"শিশুতোষ ছড়া" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

চারু মান্নান

৫ বছর আগে লিখেছেন

লাল ফড়িং এর ডানায় ভুতু সোনা

কাল বৈশাখী
ধুলো উড়ে নাইরে জল
নদীর বুকে চর,
খেয়া মাঝির শুকনা ঘাটে
নৌকা মর মর।
যে দিকে চোখ যায়
ধু ধু বালুচর
চিক চিক করে বালু
উড়ে কবুতর।
কালবোশেখির বাউরি বাতাস
ঈশান কোণে মেঘ,
দমকা হাওয়ায় ঝড়ের তান্ডব
বসতবাড়ি ভেঙ্গে ক্ষত।
১৪২১@২৪ বৈশাখ, গ্রীষ্মকাল।
continue reading

৪৪৭

চারু মান্নান

৫ বছর আগে লিখেছেন

লাল ফড়িং এর ডানায় ভুতু সোনা

ভুতু সোনার ভূতের গপ্পো
ভুতু সোনার ভূতের গপ্পো
স্বপ্ন ডানা বুনে,
ভয় আর রোমাঞ্চ গাঁথা
আয়েশ করে শোনে।
জ্বীন পরীদের গপ্পো পেলে
এদিক ওদিক চায়,
আসল না নাকি ভুতুর ঘরে?
কান পেতে রয়।
তবুও ভুতু কার্টুন দ্যাখে
অ্যাডভেনচার আঁকে মনে,
মেঘে ভাসে রূপকথার জলপরী
কার্টুন দেখায় মজে।
১৪২১@২০ বৈশাখ, গ্রীষ্মকাল।
continue reading

৬৭৬

ছড়াবাজ

৫ বছর আগে লিখেছেন

বোকা বকা

বাজ পড়েছে রাতের বেলা,
বললো যবে খোকা,
গেলেন রেগে মজনু মিয়া,
"রে বদমাশ বোকা"!
জানিস নে তুই শব্দে বাজের,
ঘুম হয় না মোর,
ডাকলি না ক্যান? জেনেও সেটা,
সাহস কত তোর!
গেলাম বেঁচে স্বস্তি ভেবে,
ফু দেয় নিজ বুকে,
এবার তবে একটু ঘুমাই,
দিনের বেলায় সুখে!
===
০৬-মে-২০১৪
continue reading

৩৪০

চারু মান্নান

৫ বছর আগে লিখেছেন

লাল ফড়িং এর ডানায় ভুতু সোনা

অপেক্ষার ক্ষণ গুলে প্রত্যাশা
অপেক্ষার ক্ষণ গুলে প্রত্যাশা
বৃষ্টি যখন এল,
নগর বন নদী নালা
গা টা সিক্ত হল।
কাঠফাটা রৌদ্রে চৌচির মাটি
পোড়া গায়ে বৃষ্টি,
গরম ধুঁয়া উঠছে দ্যাখো
হাওয়ায় মিলে স্বস্তি।
ঈশান কোণে মেঘ জমেছে
ধমকা হাওয়া বয়,
কোথায় যেন মেঘ নেমেছে
শীতল বাতাস গায়।
১৪২১@১৩ বৈশাখ, গ্রীষ্মকাল।
continue reading

৪৩১

চারু মান্নান

৫ বছর আগে লিখেছেন

লাল ফড়িং এর ডানায় ভুতু সোনা

ইট সুরকির নগর জুড়ে
ইট সুরকির নগর জুড়ে
মাটির গন্ধ কই?
রৌদ্র তাপে শুকিয়ে যায়
জলের ঘ্রাণ নাই
স্বপ্ন আঁকা পথ বাহারি
গলছে পথের পিচ
নগরজুড়ে থৈ থৈ মানুষ
মাখছে রোদের বিষ
রং মাখানো জল পানে
তরমুজ রসে বিষ
ক্ষুধা তাপে মরছে মানুষ
কলেরা ডায়রিয়া মিক্স
১৪২১@ ১৪ বৈশাখ, গ্রীষ্মকাল।
continue reading

