"রাজনীতি" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

জাওয়াদ আহমেদ অর্ক

৫ বছর আগে লিখেছেন

~ গণতন্ত্র ফালাইয়া দিয়া না বরঞ্চ আরো অধিক গণতন্ত্রের ব্যবস্থা কইরা ~

গণতন্ত্রের সমস্যা নিরসন করেন গণতন্ত্র ফালাইয়া দিয়া না বরঞ্চ আরো অধিক গণতন্ত্রের ব্যবস্থা কইরা । এবং এই সমস্যা নিরসন কারো একার পক্ষে সম্ভব না , সবাইকেই এগিয়ে আসতে হবে । আমাদের এই গণতন্ত্রে জনগণ হয়ে উঠতে হবে যা আমরা গত ৪২ বছর ধরে হয়ে উঠতে পারি নাই । আমরা যদি জনগণ হয়েই উঠতাম তাহলে বর্তমানে আমাদের পরিস্থিতি এই পর্যায়ে আসে না , আসতে পারে না । কেন আপনি আর আমি আজ বসে আছি আমাদের হর্তাকর্তার উপর নির্ভরশীল হয়ে । তারা যদি আমাদের কথা চিন্তা করতই তাহলে এই পরিস্থিতি সৃষ্টি কেন হয়েছে ? আমাদের এই পরিস্থিতির জন্য আমরা নিজেরাই দায়ী... continue reading

৪০৩

হাছান উদ্দিন রোকন

৫ বছর আগে লিখেছেন

দল সংস্কারতো দেশ সংস্কার ।

তথ্য প্রযুক্তির বিস্ময়কর এবং প্রতিযোগিতা ময় এই সময়ে কচ্ছপ গতিতে চলা বাংলাদেশ কে যখন তথ্যদৈত্য গুগলে  আপনি সার্চ দিবেন দেখবেন  হতদরিদ্র , ক্ষুধা মন্দার  কিছুর ভয়াল চিত্র । এর মানে   একটি অর্থনৈতিক ভঙ্গুর ও  রাজনৈতিক অসহিস্নু কাঠামোর বহিঃপ্রকাশ । তা হবে না কেন এখানে নির্বাচিত হোক আর অনির্বাচিত হোক প্রত্যেক সরকারই গণতন্ত্রের বুলি ছাড়িয়ে ক্ষমতায় এসে ব্যক্তিতন্ত্রকে প্রতিষ্টিত করে গণতান্ত্রিক কায়দা কানুন গুলোকে উত্তম মধ্যম করা হয় । এই ধরনের নিয়মতন্ত্র কিংম্বা শাসনতন্ত্র বিশ্বের আর কোথাও  হয়ত নাই যার কারনে একে বাংলাদেশতন্ত্র হিসাবে স্বীকৃতি দেওয়া যায় । এই তন্ত্রের একটা মৌলিক পরিচয় হচ্ছে সরকারে যে আসবে তার মূল কাজটি হবে... continue reading

৩৫১

আবু সাঈদ চৌধুরী

৫ বছর আগে লিখেছেন

মহামান্য রাষ্ট্রপতি, এখন কিন্তু আপনার কিছু করা দরকার ।

আজ দেশ মহা সংকটময় অবস্থায় পতিত হয়ে গেছে ।খবরের কাগজ, গনমাধ্যমের সংবাদ কোথাও সহিংশতা ছাড়া কোন সংবাদ নেই ।অবরোধ আর হরতালে আটকা পড়ে গেছে দেশ ।ককটেলবাজিতে পুড়ে মানুষ মরে যাচ্ছে ।রেল লাইন উপরে ফেলে মানুষকে মারা হচ্ছে ।রাজনৈতিক অস্থিরতা দিনদিনই মানুষের মধ্যে স্থায়ী দ্বন্দ সৃষ্টি করে দিচ্ছে ।হানাহানি বাড়ছে ।এভাবেও মরছে ।ছাত্রদের মধ্যেও ছড়িয়ে পড়ছে অস্থিরতা ।এই অস্থিরতার বলি হচ্ছে সাধারন শিক্ষার্থী ।অকালে প্রান হারাচ্ছে সম্ভাবনাময় মেধা ।স্বজনের আহাজারিতে চারিদিক আজ ভারাক্রান্ত ।
    আমাদের দেশ দুর্যোগ প্রবন একটি দেশ ।তাই দুর্যোগে এদেশের মানুষ ভয় পায় না ।১৯৭০ সালের ঘূর্ণিঝড়ে লক্ষাধিক মানুষের মৃত্যু, ৮৮ এর বন্যা, সিডর, আইলা এবং রানা... continue reading

৩৪১

বাংলা নিউজ

৫ বছর আগে লিখেছেন

ইমরান খানও কাদের মোল্লার পক্ষে?

