"শিশুকিশোর" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

সাদাত কামাল

৫ বছর আগে লিখেছেন

বাঘ

একবার একটা বাঘ তার একমাত্র ছেলে মাইকেলকে নিয়ে গেল হরিণ শিকার করতে। মাইকেল হরিণ শিকারে তার বাবা টমাসের থেকেও অনেক বেশি দক্ষ ছিল। বাপ-বেটা দুজন সুন্দরবনের হিরন-পয়েন্টে ঘাসের মধ্যে ভাল একটা ঘনঝোপ ঠিক করে শিকারের পজিশন নিয়ে হরিণের জন্য অপেক্ষা করতে লাগলো।
বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পরে তারা দুজন দেখতে পেল যে, কিছু হরিণ-হরিণী তাদের ছানাপুনা নিয়ে মনের আনন্দে সেই ঘন ঘাসের দিকে আসছে তাদের পেটপূর্তি করতে। মাইকেল তার গোঁপের তলে কুটিল হাসির একটি রেখা ফুটিয়ে বলল, বাবা আজ আমরা আমাদের মাকে আমাদের শিকারটি উপহার দেব, ওকে। টমাসের মুখে শব্দহীন সিরিয়াস গাম্ভীর্য। সে মনে মনে তার টার্গেট নির্বাচনে ব্যস্ত।
... continue reading

৫৩৭

লুব্ধক রয়

৫ বছর আগে লিখেছেন

বর্ণালি পাখি

যেখানেই আছে গুল্ম-আবৃত পাতাঝরা জঙ্গল, সেখানেই দেখা যায় অপরূপ সুন্দর এক পাখি। লোকালয় থেকে সামান্য দূরে ঝোপঝাড়ে ভরা বাগানেও দেখা যায়। কিন্তু তার আশপাশে বাঁশবন আর আগাছায় পরিপূর্ণ নালা-নর্দমা কিংবা খাল থাকতেই হবে। হাঁটার মধ্যে চাঞ্চল্য থাকলেও, ডাক দেওয়ার সময় পাখিটির ভঙ্গি হয় দেখার মতো। অনেকটা বনমোরগের মতো মাথা ও ঘাড় পেছন দিকে হেলিয়ে বুক চিতিয়ে হাঁটে। তারপর ঠোঁট জোড়া উপর দিকে তুলে শিস দেয় পরপর তিন-চারবার, ‘হুইট-টিউ’। মূলত ডাকাডাকি করে সকালে আর সন্ধ্যায়। তবে আকাশ মেঘলা হলে দিনের বেলায়ও ডাকে।
কাঠশালিক আকারের এই পাখিটির নাম ‘বর্ণালি’। ইংরেজি নাম The Indian Pitta এবং বৈজ্ঞানিক নাম Pitta brachyuran। ভারতে এটা ‘নওরং’ নামেও পরিচিত।... continue reading

৫২৭

ঘাস ফুল

৫ বছর আগে লিখেছেন

ভালো কাজ

কাল শুক্রবার। স্কুল বন্ধ। মাস্টার মশাই সব ছাত্র ছাত্রীকে বললেন,
-আগামীকাল তোরা সবাই একটা একটা করে ভালো কাজ করবি। আর শনিবার দিন আমি ক্লাসে একে একে সবাইকে জিজ্ঞেস করবো তোরা কে কি করেছিস । মনে থাকবেতো?
সবাই সমস্বরে বলল,
-জি মাস্টার মশাই।
একটু পরে স্কুল ছুটি। প্রতিদিনের মতো ক্লাস শেষ হবার আগে ছাত্র ছাত্রীরা মাস্টার মশাইর সাথে রুটিন মাফিক সমস্বরে বলছে,
সকালে উঠিয়া আমি মনে মনে বলি
সারাদিন আমি যেন ভালো ভাবে চলি।
শিমুল বিকাল বেলা তার বন্ধু দোয়েলদের বাড়িতে এলো। দোয়েল কি ভালো কাজ করেছে খবর নেয়ার জন্য আর সে ফাঁকে কিছুক্ষণ খেলা করতে।
... continue reading

