"বিবিধ" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

ব্লগ সঞ্চালক

৩ বছর আগে লিখেছেন

ব্লগিং প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ

সুপ্রিয় ব্লগার বৃন্দ,
আপনারা জানেন যে, নক্ষত্র আয়োজিত সৃজনশীল প্রতিযোগিতা-২০১৬ সফল ভাবে শেষ হয়েছে । উক্ত প্রতিযোগিতার পরিচালনা পর্ষদ সহ  অংশগ্রহণকারী ও বিজয়ী সকল ব্লগারদেরকে নক্ষত্রের পক্ষ থেকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।
আপনাদেরকে আনন্দের সহিত জানাচ্ছি যে, আগামী ৮ই এপ্রিল ২০১৬, শুক্রবার বিকাল ৫ টায় পাবলিক লাইব্রেরীর সেমিনার হলে (নীচতলা) পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে।
উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে  উপস্থিত  থাকবেন, জনপ্রিয় কথা সাহিত্যিক আনিসুল হক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন কথা সাহিত্যিক ও নাট্যকার পলাশ মাহবুব এবং রম্য লেখক ও অভিনেতা আহসান কবির।
উক্ত অনুষ্ঠানে আপনারা সবাই স্ব-বান্ধবে আমন্ত্রিত। এছাড়া প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন ০১৯১৪২১৩৬৬১.
আপনাদের জ্ঞাতার্থে... continue reading

৪৯৫

সোহেল আহমেদ পরান

৩ বছর আগে লিখেছেন

বিশ্ব কবিতা দিবস আজ (World Poetry Day Today)

আজ “বিশ্ব কবিতা দিবস”। ১৯৯৯ সালে ইউনেস্কো ২১ মার্চকে বিশ্ব কবিতা দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। এই দিবস পালনের উদ্দেশ্য হল বিশ্বব্যাপী কবিতা পাঠ, রচনা, প্রকাশনা ও শিক্ষাকে উৎসাহিত করা। ইউনেস্কোর অধিবেশনে এই দিবস ঘোষণা করার সময় বলা হয়েছিল, “এই দিবস বিভিন্ন জাতীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক কবিতা আন্দোলনগুলোকে নতুন করে স্বীকৃতি ও গতি দান করবে।”
পূর্বে অক্টোবর মাসে বিশ্ব কবিতা দিবস পালন করা হত। প্রথম দিকে কখনও কখনও ৫ অক্টোবর এই উৎসব পালিত হলেও বিংশ শতাব্দীর শেষভাগে রোমান মহাকাব্য রচয়িতা ও সম্রাট অগস্টাসের রাজকবি ভার্জিলের জন্মদিন স্মরণে ১৫ অক্টোবর এই দিবস পালনের প্রথা শুরু হয়। অনেক দেশে আজও অক্টোবর মাসের কোনো দিন... continue reading

৪৮৬

মৌনতা

৩ বছর আগে লিখেছেন

বাংলা ডিকশনারি ঘাঁটাঘাঁটি করে কঠিন শব্দের মিশ্রণ কতটা শ্রেয়?

চলিত ভাষা কথ্য ভাষার জন্য উত্তম বিধায় সাধু ভাষা সেই কবে বিলীন হয়েছে।পাঠ্য বইয়ের পাতাতেও বিচরণ নেই সাধু ভাষার। তবু অনেকের লেখায়  কঠিন শব্দেরব্যবহার বিধায়  সাধারণের বোধগম্যের বাইরে চলে যায় লেখাগুলো অথবা পূর্ণস্বাদ প্রাপ্তি হয়না।  অনেকের কঠিন শব্দের ব্যবহার দেখে তো মাঝে মাঝে অবাকহই। এই ধরনের লেখাগুলো দেখলে প্রমথ চৌধুরীর "বই পড়া" প্রবন্ধটির কথা মনেপড়ে যায়। যদি কেউ না বুঝে লেখার মাহাত্য তবে কেন এই কঠিন শব্দের ব্যবহার? নাকি কঠিন শব্দের মিশ্রণ ছাড়া মানুষ কাউকে ভালো লেখক বলবেনা?  আমি অবশ্যকঠিন শব্দের ব্যবহারে সৃষ্ট লেখা পড়িনা। কারন আধুনিক যুগে সাধু ভাষারপ্রচলন নেই বিধায় আমি এই লেখা পড়ার আযোগ্য। তবে অনেক পাঠক তাদের... continue reading

