাসিক বাধা দূর করে গরম পানি মেয়েদের মাসিকের সমস্যা দূর করতে ভূমিকা রাখে। এটা পেটের পেশীকে শান্ত ও কোমল করে। যার ফলে মাসিকের সমস্যা দূর হয়।
৪. শরীরের বর্জ্য বের করে দেয় গরম পানি পান করলে শরীরের তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করে। ফলে ঘাম ঝরবে। ঘামের সাথেই শরীরের অনেক ধরনের... continue reading

১৭২৬

ডাক্তার দ্যা বৈজ্ঞানিক

৫ বছর আগে লিখেছেন

গরুর গোশত সম্বন্ধে জরুরি কিছু তথ্য

আমরা মোটামোটি সবাই জানি যে গরুর মাংস একটি ক্ষতিকর খাবার যা এড়িয়ে চলা উচিত। কারণ এটি কোলেস্টেরল বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। কিন্তু সত্যি কথা হলো যে, গরুর মাংসের অনেক উপকারী দিকও আছে। পরিমিত পরিমাণে সঠিক ভাবে খেলে এর থেকে যেই পরিমাণ পুষ্টি পাওয়া যায় তা সমপরিমাণ অন্য কিছু থেকে পাওয়া কঠিন। তাহলে কেন আমরা সঠিক উপায়ে খাওয়ার কথা চিন্তা না করে একে সম্পূর্ণ বর্জন করে এর খাদ্যগুন থেকে নিজেদের বঞ্চিত করবো?
>কি পরিমাণ খাওয়া উচিতঃ
দৈনিক গরুর মাংস খাওয়ার নিরাপদ মাত্রা হলো, ৩ আউন্স বা ৮৫ গ্রাম। আনুমানিক একটা কম্পিউটারের মাউস বা একটি তাসের বান্ডিলের সমান টুকরাতে এই পরিমাণ মাংস পাবেন।
>চর্বি ছাড়া... continue reading

১১১৯

পাশা নূর

৫ বছর আগে লিখেছেন

ভ্রমণ : সঙ্গে নিন প্রয়োজনীয় ওষুধ

 ভ্রমণে হাতের কাছে কিছু সাধারণ ওষুধ রাখা ও এর সঠিক ব্যবহার জানা অত্যন্ত জরুরি।
আসুন জেনে নিই কিছু সাধারণ রোগের ওষুধের নাম ও এর ব্যবহার-
* জ্বর, মাথাব্যথা, শরীর ব্যথার জন্য প্যারাসিটাল-৫০০ মি.গ্রা. (ডোজ : ১টা করে দৈনিক ৩ বার)
* পেটে গ্যাস, পেট ফাঁপা, বুক জ্বালার জন্য অ্যান্টাসিড (ডোজ : ১টা করে দৈনিক ৩-৪ বার)
* পেপটিক আলসারজনিত সমস্যার জন্য রেনিটিডিন বা ওমিপ্রাজোল (ডোজ : ১টা করে দৈনিক ২ বার)
* পেট খারাপের জন্য ওরস্যালাইন ও মেট্রোনিডাজল ৪০০ মি.গ্রা. (ডোজ : ১টা করে দৈনিক ৩ বার)
* বমি ও বদহজমের জন্য ডমপেরিডন (ডোজ : একটা করে দৈনিক ৩ বার)
* সর্দি-ঠা-ার... continue reading

৬৩৯

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

আজ ১৬ অক্টোবর, ৩৪তম বিশ্ব খাদ্য দিবসঃ ‘পারিবারিক কৃষি: প্রকৃতির সুরক্ষা, সবার জন্য খাদ্য’ এবারের প্রতিপাদ্য

আজ ১৬ অক্টোবর, ৩৪তম বিশ্ব খাদ্য দিবস। একটি দেশের নাগরিকগণের মৌলিক চাহিদাগুলোর মধ্যে খাদ্য অন্যতম। সারা বিশ্বের মানুষের প্রয়োজনীয় খাদ্যের নিরাপত্তা, দরিদ্রতা ও পুষ্টিহীনতা দূর করে ক্ষুধামুক্ত পৃথিবী গড়ার অঙ্গিকার নিয়ে ১৯৪৫ সনের ১৬ অক্টোবর জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৭৯ সালে বিশ্ব খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (FAO) ২০তম সাধারণ সভায় হাঙ্গেরির তৎকালীন খাদ্য ও কৃষি মন্ত্রী ড. প্যাল রোমানী বিশ্বব্যাপী এই দিনটি উদযাপনের প্রস্তাব উত্থাপন করেন। এরপর ১৯৮১ সনে প্রথম আনুষ্ঠানিকতা আর প্রতিপাদ্যভিত্তিক বিশ্ব খাদ্য দিবসের উদযাপন শুরু হয়। বিশ্ব খাদ্য দিবস উপলক্ষে ১৯৮১ সালের ৩১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ডাক বিভাগ ৫০ পয়সা মূল্যমানের একটি ডাকটিকেট অবমুক্ত... continue reading