যুদ্ধাপরাধী জামায়াত নেতা কাদের মোল্লার পক্ষে এবার সাফাই গাইলেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ দলের প্রধান ও সাবেক ক্রিকেট তারকা ইমরান খান।
রেডিও পাকিস্তানের বরাত দিয়ে দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন আজ মঙ্গলবার জানায়, গতকাল সোমবার পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে দেওয়া এক ভাষণে ইমরান খান দাবি করেন, ‘কাদের মোল্লা নির্দোষ। যে অভিযোগের ভিত্তিতে বাংলাদেশ তাঁকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে, সেগুলোও “ভুয়া”।’
কাদের মোল্লাকে ‘নির্দোষ’ হিসেবে দাবি করতে গিয়ে ইমরান তাঁর বক্তৃতায় একজন মানবাধিকারকর্মীর কথা বলেন। তিনি দাবি করেন, ওই মানবাধিকারকর্মীই নাকি তাঁকে বলেছেন, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর এই নেতার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ আনা হয়েছিল, সেগুলোর ব্যাপারে তিনি কিছুই জানতেন না।
ইমরান খান বলেন, ‘১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর “ঢাকার পতন” আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে... continue reading

৫৪৮

আবু সাঈদ চৌধুরী

৫ বছর আগে লিখেছেন

সারা জীবন স্বপ্নরা শুধু কাঁদতেই থাকবে যদি না..... ।

আমার সপ্নের বাংলাদেশ , আমি তোমায় ভালোবাসি ।এই স্লোগান শুধু আমার নয় লক্ষ কোটি মানুষের ।প্রতিটি মানুষই এদেশের শান্তি চায় ।এরা স্বপ্ন দেখে বাংলাদেশ সুখী হবে, বাংলাদেশ হবে আমার স্বপ্নের বাংলাদেশ ।কি এই স্বপ্ন আমাদের, যা দেখে আমরা স্বাধীন হয়েছিলাম ? এই স্বপ্নের কথা সবসময়ই উচ্চারন করা হয় ।কিন্তু আজও ঐ স্বপ্নের বাংলাদেশতো দূরে থাক সত্যিকারের স্বাধীনতা পেতে এবং দিতেও ব্যর্থ হয়েছি বার বার ।কিন্তু এভাবে যদি চলতেই থাকে তবে স্বাধীনতা ....? আজ শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস ।১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশের সবচেয়ে জ্ঞানী মানুষগুলোকে হত্যা করা হয় এ দেশের মেধাকে সমুলে নষ্ট করার জন্য ।আমরা আজও সকল শহীদদের জন্য... continue reading

৫৪৮

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

বাঙ্গালীর সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জনের ৪২তম গৌরব উজ্জল মহান বিজয় দিবস আজঃ বিজয় দিবসে সকলকে শুভেচ্ছা

১৬ই ডিসেম্বর, স্বাধীনতা অর্জনের অহংবোধের উজ্জ্বলতায় উৎকীর্ণ অনিন্দ্যসুন্দর একটি দিন। একরাশ সোনালি স্বপ্ন হৃদয়ে ধারণের দিন আজ। বাঙালির কাছে বিজয় দিবস শুধু উৎসবের নয়, স্বাধীনতা অক্ষুন্ন রাখার শপথেরও দিন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশের মুখ ফিরিয়ে আগামীতে সুখী-সমৃদ্ধ একটি দেশ গড়ার যাত্রা শুরুর দিনও এটি। ১৬ ডিসেম্বর বাঙালি জাতির জীবনে সর্বোচ্চ অর্জনের দিন ৪৩তম মহান বিজয় দিবস আজ।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অমোঘ নির্দেশে যে রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধ শুরু হয় ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ, ১৬ ডিসেম্বর বিজয় অর্জনের মাধ্যমে তার সমাপ্তি ঘটে। গত ৪২ বছর ধরে এদেশের স্বাধীনতাপ্রিয় প্রতিটি মানুষ পরম শ্রদ্ধা আর মমতায় পালন করে আসছে এ... continue reading

১২৭০

জাওয়াদ আহমেদ অর্ক

৫ বছর আগে লিখেছেন

~ শোষণ থেকে মুক্তির জন্য যুদ্ধ কিংবা বিপ্লব স্থগিত করলে চলবে না ~

একটি দেশকে শোষণ মুক্ত রাষ্ট্র তখনই বলা যাইতে পারে যখন কিনা শোষণের বিরুদ্ধে শোষিতের যুদ্ধ/ বিদ্রোহ/আন্দোলন জারি থাকে । কাল সবাই ১৯৭১ সালের ১৬ ই ডিসেম্বরে তৈরি শোষণ-মুক্ত দিনের কথা মনে করে বিজয় উৎসব পালন করবে । কিন্তু একাত্তুরের সেই ১৬ ই ডিসেম্বরের পরের দিন থেকে আজকেরদিন পর্যন্ত এই অঞ্চলের মানুষ যেই শোষণ প্রতিনিয়ত বয়ে বেড়াচ্ছে কিংবা সহ্য করেই চলছে তার বিরুদ্ধে শোষিতের একটা নিরুত্তাপ দৃষ্টিভঙ্গি সর্বদা জারি ছিল । কিন্তু এই নিরুত্তাপ দৃষ্টিভঙ্গির কারণ কি ? একাত্তুর সালের ১৬ই ডিসেম্বর পরবর্তী শোষণ কি তাহলে শোষণের মধ্যে পরে না ? দুর্বৃত্তদের তৈরিকৃত লুণ্ঠনের রাজনীতি কি গত ৪২ বছরে কম... continue reading

