Site maintenance is running; thus you cannot login or sign up! We'll be back soon.

"সমসাময়িক" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

আহসান কবির

১ বছর আগে লিখেছেন

আকাশ বাড়িয়ে দাও

শ্রদ্ধেয় মুহম্মদ জাফর ইকবাল স্যার
চোখ মেলে কি তাকাতে পারছেন এখন? নাকি ওষুধের ভারে ক্লান্ত আপনার চোখ খোলা সাময়িক বারণ? আচ্ছা, হাসপাতালের বিছানা থেকে মুক্ত আকাশ কতটুকু দেখা যায়? ঘুম আর ব্যথাময় জাগরণের ভেতর আপনার নিজের (প্রথম?) লেখা কি হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে একবারও মনে পড়েনি? একবারও কী বলতে ইচ্ছে হয়নি-আকাশ বাড়িয়ে দাও!
সুনীল গাঙ্গুলী লিখেছিলেন-ভালোবাসার পাশে একটা অসুখ শুয়ে থাকে! ২০১৮ এর ৩ মার্চ যে ঘাতক আপনাকে হত্যা করার চেষ্টা করে, ছবিতে সেই ঘাতককে আপনার পেছনেই দেখা গেছে। তাহলে কী মুক্তপ্রাণ ও মুক্তবুদ্ধির মানুষের পাশেই সমান্তরাল বসে থাকে বিশ্বাসের ভাইরাস আক্রান্ত অন্ধ ঘাতকরা? কাউকে কাউকে চেনা যায় আর ঘাপটি মেরে... continue reading

১৫২

আহসান কবির

১ বছর আগে লিখেছেন

দরকার নেই কম্বলের!

শীত, গরম আর বৃষ্টি নাকি মানব সভ্যতার সমান পুরনো! এই তিন ঋতু আদিকাল থেকে ছিল, আছে ও থাকবে। তাই পুরনো দিনের একটা কৌতুক দিয়ে শীতের শুরুটা করা যায়।
রাজা উজিরের কাছে জানতে চাইলেন— প্রতি রাতে শেয়াল ডাকে কেন? এত বিশ্রিভাবে ডাকলে কি ঘুম আসে? উজিরের উত্তর, ‘রাজা মশাই ওদের শীতের কম্বল নেই।’ তাই প্রত্যেক শেয়ালকে একটি করে কম্বল দেওয়ার নির্দেশ শোনালেন রাজা। বিতরণ শেষে উজির এসে রাজাকে জানালো, শেয়ালদের কম্বল দেওয়া হয়েছে। কিন্তু শেয়ালদের হুক্কাহুয়া তবু থামলো না। তিন-চার দিন পর রাজা খানিক রেগে উজিরের কাছে জানতে চাইলেন, কম্বল তো দেওয়া হলো। এখনও ডাক থামে না কেন? উজিরের উত্তর, ‘কম্বল পেয়ে... continue reading

১১২

নিকুম সাহা

১ বছর আগে লিখেছেন

যে দেশগুলিতে কোনও আয়কর দিতে হয় না

মোনাকো: জিডিপি’র নিরিখে এই দেশ বিশ্বের সবচেয়ে ধনী দেশগুলির মধ্যে একটি। মোনাকোয় বসবাসকারী যে কোনও দেশের নাগরিকের জন্য আয়করে সম্পূর্ণ ছাড় রয়েছে। তবে ১৯৫৭ সালের পর থেকে কোনও ফরাসি নাগরিকদের ক্ষেত্রে এই নিয়মটা ভিন্ন। তাঁদের আয়কর দিতে হয়।
কেম্যান দ্বীপপুঞ্জ: বিশ্বের অন্যতম ধনী সার্বভৌম এই ছোট্ট দেশের নাগরিকদের জন্যও আয়কর ছাড়ের পরিমাণ ১০০ শতাংশ।
সৌদি আরব: এই দেশের অর্থনীতি সম্পূর্ণ তেল ব্যবসার উপর নির্ভরশীল। এ দেশেও নাগরিকদেরও সরকারকে কোনও রকম আয়কর দিতে হয় না।
সংযুক্ত আরব আমিরশাহি: বিশ্বের ধনীতম দেশগুলির মধ্যে অন্যতম হলেও এ দেশের নাগরিকদের কোনও আয়কর দিতে হয় না।
বাহামা দ্বীপপুঞ্জ: এ দেশের ৬০ শতাংশ অর্থনীতি পর্যটনের... continue reading