৪৫৮

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

চিকিৎসা বিজ্ঞানের অন্যতম পথিকৃৎ ডা.জোহরা বেগম কাজীর ১০২তম জন্মবার্ষিকীতে ফুলেল শুভেচ্ছা

ফ্লোরেন্স নাইটিংগেল অব ঢাকা খ্যাত বাংলাদেশের চিকিৎসা বিজ্ঞানের অন্যতম পথিকৃৎ, স্ত্রীরোগ ও ধাত্রীবিদ্যায় বিশেষজ্ঞ অধ্যাপিকা ডা. জোহরা বেগম কাজী। এদেশের বাঙালি মুসলিমদের মাঝে তিনিই সর্বপ্রথম মহিলা চিকিৎসক। তার পুরো জীবনই ছিল আর্তমানবতার সেবায় নিবেদিত। তিনি যখন চিকিৎসক হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেন তখন মেয়েরা নানা রকম অজ্ঞতা আর কুসংস্কারের শিকার ছিল। অসুস্থ মেয়েরা চিকিৎসকের কাছে না যেয়ে স্বেচ্ছায় মৃত্যুকে বরণ করে নিত। কারণ তাদের ধারণা চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার চেয়ে মৃত্যুই ভাল। তখন অপচিকিত্‍সা আর বিনা চিকিৎসায় মারা যেত মেয়েরা। মেয়েদের অধিকাংশ রোগকে জিন-ভূতের আছর বলে মনে করত সবাই। সেসময় মেয়েরা মনে করত বাড়ির বাইরে গিয়ে চিকিৎসা করালে মেয়েদের ইজ্জত থাকেনা। একারণে মেয়েরা... continue reading

৪৯১

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

কোমল পানীয় কেন খাবেন না?

দৈনিক আমাদের সময়
বৃহস্পতিবার, ঢাকা, ৯ অক্টোবর ২০১৪,
২৪ আশ্বিন ১৪২১, বর্ষ ১০, সংখ্যা ১৭৭
পৃষ্ঠাঃ ০৮, আয়ু পরমায়ূ পাতা continue reading

৪৩৩

ম. গ. রেজওয়ান

৫ বছর আগে লিখেছেন

অতিরিক্ত পর্নোগ্রাফি দেখার কুফল !

অতিরিক্ত পর্নোগ্রাফি মস্তিষ্কের জন্য ক্ষতিকর। একটি জার্মান সমীক্ষায় উঠে এসেছে এমনই তথ্য। জিমি সাইকিয়াট্রিতে প্রকাশিত সমীক্ষা বলছে, যাঁরা অতিরিক্ত পর্নোগ্রাফি দেখতে অভ্যস্ত তাঁদের মস্তিষ্কে ধূসর বস্তু অপেক্ষাকৃত কম পরিমানে পাওয়া গেছে। গঠনমূলক কাজ করার প্রবণতাও কম রয়েছে তাঁদের।
সমীক্ষা বলছে পর্নোগ্রাফি দেখার সঙ্গে মস্তিষ্কের আয়তনের সম্পর্ক রয়েছে। যদিও পর্নোগ্রাফি দেখার ফলে মস্তিষ্কের আয়তন কমে যায় নাকি অপেক্ষাকৃত ছোট মস্তিষ্কের মানুষরাই পর্নোগ্রাফি দেখেন সেই বিষয়ে এখনও নিশ্চিতভাবে কিছু জানা যায়নি। ২১ থেকে ৪৫ বছর বয়স্ক ৬৪ জন পুরুষের ওপর সমীক্ষা চালানো হয়।
দেখা হয় পর্নোগ্রাফিক ছবি দেখে তাঁদের মস্তিষ্কে কী ধরনের প্রতিক্রিয়া হয়, সেইসঙ্গেই তাঁদের মস্তিষ্কের আয়তনেরও পরিমাপ করা... continue reading