১৩ ৪৯৭

আ,শ,ম এরশাদ

৫ বছর আগে লিখেছেন

"বিজয়" ৭১ থেকে ২০১৩। অক্ষমদের আবার "বিজয়" কি?

জয়ের(win)ব্যাপকতা বুঝাতে বিজয়(victory)। জয়ের চেয়েও আরো অধিক যার পরিধি। হ্যাঁ বিজয় এসেছিল এই গাঙ্গেয় “ব”- দ্বীপে 1971 সালের 16ই ডিসেম্বর বিকাল চারটা 31 মিনিটে। ভাবলেই কেমন গা শিঁউরে ওঠে। লুঙ্গি পরা কিছু হাড্ডি সার জোয়ান শীতের নদীতে জং ধরা রাইফেল কাঁধে সাঁতার কেটে কেটে কেমন করে যেন পরাস্ত করলো এক রাষ্ট্রের সাঁজোয়া সেনাদের!! নিয়াজি ইয়াহিয়া কুপোকাত মাত্র নয় মাসে!! এটা জয় নয় এটা আসলেই বহুমাত্রিক এক বিজয়। বৃহৎ বাঙালীর জীবনে একটা স্বাধীন আভাস ভুমি সুচিত হয়েছিল এই দিনে। একটা নির্দৃষ্ট ভু-খন্ডের মানুষের মধ্যে একধরনের মানসিক ঐক্য হয় আর সে ঐক্যের খেসারত ও তাদের কম দিতে হয় না।

... continue reading

৮০০

হাছান উদ্দিন রোকন

৫ বছর আগে লিখেছেন

আইনের গতিবিধি

পৃথিবীতে কখন থেকে আইনের যাত্রা শুরু হয়েছিল তা আমার জানা নাই । তবে আইন নামক অজুহাত টা তৈরি হয় শাসকগোষ্ঠীর একটি রাষ্ট বা সংঘঠনের সাংঘঠনিক কাঠামোর মনস্তাত্ত্বিক চিন্তা চেতনার প্রতিফলন হিসাবে। সাধারণত আইনের কোন স্থিরতা নাই, এটি একটি পরিবর্তনশীল কাঠামো  এবং এটা কোন মানবিক ব্যাপারও না । এটি একটি রাষ্ট্রের বিধি নিষেধ ব্যাবস্থা । আইনের সাথে  মানবিকতার সম্পর্কটা কখনো পরম সম্পর্ক নই এটা একটা আপেক্ষিক সম্পর্ক বরং এর সাথে রাষ্ট্রের রাজনৈতিক দর্শনের একটা অবিচ্ছেদ্য সম্পর্ক বিদ্যমান । এক্ষেত্রে আমি প্লেটোর কাল্পনিক রাষ্ট্রের সাথে একমত যেমন প্লেটো তার রাষ্ট্রের জনগণকে তিনটি অংশে ভাগ করছেন এর মধ্যে অভিভাবক শ্রেণীকে তিনি রাষ্ট্রের ক্ষমতায়নের জন্য যোগ্য হিসাবে অভিহিত করেন এবং... continue reading

৩৮৪

হাছান উদ্দিন রোকন

৫ বছর আগে লিখেছেন

দাদুর সর্বনাম কথন ।

বুঝলি দাদু ভাই যে যমনা চলতেছে  তাদের নামে কোন কথায়  বলা যায় না সাথে সাথে সাত বছরের কারাদণ্ড ।
হেলিয়ে দুলিয়ে তারা শাসন করে চলছে এই প্রকৃতিটাকে । কখনো উষ্ম ,  কখনো শীতল হাওয়া আবার কখনো পলিমাটির আস্তরণ ।  গ্রীষ্মের খর রোদ্রে যেমন একটু শীতল হাওয়া অথবা একটু রিমঝিম বৃষ্টি পথিকের কাম্য আবার কনকনে  শীত কিংবা অতি বর্ষায় ও চায় একটু রোদেলা দুপুরের ছোঁয়া । তাই তার মনে কারো আসন স্থায়ী  হয়নি । কারণ একটাই এই জনপদের বাসিন্দারা অতিরিক্তকে খুব তিক্ত অনুভব করে । তাদের উপরও জনগণ খুব বিরক্ত কারণ তারা যখনি  ক্ষমতায় আসে বসন্তের গুন গুনানিতে শ্রাবণের বারি প্রবাহের কথা... continue reading

১০ ৩৮১