২৫১

আহসান কবির

১ বছর আগে লিখেছেন

রক্তের দাগ

প্রিয় দীপন,
হয়তো সত্য কথাই লিখেছেন তিনি। নাজিম হিকমতের ভাষাতেই বলা যায় তোর মৃত্যুর পর আরও একবার সূর্যকে প্রদক্ষিণ করেছে পৃথিবী। পৃথিবীটা যেমন ছিল হয়তো তেমনই আছে, শুধু প্রিয় কিছু মানুষের স্মৃতির ডায়েরিতে ছাড়া আর কোথাও তুই নেই দীপন! তোর বাবা আবুল কাশেম ফজলুল হক স্যার পৃথিবীর সবচেয়ে বড় বেদনার জায়গাতে দাঁড়িয়ে বলেছিলেন- আমি এই হত্যার (দীপন হত্যার) বিচার চাই না। আইনের প্রতি আমার শ্রদ্ধা আছে কিন্তু বিশ্বাস কমে গেছে! স্যারের আশঙ্কাই সত্যি হয়েছে। বছর ঘুরলেও তোর হত্যাকারীরা রয়ে গেছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে!
স্মৃতির ডায়েরিটা খুললে তোর সঙ্গে প্রথম দেখা হওয়ার স্মৃতিটা খুব বেশি মনে পড়ে!
নৌ বাহিনীর চাকরি হারানো এই... continue reading

২২৯

আহসান কবির

১ বছর আগে লিখেছেন

‘বালাম’ ও ‘শ্রাবণী’দের দাম বেড়েছে!

শৈশবে পড়া একটি ছড়া আজও মনে আছে। ছড়াটির প্রথম দুই লাইন ছিল এমন, ‘দাদখানি চাল মসুরির ডাল চিনিপাতা দৈ/দুটি পাকা বেল সরিষার তেল ডিমভরা কই।’ শৈশবে বাজারে গিয়ে আমি দাদখানি চাল খুঁজতাম। কোথাও পাওয়া যেত না। একবার এক চালের আড়ৎদার বলেছিল, খোকা এই নামে কোনও চাল নেই। তুমি যারে ‘দাদখানি’ বলছ, সেটা আসলে দাঁতের সমান লম্বা চাল! (দাদখানি নামের ধান আসলেও আছে)। আমি অবাক হয়েছিলাম এই ভেবে যে, দাঁতের নামে কিংবা দাঁতের মাপেও চাল পাওয়া যায়! পরবর্তী সময়ে অবশ্য এই অবাক হওয়ার ব্যাপারটা আর থাকেনি। কারণ, তখন জেনে গেছি, মানুষের নামেও চালের অথবা চালের নামেও মানুষের নামকরণ করা হয়ে থাকে।
নদী,... continue reading

২০৬

সাইয়িদ রফিকুল হক

১ বছর আগে লিখেছেন

রোহিঙ্গানির্যাতন-ইস্যুতে কি বাংলাদেশ ভয়ংকরভাবে অপরাজনীতির ও ষড়যন্ত্রের শিকার হতে যাচ্ছে?