৭৮০

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

২৮ সেপ্টেম্বরঃ বিশ্ব জলাতঙ্ক ( World Rabies Day) আজ, প্রতিরোধে চাই সচেতনতা

হাইড্রোফোবিয়া বা জলাতঙ্ক একটি প্রাণঘাতী রোগ। এখন অবশ্য ‘হাইড্রোফোবিয়া’ না বলে ‘Rabies’ বলা হয়। মূলত জলাতঙ্ক র্যাবিস-এর অনেকগুলো লক্ষণের একটি। বাতাসভীতিও এ রোগের একটি লক্ষণ। গ্রীক পুরাণে চার হাজার বছর আগেও জলাতঙ্ক রোগের উল্লেখ পাওয়া যায়। আজ ২৮ সেপ্টেম্বর, বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস ( World Rabies Day)। বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবসে এবারের প্রতিপাদ্য থাকছে Together Against Rabies। রেবিস বা জলাতঙ্ক হচ্ছে ভাইরাস গঠিত একটি রোগ যা সাধারণত কুকুর, শেয়াল, বাদুর প্রভৃতি উষ্ণ রক্তের প্রাণীদের মধ্যে দেখা যায়। এটি এক প্রাণী থেকে আরেক প্রাণীতে পরিবাহিত হতে পারে তার লালা বা রক্তের দ্বারা। জলাতংক রোগ আন্টারটিকা ছাড়াবিশ্বের সব মহাদেশের প্রায় সকল দেশের প্রাণীর মধ্যেই এই... continue reading

৪৫৪

পাশা নূর

৫ বছর আগে লিখেছেন

কেন আপনি এনার্জি ড্রিংকস খাবেন না

 
কারণ আপনি মোটা হতে চান না
মোটা হওয়া মানে শুধু দেখতে খারাপ বা শারীরিক অস্বস্তির ব্যাপারই নয়। ওজন বাড়লে আপনি খুব অনায়াসে যে অসুখগুলোতে আক্রান্ত হবেন তা হলো টাইপ টু ডায়াবেটিস, হাই ব্লাড প্রেশার, স্ট্রোক, হার্ট এটাক, ক্যান্সার, গলব্লাডারে পাথর, আর্থ্রাইটিস। পরিণামে অকাল মৃত্যু। মোটা হওয়ার সঙ্গে সফট ড্রিংকস-এর একটা সরাসরি যোগাযোগ আছে। বোস্টনের শিশু হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগ এবং হার্ভার্ড স্কুল একসাথে গবেষণা করে যা বের করেছে তাহলো, একটি শিশু যদি প্রতিদিন একটা করে বাড়তি সফট ড্রিংকস খায় তাহলে তার ওজন বাড়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায় ৬০%। এক বোতল বা এক ক্যান সফট ড্রিংকসে ক্যালরির পরিমাণ হলো ১৬০ যা ১০... continue reading

৩৩৬

ধ্রুব তারা

৫ বছর আগে লিখেছেন

জিম এর জন্য খাবারের কিছু গুরুত্বপূর্ন নিয়মাবলী

· নরমাল খাবার আগে যা খেতেন তাই খাবেন,কিন্তু পরিমানে একটু বেশি করে।সাস্থ্য বাড়ানোর জন্য জিম করলে তা বিকালে করা ভালো(দুপুরের খাবার খাওয়ার ২/৩ ঘন্টা পর)।কারন তখন খাবার গুলো গ্লুকোজ হয়ে যায়,ফলে জিম এর সময় এনার্জি বডি থেকে না টেনে খাবার থেকে টানে।বডি থেকে এনার্জি গেলে কিন্তু ওই পরিমার খাবার বডি না পেলে উলটা সাস্থ্য কমে অসুস্থ্য হয়ে যেতে পারেন।
· রোজ দুইটা ডিম খাবেন(জিম শেষ করার এক ঘন্টার ভিতরে),কারন ওই টাইমএ বডি খাবার চায়।
· পানি খাওয়া বাড়ায় দিবেন,নাহলে অতিরিক্ত ঘাম ঝরার কারনে জন্ডিস হয়ে যাবে।
· নতুন কেউ জিম এ ভর্তি হলে একটা বেপার ঘটে,অনেক উপদেষ্টা আসে,তারা সাপ্লিমেন্ট(হাই প্রটিন) নিতে বলে তাড়াতাড়ি বডি বাড়াইতে।ওদের প্রধান কাজ... continue reading

১৬৮৪