Site maintenance is running; thus you cannot login or sign up! We'll be back soon.

"সমসাময়িক" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

কৃষ্ণেন্দু দাস

২ বছর আগে লিখেছেন

“নারীবাদ- জিন্দাবাদ”

 
শুধুমাত্র “নারীর ক্ষমতায়ন” কথাটা বলে বলে চায়ের কাপে ধোঁয়া তুলে আর অসংখ্য সভা-সেমিনারে হাত-পা ছুড়ে চিৎকার করে গলা ফাটালে অদৌ কিছুই হবেনা। প্রথমে দেখতে হবে, “নারীর ক্ষমতায়ন” বিষয়ে একজন নারী নিজে কতটা সচেতন? ছোটবেলা থেকে একটি কথা শুনে শুনে মাথাটা ধরে গেছে, তা হল- পুরুষ শাসিত সমাজ ব্যবস্থায় নারী চিরকাল অবহেলিতা আর নির্যাতিতা। একটি বার একটু ঠান্ডা মাথায় চিন্তা করে দেখা যাক, এই ধারাবাহিকতায় একজন পুরুষ আসলে কতটা দ্বায়ী?
একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে (এখানে আমি শুধুমাত্র আমাদের দেশ অর্থাৎ বাংলাদেশের কথা বলছি। এরমাঝে বিশ্বের অন্যান্য দেশের সমাজ ব্যবস্থার কথা ভেবে ভুল করবেন না।) আমাদের দেশের ৯৫ শতাংশ গর্ভবতী নারীই... continue reading

৩৮৭

লিপু রহমান

২ বছর আগে লিখেছেন

জনতা পাঠাগার

জনতা পাঠাগার
একটি অলাভ জনক সৃজনশীল প্রতিষ্ঠান
লিপু রহমান
 
ব্যক্তিগত যোগাযোগের জন্য,প্রাতিষ্ঠানিক যোগাযোগের জন্য ইন্টারনেট এখন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। প্রিন্ট মিডিয়ার বদলে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ইলেকট্রিক মিডিয়া। মানুষ এখন যে কোন তথ্যের ব্যাপারে ইন্টারনেটের উপর নির্ভর করে। ঠিক এই সময়ে কিছু লক্ষ্যকে সামনে রেখে গড়ে উঠেছে জনতা পাঠাগার। কারণ বই হলো সমস্ত জ্ঞানের ভাণ্ডার। সৃজনশীলতার ভাণ্ডার। বই-ই পারে মানুষকে সমস্ত জালা যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দিতে। বই-ই পারে নিঃসঙ্গতাকে দূরে রাখতে। বই-ই পারে সমস্ত নেশার জগত থেকে মুক্তি দিতে। আমাদের দেশের মতো উন্নয়নশীল দেশে একজন মানুষের পক্ষে সকল বই ক্রয় করে জ্ঞানার্জন করা সম্ভব নয়। তাই তো... continue reading

৩৩৩

আহমেদ ইসমাঈল

২ বছর আগে লিখেছেন

জানেন তো, ঔষুধ ছাড়াও হাই ব্লাড প্রেসার কন্ট্রোল করা যায়

প্রেসার মাপার যন্ত্র হাতে বসে থাকা ডাক্তার আর তার সামনে দুরু দুরু বুক নিয়ে বসে আছেন আপনি। আপনার কপালে হয়তোবা সুক্ষ্ন রেখার মত কিছুটা ঘাম। সামনে বসা ব্যাক্তিটি নিবিড় মনোযোগের সাথে তার যন্ত্রটির প্রেসার নির্ণায়ক কাটাটির দিকে লক্ষ্য রাখছেন। সেই সাথে চেষ্টা করছেন তার স্টেথিসকোপে কিছু শোনার। এক সময় তার কাজ শেষ হলো। সাথে সাথেই আপনার প্রশ্ন, ডাক্তার সাহেব প্রেসারের অবস্থা কি? আগের মতোই নাকি কিছুটা বেড়েছে? গম্ভীর মুখে তিনি জবাব দিলেন, না তেমন কিছুনা। সামান্য বেশি (*১)। ব্যাস। শুরু হলো আপনার টেনশন। বাড়ছে প্রেসার। মানে হৃদপিন্ড থেকে সারা শরীরের দূর থেকে দূরতর প্রান্তে সরু সরু নালীকার ভেতরে দিয়ে... continue reading