৬৮৯

সেলিনা ইসলাম

৩ বছর আগে লিখেছেন

অবগুণ্ঠন ছায়া তলে

আজকাল ফেসবুকের মাধ্যমে মানুষের মনের অনেক কথায় জনসম্মুখে চলে আসে। আমি প্রায় দেখি অনেকেই বলেন "ধীরে ধীরে সবাই অনেক মানুষের মাঝে থেকেও একা হয়ে যাচ্ছেন!” কথাটা প্রবাসের জন্য সঠিক মনে হলেও,দেশের জন্য  আমার কাছে তেমন বিশ্বাস যোগ্য মনে হত না। কারণ দেশে মা বাবা ভাইবোন কত আত্মীয়স্বজন বন্ধু বান্ধব ওখানে কীভাবে সবাই একাকীত্ব অনুভব করে!? কিন্তু আমার সেই বিশ্বাস ভেঙ্গে গেছে যখন সত্যিই দেখি খুব কাছের কেউ ফোন দিলে বলে- “বড় একা লাগে। কাউকেই আর কাছে পাই না। সবাই যার যার মত করে ব্যস্ত। মরলাম না বেঁচে থাকলাম কেউ আমার খোঁজও নেয় না!” তাঁর দীর্ঘশ্বাসটা আমার বুকের ভীতরে বড় একটা ক্ষতের... continue reading

৫৬২

সোহেল আহমেদ পরান

৩ বছর আগে লিখেছেন

সৃজনশীল সাহিত্যচর্চায় ব্লগঃ বর্তমান প্রেক্ষাপট

লেখালেখি একটি সৃজনশীল কাজঃ  
লেখালেখি মানুষের মজ্জাগত একটা বিষয়। এটা ভেতর থেকে আসে। আমরা মনের টানে লিখে থাকি। মনের ভালোলাগা বা মন্দলাগাটুকু আমাদের লেখায় ওঠে আসে। ওঠে আসে কষ্টবোধ বা সুখবোধ। তাই জোর করে লেখালেখি করা প্রায় অসম্ভব। তাই লেখালেখির এই প্রয়াস- একে বলা হয় সৃজনশীল কাজ। সৃজনশীল কাজে স্বভাবিকভাবেই থাকে - স্বতন্ত্র চিন্তা, বোধ ও চেতনার হৃদ্য প্রকাশ। জোর করে সৃজনশীল এই কাজ করা সম্ভব না হলেও, অনুশীলন ও শেখার আগ্রহ ভালো লেখক হতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।  তাছাড়া, পাঠকের পাঠ-প্রতিক্রিয়া এবং লেখক-পাঠক মিথস্ক্রিয়ার মধ্য দিয়ে লেখার মান উন্নত করা সম্ভব। আগেকার দিনে, পাঠকের প্রতিক্রিয়া এবং লেখক-পাঠক মিথস্ক্রিয়ার বিষয়টি... continue reading

৪৫৮

রুদ্র আমিন

৩ বছর আগে লিখেছেন

পৃথিবীটা স্বার্থের বিনিময় হার (ক্যাটাগরি - ৩, পর্ব - ৪)

মানব জাতি হিসেবে জন্মগ্রহণ করে আমরা জগতের মাঝে কি চাই আর কি-ই-বা আমাদের দ্বায়িত্ব কর্তব্য আসলে কি আমরা সবাই সেই সম্পর্কে অবগত ? আমরা কি চাই, কি চাওয়ার, কি পাওয়ার, কি পেলেই আমাদের আত্মা তৃপ্ত হবে এর উত্তর আমার মনে হয়ে জগতের কারো নিকট নেই। তুমি যতই পড়িবে ততই শিখিবে তেমনি তুমি যতই পাইবে ততই চাইবে....তুমি যতই দিয়ে যাবে তোমার নিকট ততই চেয়ে যাবে..তোমার প্রাপ্যটা তুমি চাইলেই তুমি নষ্ট। 
 
 
দেয়ার মাঝেও নিজের জন্য যদি কেউ কিছু না করে তবে সেই মরিবে ধুকেধুকে..... চোখের মহাসাগরের জল থাকবে কিন্তু জল ভুলেও দু'চোখ বেয়ে ভুল ক্রমেও গড়িয়ে পড়বে না। শুধুই... continue reading

৪১৬

এ.টি. নূর শেখ লিটা

৩ বছর আগে লিখেছেন

"ফেলে আসা স্মৃতি"

