"ব্লগ" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

মেঘলা আনজুম

৪ বছর আগে লিখেছেন

মত প্রকাশের নীতিমালা নিয়ে আর্টিকেল ১৯

খুব বেশী দিন আগের কথা নয়, যখন ব্লগিং আরম্ভ করি তখন আমাদের দেশে তেমন ভাবে ইন্টারনেট ব্যবহার আরম্ভ হয়নি।সেই সময় গুটি কয়েক ব্লগার লেখা লেখি শুরু করি কেবল ব্লগের কিছু নীতিমালা মেনে নিয়ে ।তখন পর্যন্ত আমরা জানতাম না ব্লগ আসলে কি,পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ব্লগারদের সম্পর্কেও কোন ধারনাও ছিল না,এমন কি অনলাইনে লেখার উপর যে কোন নীতিমালা থাকতে পারে তাও ধারনের বাইরে ছিল।
সময়ের প্রয়োজনে ইন্টারনেট এখন সবার হাতের নাগালে,ইচ্ছে করলেই যে কেউ যেখানে খুশী বসে লিখে ফেলছে মনের যতো কথা।কেউ হয়তো ফেসবুক স্ট্যাটাস দিচ্ছে,কেউবা টুইট করতে পছন্দ করছে,আবার কেউবা ব্লগে লিখে দিয়েই মনের ভাব প্রকাশ করছে।এমন মুক্ত মনে লিখতে গিয়ে... continue reading

৫৪৩

সোহেল আহমেদ পরান

৪ বছর আগে লিখেছেন

সৃজনশীলচর্চায় সাহিত্য-ব্লগ

~এক~
লেখালেখি মানুষের মজ্জাগত একটা বিষয়। এটা ভেতর থেকে আসে। আমরা মনের টানে লিখে থাকি। মনের ভালোলাগা বা মন্দলাগাটুকু আমাদের লেখায় ওঠে আসে। ওঠে আসে কষ্টবোধ বা সুখবোধ। তাই জোর করে লেখালেখি করা প্রায় অসম্ভব। তাই লেখালেখির এই প্রয়াস- একে বলা হয় সৃজনশীল কাজ। সৃজনশীল কাজে স্বভাবিকভাবেই থাকে - স্বতন্ত্র চিন্তা, বোধ ও চেতনার হৃদ্য প্রকাশ। জোর করে সৃজনশীল এই কাজ করা সম্ভব না হলেও, অনুশীলন ও শেখার আগ্রহ ভালো লেখক হতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।  তাছাড়া, পাঠকের পাঠ-প্রতিক্রিয়া এবং লেখক-পাঠক মিথস্ক্রিয়ার মধ্য দিয়ে লেখার মান উন্নত করা সম্ভব। আগেকার দিনে, পাঠকের প্রতিক্রিয়া এবং লেখক-পাঠক মিথস্ক্রিয়ার বিষয়টি সাধারণত আড্ডা/আলোচনা আর... continue reading

২০ ৬৯৯

Md Abu Taher

৪ বছর আগে লিখেছেন

যাত্রা নাস্তি

আমি সবাইকে লাল গোলাপে শুেভচ্ছা দিলাম। আমি এই প্রথম ব্লগারের আঙিনায় প্রবেশ করলাম। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন। continue reading

৬৫০

অর্বাচীন পথিক

৪ বছর আগে লিখেছেন

মঙ্গলের পথে মঙ্গল-অমঙ্গলের ধ্বনি

মঙ্গল গ্রহের কথা কে না জানে এই পৃথিবীতে। লাল এ গ্রহকে নিয়ে পৃথিবীর মানুষের জল্পনা কল্পনার শেষ নেই। তবে কিছটা হলেও শিথিল হতে যাচ্ছে সেই জল্পনা কল্পনার। পৃথিবী থেকে লাল এই গ্রহের দুরত্ত প্রায় ৫ কোটি ৫০ লাখ কিলোমিটার। তবে প্রযুক্তির কল্যাণেই সেই দুরত্ত এখন কমে এসেছে। আর তাই চলছে সেই খানে মানুষ বসবাস করানোর সকল প্রস্তুতি। কয়েক বছর পর অথাৎ ২০২৫ সালে মানুষ প্রথম বসবাস শুরু করবে এই লাল গ্রহে।
২০২৫ সালে বসবাসের উদ্দেশে মানুষের যাএা শুরু হচ্ছে মঙ্গল গ্রহে :
মঙ্গল গ্রহে মানুষ পাঠানোর এ আয়োজন করেছে নেদারল্যান্ডসের একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান মার্স ওয়ান। আর তার এই... continue reading