রোহিঙ্গানির্যাতন-ইস্যুতে কি বাংলাদেশ ভয়ংকরভাবে অপরাজনীতির ও ষড়যন্ত্রের শিকার হতে যাচ্ছে?
সাইয়িদ রফিকুল হক
 
রোহিঙ্গা মানেই সবাই ভালোমানুষ নয়—আবার সবাই খারাপও নয়। এরা মুসলমান কিংবা নামধারীমুসলমানও হতে পারে। কিন্তু এদের অনেকেই জঙ্গিতৎপরতার সঙ্গে জড়িত ছিল, আর এখনও আছে। ইতঃপূর্বে দেখা গেছে, তারা নিজেদের শক্তিমত্তারপ্রমাণ দিতে নিরপরাধ বৌদ্ধভিক্ষুদের পর্যন্ত নির্বিচারে হত্যা করেছে, ধর্ষণ করেছে। আর খুনখারাবি, লুটতরাজসহ নানাভাবে অগ্নিসংযোগের মাধ্যমে নিরীহ ও শান্তিপ্রিয় বৌদ্ধসম্প্রদায়ের উপর নির্বিচারে হামলা করেছে।
 
মুসলমানদের মধ্যে কারও-কারও স্বভাব খুব খারাপ। জঙ্গিপনা এদের খুব ভালো লাগে। এরা কোথাও গিয়ে সকলের সঙ্গে মিলেমিশে শান্তিতে বসবাস করতে পারে না। আর এদের কারও কোনো ধর্ম সহ্য হয় না। এরা অন্যকোনো ধর্ম সহ্য করতে... continue reading

১৬০

শাহআজিজ

১ বছর আগে লিখেছেন

যেভাবে এলো আজকের মিয়ানমার: একটি পূর্ণাঙ্গ ইতিহাস

বর্তমান সময়ে প্রতিবেশী যে রাষ্ট্রের দ্বারা বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি চাপের মুখে রয়েছে এবং একইসাথে যে দেশটি অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশের জন্য আরও অগণিত সমস্যা তৈরি করবে সেটি মিয়ানমার। লাখো লাখো রোহিঙ্গা অধিবাসীকে নিজ দেশ ত্যাগ করে বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে বাধ্য করছে সে দেশের সরকার ও সামরিক বাহিনী। এই সমস্যা আজ নতুন নয়। সেই ‘৭০ এর দশক থেকেই রোহিঙ্গাদের উপর অত্যাচার-নির্যাতন চলছে, চলছে বাংলাদেশের সীমান্তে শরণার্থী হয়ে তাদের অনুপ্রবেশ। আর মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, তুরস্কসহ বড় বড় দেশগুলোর তাগাদায় এই উদ্বাস্তু জাতির বাস্তুসংস্থানের একক দায় চেপেছে আজ বাংলাদেশের উপর। চলুন জানা যাক সময়ের সবচেয়ে বড় মূর্তিমান উৎপাত মিয়ানমারের ইতিহাস।
১৯৮৯ সালে দেশটির নাম ইউনিয়ন অব বার্মা... continue reading

৩১৩

সাইয়িদ রফিকুল হক

১ বছর আগে লিখেছেন

রোহিঙ্গা-ইস্যুতে ইসলামের দেশ সৌদিআরব নীরব কেন?

রোহিঙ্গা-ইস্যুতে ইসলামের দেশ সৌদিআরব নীরব কেন?
সাইয়িদ রফিকুল হক
 
বর্তমানে বাংলাদেশে ছোট-বড় প্রায় সবাইকে রোহিঙ্গানির্যাতনের বিষয়ে যথেষ্ট সরব হতে দেখা গেছে। এটি অবশ্যই ইতিবাচক দিক। যেকোনোস্থানে মানবতাবিরোধী-অপরাধ সংঘটিত হলে আমাদের অবশ্যই সরব হতে হবে। আর এখানে, জাতি-ধর্ম-বর্ণ-গোত্র-নির্বিশেষে সকলের প্রতি সমানদৃষ্টি রাখতে হবে। কোনো ধর্মের প্রতি কিংবা কোনো ধর্মের মানুষের বিরুদ্ধে অবিচার ও অনাচার নিঃসন্দেহে গর্হিত ও মানবতাবিরোধী-অপকর্ম। কিন্তু আমাদের বাংলাদেশের বেশিরভাগ ‘হুজুগে মুসলমান’ কোথাও কোনো মুসলমান নির্যাতিত হলে শুধু তাদের পক্ষেই কথা বলতে শুনি। এরা কিন্তু জাতি-ধর্ম-বর্ণ-গোত্র-নির্বিশেষে সকল মানুষকে ভালোবাসতে শেখেনি কিংবা এদের প্রতি সহানুভূতিপ্রদর্শন করতে জানে না। এরা সবসময় সাম্প্রদায়িক দৃষ্টিকোণ থেকে শুধু নিজেদের স্বার্থআদায়ে সচেষ্ট থাকে।
 
