"ভ্রমণ" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

শফিক সোহাগ

৫ বছর আগে লিখেছেন

মহামায়া লেকে এক বিকেল

 
আমার এক ছোট ভাই স্বপন । রক্তের সম্পর্ক না থাকলেও আন্তরিকতার মাত্রা রক্তের সম্পর্ককে অতিক্রম করেছে । সম্পর্ক অনেকটা বন্ধু সুলভ বটে । জীবিকা নির্বাহের তাগিদে সে এখন ওমানে অবস্থান করছে । ওমান যাওয়ার প্রাককালে সে তার আত্মীয়-স্বজনদের সাথে দেখা করতে গ্রামের বাড়ি যাওয়ার উদ্যোগ নেয় । তখন সে বায়না ধরে বসে তার সাথে তার দুজন প্রিয় ব্যক্তিকেও যেতে হবে । সে দুজন আমি এবং আমার বন্ধু ডাঃ শাহীন । অনেক ব্যস্ততা সত্ত্বেও আমরা স্বপনের আবদার রক্ষা করার জন্য তার গ্রামের বাড়িতে যেতে সম্মতি জানালাম । গ্রামের বাড়ি ফেনী জেলার ফাজিলপুর । আমরা চট্টগ্রাম থেকে সকাল ৯ টার... continue reading

৪৫৭

মরুভূমির জলদস্যু

৫ বছর আগে লিখেছেন

রাঙ্গামাটি ভ্রমণ – সুভলং ঝর্ণা ও কাপ্তাই হ্রদে নৌবিহার

ঢাকা ২৫ জানুয়ারি রওনা হয়ে ২৬ তারিখ সকালে পৌছাই খাগড়াছড়ি। একটি মাহেন্দ্রা গাড়ি রিজার্ভ করে নিয়ে সারা দিনের জন্য বেরিয়ে পড়ি খাগড়াছড়ি ভ্রমণে। একে একে দেখে ফেলি “আলুটিলা গুহা”, “রিছাং ঝর্ণা”, “শতবর্ষী বটবৃক্ষ” আর “ঝুলন্ত সেতু”।
পরদিন ২৭ জানুয়ারি খাগড়াছড়ি থেকে রাঙ্গামাটির দিকে রওনা হই একটি চান্দের গাড়ি রিজার্ভ করে। পথে থেমে দেখে নিই “অপরাজিতা বৌদ্ধ বিহার”।
২৭ তারিখ দুপুরের পরে পৌছাই রাঙ্গামাটি। হোটেলে উঠে ফ্রেশ হয়ে নিচে নেমে আসি দুপুরের খাবার খেতে। আগেই ছমির উদ্দিনকে (বোট ম্যান) টাকা দিয়ে এসেছি বোটের জন্য তেল কিনতে। খাবার শেষ করেই বেরবো নৌভ্রমণে, গন্তব্য “সুভলং ঝর্ণা”।
তাইপিং রেস্তরাতে দুপুরের খাবার খেলাম (বেশ ভালো মানের খাবার)।... continue reading

৬৫৪

শফিক সোহাগ

৫ বছর আগে লিখেছেন

লালন অনুসন্ধানে ছেঁউড়িয়া ভ্রমণ

শফিক সোহাগঃ 

আধ্যাত্মিক দেহতত্ত্ববাদের অমর সাধক ফকির লালন শাহকে গভীরভাবে জানার আকাঙ্ক্ষা আমার বহু আগে থেকেই ছিল। সেই সাথে ছিল লালন আখড়া ভ্রমণের সাধ। দীর্ঘ চার বছর ধরে লালনকে নিয়ে নানা অন্বেষণ করেও তাঁকে পরিপূর্ণভাবে আবিষ্কার করতে ব্যর্থ হয়েছি। আর ব্যর্থ হবই না কেন? বহু পণ্ডিত গবেষকগণও তো ব্যর্থ হয়েছেন লালন রহস্যের অতলে পৌঁছাতে! তবে লালন রহস্য অন্বেষণে ব্যর্থ হলেও ইতিমধ্যে পূরণ হয়েছে আমার লালন আখড়া ভ্রমণের সাধ। ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলাস্থ গাড়াগঞ্জে আমার বোনের শ্বশুর বাড়িতে গিয়েছিলাম বেড়াতে। সেখানে তাদের কাছে বহুদিনের সাধের বিষয়টি প্রকাশ করতেই আমার বেয়াই সাজ্জাদ (বোনের দেবর) আমাকে আশ্বস্থ করল পরের দিনই তা পূরণ করা... continue reading

৮৫৬

এই মেঘ এই রোদ্দুর

৫ বছর আগে লিখেছেন

চলুন ঘুরে আসি সাকুরা গার্ডেন (আঁগারগাঁও).... (২)