১০ ৬৮৬

এ. এম. এস. ইমতিয়াজ ভূঁঞা

৪ বছর আগে লিখেছেন

একটি তুলনা মূলক বিশ্লেষন

প্রসঙ্গ: ইলেকট্রনিক মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়া, ফেসবুক এবং বাংলা ব্লগ
 
 
বর্তমান তথ্য প্রযুক্তির যুগে যোগাযোগের মাধ্যম অনেক। বিভিন্ন মানুষ বিভিন্ন ভাবে যোগাযোগ রক্ষা করে থাকেন। যার কাছে যে মাধ্যমটা বেশী নির্ভরযোগ্য মনে হয় সে সেই মাধ্যমেই যোগাযোগ রক্ষা করেন।যোগাযোগের বিভিন্ন রকমফের থাকলেও গ্রহনযোগ্যতা, প্রয়োজনীয়তা, বিশ্বাষযোগ্যতা এবং সহজলভ্যতার উপার ভিত্তি করে মানুষ তার যোগাযোগের মাধ্যম নির্বচন করে থাকে।তথ্য আদান প্রধান বা যোগাযোগের যে সকল নির্ভরযোগ্য মাধ্যম রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম গুলো হল:-
   ১. ইলেকট্রনিক মিডিয়া,
    ২. প্রিন্ট মিডিয়া,
    ৩. ফেসবুক এবং
    ৪. বাংলা ব্লগ  
১. ইলেকট্রনিক মিডিয়f :যোগাযোগের এ মাধ্যমটি বেশ জনপ্রিয় এবং শক্তিশালী। যদিও... continue reading

৫৪৮

মনজুরুল আলম প্রিন্স

৪ বছর আগে লিখেছেন

ডিজিটাল নাকি মাতাল?

ডিজিটাল বাংলাদেশে শিশু জিহাদ আজ মৃত। ভাবতেও অবাক লাগে যে, ডিজিটাল ডিজিটাল বলতে বলতে অামাদের ভোটে নির্বাচিতগন তারা কি মূলত মাতাল হলেন কিনা? তাইতো বিবেকের কাছে প্রশ্ন করি চেয়ারে বসা ঐ মানুষগুলো ডিজিটাল নাকি মাতাল? তরুন কিছু যুবক উদ্ধার করলো শিশু জিহাদকে আর অামাদের সরকার অত্যধুনিক ডিজিটাল ক্যামেরা দিয়ে উদ্ধার করেলো টিকটিকি সহ কিছু পোকামাকড়। আমার জানতে ইচ্ছে করে যারা এই দেশকে স্বাধীন করেছে তাদের কাছে, আপনরা কি আজকের দিনটি দেখার জন্য এই দেশকে স্বাধীন করেছিলেন? যেখানে একটি শিশু উদ্ধার করার জন্য পর্যাপ্ত যন্ত্রপাতি নেই সেখানে 2021 সালের মধ্যে আমাদের বাংলাদেশ একটি উন্নত মধ্যময় দেশ হবে কিভাবে সেটাই হলো... continue reading

৫৬৩

মোঃ মাহবুবুল আলম

৪ বছর আগে লিখেছেন

বিজ্ঞান যুক্তিবাদ ও প্রথাগত ধর্মবিশ্বাসের মধ্যে বৈপরীত্ব

সেই সুপ্রাচীণকাল থেকেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ও জাতিতে জাতিতে প্রথাগত ও প্রগতিবাদী, মুক্তধর্মবিশ্বাসী ও ধর্মবিশ্বাসীরা একে অপরের সাথে রক্তারক্তি ও হানাহানিতে লিপ্ত হচ্ছে। তাদের এ বিশ্বাস কখনও কখনও ধর্মযুদ্ধ বা জেহাদ ঘোষণা করে ধর্মভীরু মানুষকে তাদের দলে টানছেন। কাছে টানছেন বা দলে ভিরাচ্ছেন কথাটা বললে যেন কম বলা হবে বরং তাদের মধ্যে ধর্মীয় উন্মাদনা সৃষ্টি করে ধর্মভীরুদের বলিরপাঠা বানাচ্ছেন। ফলে, সেসব ধর্মভীরু মানুষ সেই প্রথাগত ধর্মবিশ্বাসীদের প্রচারনায় বিভ্রান্ত হয়ে অকাতরে প্রাণ দিচ্ছেন, এসব প্রাণ বিসর্জন কোন কালে কোন ধর্মই সমর্থন করেনি। পক্ষান্তরে বিশ্বে প্রগতিবাদী মুক্তচিন্তার মানুষ মাত্রেই বিশ্বাস করে মানুষের বিবর্তনের শুরু থেকে তাদের মধ্যে কোন ধর্মবিশ্বাস ছিলনা। আদিমযুগের... continue reading

৫২৩

Zobaer Bin Liaquot

৪ বছর আগে লিখেছেন

নোকিয়া একটি অতীতের নাম !!!