সাম্প্রতিককালে... continue reading

১৯১

সাইয়িদ রফিকুল হক

১ বছর আগে লিখেছেন

বছরে শুধু একদিন একটু মা-মা করলেই হবে?

 
বছরে শুধু একদিন একটু মা-মা করলেই হবে?
সাইয়িদ রফিকুল হক
বিশ্বের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সারা বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে ‘বিশ্ব-মা-দিবস’। আমার মনে হয়: শহরের কিছুসংখ্যক মানুষ শুধু এই দিনটির কথা শুনেছে। আর বাকীরা এখনও এই বিষয়ে অজ্ঞ। আর গ্রামেগঞ্জের কথা তো বাদই দিলাম—সেখানে মা-দিবস উদযাপিত হয়েছে কিনা আমার জানা নাই। বিশ্ব-মা-দিবসের উদ্দেশ্য নিঃসন্দেহে মহৎ।
আমরা আজকাল মায়ের এমনই অধম সন্তানসন্ততি হয়েছি যে, আমাদের এখন দিবস গুনে-গুনে একদিন মাকে ভালোবাসতে হবে! নাকি এই একদিনের মতো সারাবছর মাকে ভালোবাসতে হবে? আশা করি বুদ্ধিমান মাত্রই তা অনায়াসে বুঝতে পারবেন।
প্রতিবছর মে-মাসের দ্বিতীয় রবিবার সারাবিশ্বে ‘বিশ্ব-মা-দিবস’ পালিত হয়। এর ঢেউ আজ বাংলাদেশেও... continue reading

৪৬১

সাইয়িদ রফিকুল হক

২ বছর আগে লিখেছেন

পহেলা বৈশাখের বিরুদ্ধে মুসলমান-নামধারী একশ্রেণীর নরপশুদের জঘন্য অপপ্রচারের কতিপয় নমুনা

পহেলা বৈশাখের বিরুদ্ধে মুসলমান-নামধারী একশ্রেণীর নরপশুদের জঘন্য অপপ্রচারের কতিপয় নমুনা
সাইয়িদ রফিকুল হক
নরপশুদের ধর্ম একটাই—আর তা হলো—শয়তানী আর শয়তানী। এইদেশে সবসময় দেশবিরোধী শয়তানী করার জন্য প্রস্তুত রয়েছে একটি চিহ্নিত-দেশবিরোধীচক্র। আর এই দেশবিরোধীচক্রই হচ্ছে মুসলমান-নামধারী একশ্রেণীর নরপশু। এরা বাংলাদেশরাষ্ট্রের জন্মপূর্ব, জন্মলগ্ন ও জন্মপর থেকে যে শয়তানী ও বদমাইশী শুরু করেছিলো—আর পাকিস্তানীপশুগোষ্ঠীর পক্ষাবলম্বন করে যে-ভাবে আত্মঘাতী হয়েছিলো—এদের সেই অপতৎপরতা এখনও অব্যাহত রয়েছে। এই চিহ্নিত-পশুগোষ্ঠীটি আজও আমাদের প্রাণের বাংলাভাষা, বাংলাসংস্কৃতি, বাঙালির কৃষ্টি-কালচারসহ বাংলাদেশরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত পরিচালনা করতে বিন্দুমাত্র দ্বিধাবোধ করছে না।
বাংলা নববর্ষ বাঙালি-জাতির জীবনে একটি সার্বজনীন আনন্দ-উৎসবের দিন। তাই, দেশের সর্বস্তরের মানুষ পহেলা বৈশাখে আনন্দে মেতে ওঠে। কিন্তু এই... continue reading

৩৩০