৩৯৫

শাহআজিজ

২ বছর আগে লিখেছেন

সৈয়েদ হকের মহা প্রয়ান ।।

আমাদের খেলারাম চলে গেলেন ৮১ টি হেমন্ত পার করে কাশফুলের বাগান পেরিয়ে মহাকালের পথে।  আমাদের যৌবনের খেলারাম আর খেলতে আসবেনা । গতকাল সাড়ে চারটা পর্যন্ত ইউনাইটেডে ছিলাম কিন্ত বুঝতেও পারিনি গুরু ওই হাসপাতালে তখন মৃত্যু দেবের সাথে পাঞ্জা লড়ছে । যাহোক ৮১ টি হেমন্ত কাটিয়ে গেলেন একেবারে কম সময় নয় । নিতুন দার মরদেহ'র কাছেই দীর্ঘ আলাপ সেই ২০০৭ কি ৮ হবে । মুখোমুখি ওই শেষ দেখা । বিদায় কবি বনধু ।
দেখে নেই তার জীবনী । 
নাম : সৈয়দ শামসুল হক জন্ম : ২৭ ডিসেম্বর, ১৯৩৫ মৃত্যু : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ বাবা : সৈয়দ সিদ্দিক হুসাইন মা : হালিমা... continue reading

২২২

সাইয়িদ রফিকুল হক

২ বছর আগে লিখেছেন

‘বাংলার সক্রেটিস’ হুমায়ুন আজাদ স্যারকে কেন হত্যা করা হয়েছে

‘বাংলার সক্রেটিস’ হুমায়ুন আজাদ স্যারকে কেন হত্যা করা হয়েছে
সাইয়িদ রফিকুল হক
(গত ১১ই আগস্ট ছিল ড. হুমায়ুন আজাদ স্যারের ১৩তম মহাপ্রয়াণ-দিবস। স্যারের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলিস্বরূপ লেখাটি প্রকাশিত হয়েছিলো।)
এই দেশে মানুষহত্যাকারী, একাত্তরের রাজাকার, নব্যরাজাকার, দালাল, লম্পট, ভণ্ড, শয়তান, দেশদ্রোহী আর তোষামোদকারী-নরপশুগুলো সহজে মরে না। আর শকুনগুলো তো বেঁচে থাকে অনন্তকাল। আর এদের ভাবসাব দেখে মনে হয়: শকুনগুলো যেন কোনোদিনও মরবে না। কিন্তু হুমায়ুন আজাদরা মরে যান। হুমায়ুন আজাদ স্যারের মতো মানুষেরা বাঁচতে পারেন না। আর তাঁদের বাঁচতে দেওয়া হয় না। আর তাঁদের মেরে ফেলা হয়। কিন্তু কেন?
হুমায়ুন আজাদ স্যারকে কেন বাঁচতে দেওয়া হয়নি—তার কারণগুলো এখানে সংক্ষেপে তুলে ধরা হলো (হুমায়ুন আজাদ... continue reading