২৭ ৮৬৩

লুব্ধক রয়

৫ বছর আগে লিখেছেন

পাবলো পিকাসোঃ ছবি পাগল ছেলেটি

  জেসাস! প্লিজ, আমার বোনকে ভালো করে দাও। আমি আর কখনও ছবি আঁকব না। তুমি কেবল আমার বোনকে ভালো করে দাও। হাঁটু গেড়ে চার্চে যিশুর মূর্তির সামনে বসে ছিল ছেলেটি। বাড়িতে সবাই তার ছোট বোনকে নিয়ে ব্যস্ত। তিন ভাই-বোনের মধ্যে সবচাইতে আদরের ছোটবোন কনসিটা। ওরই অসুখ। কোন ডাক্তারই কিছু করতে পারছে না। তের বছরের বড়ভাই তাই ছুটে এসেছে চার্চে। কিন্তু কিছুতেই কিছু হল না। বাঁচান গেল না পরিবারের একমাত্র আদরের মেয়েটিকে। তের বছরের ছেলেটির হাত থেকে তুলির রং কেড়ে নিতে স্বয়ং ঈশ্বরও বোধহয় চাননি। ছেলের প্রার্থনা শুনে খানিকটা থমকেই গিয়েছিলেন বুঝি বাবা। হাঁপ ছাড়লেন তিনিও। তুলে দিলেন নিজের সমস্ত তুলি... continue reading

৬২১

লুব্ধক রয়

৫ বছর আগে লিখেছেন

ছেলে-মেয়েতে বন্ধুত্ব এবং প্রাসঙ্গিক আর কিছু কথা

 
‘হয়তো তোমার আলনায় থাকবে না আমার জামা, ঝুলবে না তোমার বারান্দায় আমার পাঞ্জাবি পাজামা। তবু মনের জানালায়, অবাধ আনাগোনা, দুজনায়।’ এই সময়ের ছেলে-মেয়ের মধ্যে প্রেম ছাড়াও শুধুই বন্ধুত্বের বন্ধন গড়ে ওঠে, তা কলকাতার শিল্পী অঞ্জন দত্তের গানের মধ্যেই প্রকাশ পায়। অথচ ২০ বছর আগেও ব্যাপারটা এত খোলামেলা ছিল না। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুজীববিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক শামছুন নাহারের ভাষায়, “ছাত্রজীবনে ছেলে বন্ধু ছিল। মেয়েদের চাইতে ছেলেদের সঙ্গে আমার মিলত ভালো। কারণ তারা বিভিন্ন রকম বিষয়ভিত্তিক গল্প করত। যা মেয়েদের মধ্যে দেখতাম না।” স্মিত হেসে তিনি আরও বলেন, “তবে সেই বন্ধুত্বেও একটা সীমারেখা টানা থাকত। যেমন রাস্তা পার হব একসঙ্গে। আমার ছেলে বন্ধুদের... continue reading

৬৮৬

লিপু রহমান

৫ বছর আগে লিখেছেন

ছড়া

শিবলী সুহান লিপু'র ছড়া

আমাদের সোনামণি

আমাদের সোনামণি কবে বড় হবে
অন্যর হাতে নয় নিজ হাতে খাবে ।
কারো হাত ধরে নয় নিজ পায়ে চলবে
কান্নাকাটি করবে না মুখে সব বলবে ।
বৈকাল হলে পরে খেলতে যাবে মাঠে
সন্ধ্যা হলে পরে মন দিবে নিজ পাঠে ।
প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠবে অনেক ভোরে
একা একা করবে গোসল যাবে স্কুল ঘরে ।
আমাদের সোনামণি বড় হবে মনে
ধনে নয় মানে নয় দেশ ছড়াবে গুণে ।
continue reading

৪১৭

ছাইফুল হুদা ছিদ্দিকী

৫ বছর আগে লিখেছেন

মিলন মেলা আড্ডা

হেমন্তের মাঝামাঝি।
মাঠ ভরা সবুজ ও হলুদে ভরা সোনালী ধান।
এবার একটু আগে ভাগেই শীত এসে গেলো।
এমনি একটি সন্ধ্যায় আমাদের গ্রামের বাড়ীতে বাবু ভাই এর হঠাৎ উপস্হিতি।আমরা সবাই ভীষন খুশি।
বাবু ভাই আসা মানে দারুন দারুন সব মজার ঘটনা ঘটবে।চমৎকার সব কথামালা আর জমজমাট আড্ডা হবে।নানা ধরনের মজার মজার সব খাওয়া দাওয়া তো আছেই।
পাহাড়ী মোরগের মাংসের ঝোল দিয়ে আশ ধানের লাল ভাত আর ও নতুন চালের ডুপি পিঠা।
আমাদের গ্রামের খালের পুঁইয়া মাছের ঝোল দিয়ে পিঠা।
খেজুর রসে ডুবানো টসটসে রসে ভরা চিতল পিঠা।
আর বাবু ভাইয়ের আনা নানা ধরনের মজাদার চকলেট আর... continue reading