প্রথম পর্বে তো পড়েছেনই সাকুরা গার্ডেন সম্পর্কে । এখন দেখি বাকি ছবিগুলো.........
সময় করে একবার দেখে আসতে পারেন সাকুরা গার্ডেন । আমার চোখে সুন্দর লাগছে । অনেকের তা নাও লাগতে পারে.....
১। এই হাঁসটা যেন তার সাথিকে খুঁজছে........
২। এখানে হাঁস না । হারিকেন ফোকাসে ছিল । হারিকেনের কথা বুঝি অনেকেই ভুলে গেছেন ......
৩। একাকি ঘুরে বেড়াচ্ছে হাঁস
৪। হারিকেন, প্রজাপতি বাবুই পাখির বাসা
৫। শকুন আর বাঘ মামা
৬। বানর ঝুলে আছে গাছে আর গাছের নিচে আছে বাঘ
৭। বাঘ আর ছোট জলাশয়
৮। মাছরাঙা ঠোঁটে মাছ নিয়ে বসে আছে
৯। আমাদের... continue reading

৭১৯

শফিক সোহাগ

৫ বছর আগে লিখেছেন

প্রাণের বইমেলায় একদিন

প্রাণের বইমেলায় একদিন
প্রতিবছর ফেব্রুয়ারী মাস এলেই বাংলা একাডেমি বইমেলার আয়োজন করে । ভাষা শহীদদের স্মৃতিকে অম্লান করে রাখার জন্য মেলার নামকরণ করা হয় “অমর একুশে বইমেলা” । একসাথে অনেক বই দেখা এবং নতুন বইয়ের টাটকা ঘ্রাণ আহরণ করার সুযোগ করে দেয় বইমেলা । বইমেলা বই পোকাদের নেশার পরিতৃপ্তি প্রদানে সহায়ক । লিখালিখির অভ্যাস থাকার কারণে ছোটবেলা থেকেই আমি বইয়ের নেশায় আচ্ছন্ন ছিলাম । এই নেশার তৃপ্তি আহরনের জন্য বইমেলায় যাওয়ার তীব্র আকাঙ্ক্ষা থাকা সত্ত্বেও সময় সুযোগের অভাবে যাওয়া হয় নি । সুদূর চট্টগ্রাম থেকেই প্রতিবছর টেলিভিশনের পর্দায় বইমেলা দেখে কৃত্রিম তৃপ্তি আহরন করতাম । এবছর হঠাৎ সুযোগ পেয়ে... continue reading

৪৮২

শফিক সোহাগ

৫ বছর আগে লিখেছেন

প্রাণের বইমেলায় একদিন

প্রাণের বইমেলায় একদিন
প্রতিবছর ফেব্রুয়ারী মাস এলেই বাংলা একাডেমি বইমেলার আয়োজন করে । ভাষা শহীদদের স্মৃতিকে অম্লান করে রাখার জন্য মেলার নামকরণ করা হয় “অমর একুশে বইমেলা” । একসাথে অনেক বই দেখা এবং নতুন বইয়ের টাটকা ঘ্রাণ আহরণ করার সুযোগ করে দেয় বইমেলা । বইমেলা বই পোকাদের নেশার পরিতৃপ্তি প্রদানে সহায়ক । লিখালিখির অভ্যাস থাকার কারণে ছোটবেলা থেকেই আমি বইয়ের নেশায় আচ্ছন্ন ছিলাম । এই নেশার তৃপ্তি আহরনের জন্য বইমেলায় যাওয়ার তীব্র আকাঙ্ক্ষা থাকা সত্ত্বেও সময় সুযোগের অভাবে যাওয়া হয় নি । সুদূর চট্টগ্রাম থেকেই প্রতিবছর টেলিভিশনের পর্দায় বইমেলা দেখে কৃত্রিম তৃপ্তি আহরন করতাম । এবছর হঠাৎ সুযোগ পেয়ে... continue reading

৬৭৮

মরুভূমির জলদস্যু

৫ বছর আগে লিখেছেন

খাগড়াছড়ি ভ্রমণ – অপরাজিতা বৌদ্ধ বিহার

 
২৫ জানুয়ারি রওনা হয়ে ২৬ তারিখে সকালে পৌছাই খাগড়াছড়ি। একটি মাহেন্দ্রা গাড়ি রিজার্ভ করে নিয়ে সারা দিনের জন্য বেরিয়ে পড়ি খাগড়াছড়ি ভ্রমণে। একে একে দেখে ফেলি আলুটিলা গুহা, রিছাং ঝর্ণা, শতবর্ষী বটবৃক্ষ আর ঝুলন্ত সেতু।
রাতের খাবার খেয়ে হোটেলে ফিরে ঘুমের জন্য প্রস্তুতি। ঘুমতে যাওয়ার আগে আমাদের সিঙ্গেল মেম্বার স্বপনের রুমে জমে আড্ডা। যদিও স্বপন একা রুম কিন্তু ওর ডবল, খাটের উপর আয়েস করে বসে আগামী কালের পগ্রাম নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। হোটেলের সামনেই দেখেছি একটা লোক সামুদ্রিক ছোট মাছ তেলে ভাজছে, সেগুলি নিয়ে এসেছিলাম…………..
আগামীকাল যাবো খাগড়াছড়ি থেকে রাঙ্গামাটি। দুই ভাবে যাওয়া যাবে, এক খাগড়াছড়ি থেকে বাসে যাওয়া... continue reading