৩১২

নিঃসঙ্গ মেষপালক

২ বছর আগে লিখেছেন

ছাতা

আজকাল আকাশের মনের ভাব বোঝা বেশ মুশকিল। এই মাথার পোকা নাড়িয়ে দেয়া রোদ তো এই প্যাচপ্যাচে বৃষ্টি। অবশ্য তাতে গরমের কমতি নেই। বৃষ্টি ভেজা শরীরে প্রাগৈতিহাসিক ঘামের গন্ধ এপাশ ওপাশ নাড়িয়ে চলে যায়। কার শরীর থেকে গন্ধ আসে সেটা বোঝা যায়না। অপেক্ষাকৃত আধুনিক তরুণী পার্স থেকে বের করে পারফিউমটা একটু লাগিয়ে নেয়। কিন্তু তাতে হাজার বছরের পচে যাওয়া গন্ধ থেকে মুক্তি মেলেনা। বাসের হাতলে বাঁদরের মতো ঝুলতে ঝুলতে এইসবই ভাবে শফিকুর। যদিও শফিকুলের বৃষ্টিতে ভিজতে হয়না। বহুকাল আগে প্রেমিকার কিনে দেয়া ছাতাটা সে প্রায় সবসময়ই সাথে রাখে। একটা ডাঁট ভেঙ্গে গেছে তবু প্রেমিকার মায়া ছাপিয়ে ছাতার মায়া বড় হয়ে... continue reading

৩৫২

শাহআজিজ

২ বছর আগে লিখেছেন

আহসান কবির

৩ বছর আগে লিখেছেন

সেতারের নিরাপদ ধুন!

২৩ এপ্রিল ২০১৬। সকাল ৭টা ৩০ মিনিটের কিছু বেশি। শালবাগান বাজারের মোড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস ধরতে হাঁটছিলেন তিনি। হঠাৎ কি তার মনে হয়েছিল সেতারটাকে পরম যত্নে রেখে আসা হয়নি? তার কি মনে হয়েছিল যে একাকী নদীর মতো বিছানায় পড়ে আছে তার প্রিয় সেতার? আমরা কেউ এখনও জানি না হাঁটার সময়ে কেউ তার পথ আগলে দাঁড়িয়েছিল কিনা! কেউ তাকে স্যার বলে সম্বোধন করেছিল কিনা! নাকি পেছন থেকে ঘাতকের চাপাতি তাকে আঘাত করেছিল? তখন কি প্রিয় স্বদেশের মুখটা তার মনে হয়েছিল? মনে হয়েছিল প্রিয়তম স্ত্রী আর ছেলে রিয়াসাত ইমতিয়াজ সৌরভের মুখ? আমরা এসবের কিছুই জানি না। শুধু জানি প্রিয় সেতারের একা পড়ে... continue reading

৩৯৫

বিপুল হাজং

৩ বছর আগে লিখেছেন

চা-শ্রমিকের বন্দিজীবন

কথা ছিলো,‍‍ “পাহাড় ঘেরা দেশে একটা চমৎকার বাগান, যেখানে গাছের পাতাটি খাঁটি সোনার। কেউ যদি ঝাঁকুনি দেয় অমনি ঝরে পড়ে সোনার পাতাগুলো।” বস্তুত, তখন থেকেই শুরু হয়েছিলো পৃথিবীর সব থেকে জনপ্রিয় পানীয় চা-শ্রমিকদের দাসত্বের জীবণ আর তাদের জীবন-বঞ্চনার করুন গাঁথা।
প্রায় পাঁচপুরুষ আগে পূর্বপুরুষের ভিটেমাটি থেকে চলে আসা তাদের জীবন আবদ্ধ হয়ে আছে মধ্যযুগীয় ভূমিদাসদের মতই বাংলাদেশের লেবার লাইনের কুঁড়েঘরে। আদিবাসী ও নিম্ন বর্ণের হিন্দু তথা দলিত সম্প্রদায়ের লোকদের ব্রিটিশ কোম্পানীগুলো ভারতীয় উপমহাদেশের বিভিন্ন প্রদেশ থেকে নিয়ে এসেছিলো সিলেট এলাকার চা-বাগানগুলোতে এক বেদনাময় অভিভাসন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে। জানা যায়, শুরুর কয়েক বছরে ক্লান্তিকর দীর্ঘ যাত্রা, কঠিনতর কর্ম এবং প্রতিকুল... continue reading

৫২৯

শাহআজিজ

৩ বছর আগে লিখেছেন