৭২৬

বাসুদেব খাস্তগীর

৬ বছর আগে লিখেছেন

জাপানের দ্রুত উন্নতির কারণ -একটি পর্যালোচনা

  জাপানে এ শতাব্দীর আগেও সামন্তবাদী সমাজ ব্যবস্থা অনেক দিন ধরে প্রচলিত ছিল অর্থাৎ রাজা বাদশার শাসন ব্যবস্থা প্রচলিত ছিল।জাপান সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হয় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে ;যুদ্ধে লিপ্ত হয় জার্মানী ও আমেরিকার বিরুদ্ধে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর পৃথিবীর যে কয়টি দেশ অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে অগ্রগতি সাধন করেছে জাপান নি:সন্দেহে তাদের অন্যতম।দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে জাপানের শিল্প প্রতিষ্ঠানসমূহের যে বিপুল পরিমাণ ক্ষয় ক্ষতি হয়, তা কাটিয়ে উঠে মাত্র দু,দশকের মধ্যেই পৃথিবীর অন্যতম শিল্পোন্নত দেশ হিসাবে প্রতিষ্ঠা লাভ করে।তবে শিল্পোন্নয়নের প্রথম দিকে ব্যক্তিগত প্রচেষ্টার অপ্রতুলতার কারণে সরকারই সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং ক্রমান্বয়ে ব্যক্তিগত প্রচেষ্টাকে ত্বরান্বিত করার প্র্রয়াস চালানো হয়।
জাপানের মোট জনসংখ্যার... continue reading

৫৭৮

ছাইফুল হুদা ছিদ্দিকী

৬ বছর আগে লিখেছেন

সীমাহীন নীল আকাশ।

রোদেলা দুপুর।সময় ৪টার ও কিছু পরে।
সুর্য দক্ষিন থেকে আলো ছড়াচ্ছিল।
সাজু আনমনা হাটছিল তাদের বাড়ীর দক্ষিনে ফলের বাগানে।
সাজুদের বাড়ীর দক্ষিনে পুরোটায় নানা ধরনের দেশী ফুল ও ফলের গাছে পরিপূর্ন।
তার পরে আরও বড় ধানের ক্ষেত।
যতদূর চোখ যায় পুরোটাই সবুজ।মন জুড়ানো সবুজের সমারোহ।
সাজুদের বাড়ীর বাগানে নানা ধরনের ফলের গাছ।
কি নেই এই বাগানে আম, কাঠাল, জাম, জাম্বুরা, জামরুল, আনারস, আতা,
লিচু, বরই, বাতাবী লেবু, কামরাঙ্গা, নারিকেল, সফেদা, তেতুল, পেয়ারা, আমলকি, আরও অনেক।
গাছের ডালে নানা জাতের প্রজাপতি ও পাখী। নানা রং এর প্রজাপতি ও পাখীর সুমধুর ডাক সব মিলিয়ে দারুন অপরুপ... continue reading

৬৯০

চারু মান্নান

৬ বছর আগে লিখেছেন

শরতের স্বপ্নে,ভুতু সোনা

ভুতু সোনা স্বপ্ন দ্যাখে
তেপান্তরের মাঠে,
রং বেরং এর প্রজাপ্রতি
মনটা পাগল করে।
বিকাল হলে আলোর ঢল
কাশবন দোল খায়,
ঘাসফড়িঙের নতুন সাজ
লাল ফড়িং এর মেলা।
স্বপ্ন ঘোরে ভুতু সেনা
ঘুড়ির নাটাই খুঁজে,
জ্বললে আলো বন্ধ ঘরে
স্বপ্ন যায়রে টুটে।
1420@ 17 আশ্বিন, শরত্কাল।
continue reading

৪২৭