৪৪১

চারু মান্নান

৫ বছর আগে লিখেছেন

লাল ফড়িং এর ডানায় ভুতু সোনা

বৈশাখের খরা রৌদ্র তাপে জোড়া
বৈশাখের খরা রৌদ্র তাপে জোড়া
নগর জুড়ে পুড়ছে দালান কোঠা,
স্কুল গমনে পুড়ছে ভুতুর সোনার গা
রোদের তেজে রং জুটেছে মাটি ফেঁটে হা।
শ্রমিক ঘামে তেঁতে বৈশাখী রোদে
ফুটপাতের পলির ঘর গাছতলার ফাঁদে,
বৃষ্টি আসুক একপশলা চাইছে মনে প্রাণে
মেঘবালিকা পালিয়ে বেড়ায় রৌদ্রে পোড়ার ভয়ে।
দিগন্তে ঐ মেঘ লুকিয়ে করছে সমনজারি
ঈশান কোণে মেঘ বালিকা অগ্নিমূর্তি ধরে,
আঁধার করে বইল বাতাস মেঘ আসছে ধেয়ে
বাতাস গায়ে স্বস্তি নগর বৃষ্টির ফোটা না পেয়ে।
১৪২১@১৩ বৈশাখ, গ্রীষ্মকাল।
continue reading

৪৩৪

চারু মান্নান

৫ বছর আগে লিখেছেন

লাল ফড়িং এর ডানায় ভুতু সোনা

কাল বৈশাখী এল
কাঠবিড়ালীর ভরদুপুরে,
ছোটাছুটি
টোনাটুনি নাচে দ্যাখো,
তিড়িংবিড়িং
ভ্রমর গানে ছুটছে পিছে,
হাওয়া।
কাল বৈশাখী এল
তেড়ে,
ধুলায় ঝড় গায়ে
মেখে,
ছুটছে পানে আগন্তক ঐ
বিমর্ষ বদন।
ছিটে ফোটা বৃষ্টির
ঘ্রাণ,
সোদা মাটির গন্ধে
বান,
উঠল ফুঁসে ঈশান
কোণে
ভয়ঙ্কর ঐ দুরন্ত
প্রতাপ।
১৪২১@ ১০ বৈশাখ, গ্রীষ্মকাল।
continue reading

৪৩৭

চারু মান্নান

৫ বছর আগে লিখেছেন

লাল ফড়িং এর ডানায় ভুতু সোনা

বৃষ্টি সখির দেখা কই?
বৈশাখের খরা বিষণ্ন দুপুর
কৈশর জটলা আম তলায়,
সজনে ডালে চিল বসেছে
ধরবে ছানা উঠন তলে।
বাঁশ ঝাড়ের মাথায় বসে
সাদা বক দোল খায়,
চুন মাখা কুমড়ার গা
হাসছে দ্যাখো উনুন চালে।
ঈশান কোণে মেঘ জমেছে
মেঘ বালিকা এলো ঐ
দুপুর গড়িয়ে বিকেল গেল
বৃষ্টি সখির দেখা কই?
১৪২০@৭ বৈশাখ, গ্রীষ্মকাল।
continue reading

৪৩২

চারু মান্নান

৫ বছর আগে লিখেছেন

লাল ফড়িং এর ডানায় ভুতু সোনা

ভুতুর পুষির রাগ গলেছে
মাছ ধরতে নেইনি সাথে
সারা দেয় না রেগে,
ভুতুর পুষি ভুতু সাথে
আঁড়ি দিয়েছে লাজে।
মাছের ডালায় গন্ধ শুকে
চোখ যে ছানাবড়া,
লেজ উঁচিয়ে ডাকে মিউ
মাছ ভাজায় গন্ধহরা।
সাত সতের দেখে ভুতু
আঁড়ি যায়রে টুটে,
ভুতুর পুষির রাগ গলেছে
ভাজা মাছ চেটে।
১৪২১@৬ বৈশাখ, গ্রীষ্মকাল।
continue reading

৪৪৫

চারু মান্নান

৫ বছর আগে লিখেছেন

লাল ফড়িং এর ডানায় ভুতু সোনা

ভুতুর পুষির পণ
ভুতুর পুষি কোমর বেঁধেছে
হাঁটবে বরফ পথে,
হিমালয়ের চূড়ায় উঠবে নাকি?
পণ করেছে বসে।
ভুতুর পুষির বন্ধু নিকি
যাচ্ছে একই দলে,
জোগাড় জানতি দেখে ভুতু
মুচকি মুচকি হাসে।
বলল ভুতু নিবি আমায়
বরফ জয়ের মাঠে,
তোদের পিছে আমি ও না হয়!
ঘুরবো বরফ দেশে।
১৪২১@ ৪ বৈশাখ, গ্রীষ্মকাল।
continue reading

৫১১