১১১৪

এই মেঘ এই রোদ্দুর

৫ বছর আগে লিখেছেন

চলুন ঘুরে আসি সাকুরা গার্ডেন (আঁগারগাঁও).... (১)

হুট করেই সেদিন চলে গেছিলাম বাণিজ্য মেলায়……. দুপুরে অফিস থেকে ছুটি নিয়ে আমি আর আমার বোন মিলে গেলাম সেখানে । প্রায় আড়াইটা তিনটা বাজে পৌঁছালাম সেখানে । তখন মেলা পুরাই ফাঁকা । আগত কিছু দর্শণার্থি এলোমেলো ঘুরে বেড়াচ্ছে । আমি আর আমার বোন মিলে যুক্তি করলাম আগে ঘুরে ফিরে দেখে নেই । তারপর কোন দোকানে গিয়ে ঢুকে জিনিসপত্র দেখা যাবে । এমনি ঘুরতে ঘুরতে এক জায়গায় দেখলাম লেখা সাকুরা গার্ডেন ।
ভাবলাম এটা আবার কি বাণিজ্য মেলার ভিতরে আবার গার্ডেন কিসের । দুই বোন গেলাম সেখানে । গিয়ে তো পুরাই অবাক । হয়তো অনেকেই দেখেছেন সাকুরা গার্ডেন কৃত্তিম গার্ডেন বা... continue reading

৬৪৭

সালাহ্‌ আদ-দীন

৫ বছর আগে লিখেছেন

গহীন জঙ্গলে সাফারি ভ্রমন

আজকের পর্বঃ বেইজ ক্যাম্প-আফ্রিকান আক্সপেরিয়ান্স (আংশিক)
 
কথা ছিল আমি আগেই স্টেশনে মুস্তাফিজ ভাই আর রুমেল ভাইয়ের জন্যে অপেক্ষা করব। কিন্তু দেখা গেল আমিই লেট। অবশ্য আমার ঘুম ভাঙতে দেরি হবার কারনেই এমনটি হল। কি আর করা কাধে ব্যাগ ঝুলিয়ে দিলাম ভোঁ দৌড়। সকালে এক গ্লাস পানিও খাই নি। তাই মুস্তাফিজ ভাই আর রুমেল ভাইকে নিয়ে ম্যাগডনাল্ডে গিয়ে সকালের নাস্তা সারতে হল।
অতঃপর ট্যাক্সি করে চললাম পোর্ট লিম্প সাফারি পার্কে। স্টেশন থেকে তেমন দূরে না হলেও গ্রামের আঁকাবাঁকা পথ পাড়ি দিয়ে যেতে প্রায় ৩০ মিনিট সময় লেগে গেল।
টিকেট অফিসের ঝামেলা সেরে আমরা প্রবেশ করলাম পার্কে। ম্যাপ... continue reading

১৯৪০

মরুভূমির জলদস্যু

৫ বছর আগে লিখেছেন

খাগড়াছড়ি ভ্রমণ – ঝুলন্ত সেতু

শতবর্ষী বটবৃক্ষের ছায়াতল হতে বিদায় নিয়ে আমাদের এবারের গন্তব্য খাগড়াছড়ি শহরের কাছেই “হর্টি কালচার পার্ক” এর ঝুলন্ত সেতু। বিকেল গড়িয়ে যাচ্ছে খুব দ্রুত, সূর্যি মামা পাটে বসবেন কিচ্ছুক্ষণ পরেই। হাতে সময় খুব অল্প। সন্ধ্যার আগে আগে এসে পৌঁছই পার্কের কাছে। রাস্তা থেকে কিছুটা কাচা মাটির পথ ধরে হেঁটে যেতে হয় পার্কের গেইট পর্যন্ত, ঢুকতে হয় টিকেট কেটে। আমরা যখন ভেতরে ঢুকছি তখন সেখান থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে সামান্য যে কজন বেড়াতে গিয়েছিলো (জোড়ায় জোড়ায়) তাঁরাও।   

গেট পেরিয়েই সামনে উঁচু টিলা কেটে তৈরি ইট বিছান রাস্তা, রাস্তার দুই ধারে সারি সারি গাছ। একটু সামনেই চমৎকার বাগান। এখান থেকে দূরে তাকালে... continue reading

৭১০