মোবাইল বলতে একসময় অনেকেই নোকিয়াকেই বুঝত। নিম্নবৃত্ত হতে শুরু করে সমাজের উচ্চবৃত্তদের হাতের মুঠোতে সবচেয়ে বেশী শোভা পাওয়া মোবাইলটির নাম নিঃসন্দেহে নোকিয়া। বর্তমান প্রতিযোগিতার বাজারে নোকিয়ার হারিয়ে যাওয়া এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।
১৮৬৫ সালে ফ্রেডরিক ইডেস্টামেরকাগজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কতৃক নোকিয়া প্রথম প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৭১ সালে ইডেস্টাম তার এক ঘনিষ্ট বন্ধু লিও ম্যাচলিনের সাথে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে নোকিয়া কোম্পানি আকারে আত্মপ্রকাশ করে। প্রথম দিকে নোকিয়া বিভিন্ন পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য পার্লস এনালাইজার জাতীয় ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী প্রস্তুত করত। ১৯৮৭ সালে নোকিয়া সর্বপ্রথম মোবিরা সিটিম্যান নামে এন এম টি নেটওয়ার্কের অধীনে মোবাইল ফোন বাজারজাত করে।
১৯৯৪ সালে তাদের ২১০০ সিরিজের ফোন... continue reading

৭৫৩

মেঘলা মেয়ে

৫ বছর আগে লিখেছেন

বায়ু বিদ্যুতে বাংলাদেশের যা অবস্থা

  নবায়নযোগ্য জ্বালানির অন্যতম উৎস বায়ু৷ কিন্তু ৭১০ কিলোমিটার দীর্ঘ উপকূলীয় অঞ্চল থাকা সত্ত্বেও বাংলাদেশ এখনও এই উৎসের ব্যবহার ততটা করতে পারেনি৷ তবে সম্প্রতি ৬০ মেগাওয়াট বায়ু বিদ্যুৎ উৎপাদনে একটি চুক্তি সই হয়েছে৷
৭১০ কিলোমিটার দীর্ঘ উপকূলীয় অঞ্চল থাকা সত্ত্বেও বাংলাদেশ এখনও বায়ু বিদ্যুৎ ব্যবহারে ততটা এগোতে পারেনি
কক্সবাজারে এই কেন্দ্র স্থাপন করবে ‘ইউএস-ডিকে গ্রিন এনার্জি (বিডি) লিমিটেড' নামে যুক্তরাষ্ট্র, ডেনমার্ক ও বাংলাদেশের একটি যৌথ কোম্পানি৷ প্রায় ১২০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগে এই কেন্দ্রটি স্থাপনে গত মে মাসে একটি চুক্তি সই হয়৷ চুক্তি অনুযায়ী, আগামী এক বছর, অর্থাৎ ২০১৫ সালের মে মাসের মধ্যে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হওয়ার কথা৷
continue reading

৩৮২

মেঘলা মেয়ে

৫ বছর আগে লিখেছেন

ছোট ছোট নদী থেকে সবুজ বিদ্যুৎ

রবি ঠাকুর ছোট নদীকে নিয়ে যে কবিতা লিখে গিয়েছেন, তাদেরকে এবার সবুজ বিদ্যুৎ বানাবার কাজে লাগাচ্ছে জার্মানি৷ বুদ্ধিটা চমকপ্রদ৷ তাতে কাজও হচ্ছে দিব্যি ভালোই৷ শান্ত নদীটি পটে আঁকা ছবিটি...
ধরা যাক একটা মোবাইল চার্জ করতে হবে৷ কিংবা জ্বালাতে হবে ছোট একটা আলো৷ বহু জায়গাতেই সেসব ছোটখাটো বিদ্যুতের জন্য ব্যবহার করা যায় স্বপ্নালু ছোট ছোট নদী কিংবা জলধারাকে৷ সেই বুদ্ধিটাই বের করে ফেলেছেন জার্মান গবেষকরা৷
ভার্নভ নদীর ধারে হাঁটুর ওপর ল্যাপটপ নিয়ে তাই জার্মান গবেষকদের দেখা যাচ্ছে গভীর মনোযোগ দিয়ে কাজ করতে৷ ভার্নভ এমন একটা নদী, যাকে অলস বললেও কম বলা হয়৷ সে চলে খুবই ধীরগতিতে৷ বলা যায়, তার... continue reading

৮০২