সবার জীবনেই কম-বেশি অভিজ্ঞতা থাকে। প্রায় প্রতিনিয়তই কাউকে না কাউকে নতুন অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে হয়। আমিও হয়েছিলাম আর সেই অভিজ্ঞতার কথাই আজ বলব।  
(১) আমি তখন ক্লাস নবম শ্রেণীর ছাত্রী। যথানিয়মেই একদিন স্কুল থেকে বান্ধবীদের সাথে গল্প করতে করতে বাসায় ফিরছি। এমন সময় দেখলাম আমাদের পাশ কাটিয়ে তিন/চারটে ছেলে যাচ্ছে কিছুটা সন্ত্রাসীদের মত ভাব নিয়ে। অপেক্ষাকৃত সামনের ছেলেটি কি যেন বলছে আর কিছুক্ষণ পরপর সিগারেটে ফুঁ দিচ্ছে। এটা দেখে হতভম্ব আমি সেখানেই দাঁড়িয়ে পড়লাম কারন ছেলেটার বয়স বেশি হলেও ৯বছরের উপরে নয়। এতটুকু বয়সে কিভাবে মাদকের কালো থাবায় ছেলেটির সুন্দর জীবনটা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে সেকথা হয়ত ছেলেটি নিজেও... continue reading

৪২৯

সোহেল আহমেদ পরান

৩ বছর আগে লিখেছেন

বাবার পরান | পরানের অণু অনুভব

একঃ স্কুল থেকে ফিরে দেখি- সুন্দর ঘুড়িটা উড়ছে। নাটাইটা বাড়ির সামনে আকন্দ গাছে বাঁধা। লম্বা লেজের ঘুড়িটা দেখে মনটা ভরে যায়।
ঘুড়িটা আমার জন্য বানিয়েছিলেন আমার বাবা।

দুইঃ  তুমুল বৃষ্টি হচ্ছে। স্কুলের মাঠ ভেসে গেছে পানিতে। বৃষ্টি থামার নাম নেই। দিনের বেলায় নেমে এসেছে আঁধার। দেখি- বাবা হাজির স্কুলে ছাতা নিয়ে। বাবার হাত ধরে বাড়ি ফেরা - কতোই না সুখের।

তিনঃ  বইয়ের মলাটগুলো সুন্দর করে করে দিতেন বাবা। আর সুন্দর স্টাইল করে ক্লাস-রুটিনও লিখে দিতেন তিনি।
                        ||   ||   ||

সময় চলে। চলে। মিনিট। ঘন্টা। দিন। মাস। বছর। এভাবেই  চলে আসছেসময়ের পরিক্রমা।  সময় আসলে সময়েরই গহ্বরে মুখ লুকায়। পুরনো সময় গিয়ে... continue reading

১০ ৪৪৫

টি.আই.সরকার (তৌহিদ)

৩ বছর আগে লিখেছেন

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিঃ এ সমাজের জন্য শুভ না অশুভ ? [প্রবন্ধ] (পর্ব-৩, ক্যাটাগরি-৩)

জন্মলগ্ন থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত বিজ্ঞানের কল্যাণে যা দেখেছি তা এককথায় অবিশ্বাস্য ! প্রতিনিয়ত নতুন নতুন আবিষ্কারে বিজ্ঞান যেন চমকে দিচ্ছে সমগ্র বিশ্বকেই ! কিন্তু প্রযুক্তির এই নতুন নতুন সব আবিষ্কারই কি মানুষের জন্য কল্যাণকর ?
একটা সময় ছিল- যখন একজন মানুষ তার প্রিয় মানুষগুলোর সাথে যোগাযোগ করতে অপেক্ষা করতে হতো ১ সপ্তাহ কিংবা ১ মাস, কখনো কখনো হয়তো কয়েক মাসও ! প্রযুক্তির কল্যাণে আজ মুহূর্তেই একজন আরেকজনের কাছে যোগাযোগ করতে পারছে, কথা বলতে পারছে, একজন হাজার মাইল দূরে থেকেও অন্যজনকে দেখতে পারছে । একটা সময় হিসেব-নিকেশ রাখার জন্য কতো খাতাপত্র, রেজিস্টার রাখতে হতো । এখন এসব কাজ... continue reading

৫২২

এম রহমান

৩ বছর আগে লিখেছেন

হুমায়ুন আজাদকে নিয়ে চঞ্চল আশরাফের সাক্ষাতকার (কিস্তি-১)

পর্ব-১
১৯৯০ সালের খুব সম্ভবত এপ্রিলে, মাঝামাঝি কোনও এক দিনে হুমায়ুন আজাদেরসামনে নিজের কবিতা নিয়ে হাজির হওয়ার প্রথম সুযোগটি পাই। অনুষ্ঠানটি হয়েছিলটিএসসি ক্যাফেটেরিয়ার দক্ষিণপাশে, রোদ-ঝলমল বিকালে, বেশ অনাড়ম্বরভাবে।উদ্যোক্তা ছিলমঙ্গলসন্ধ্যা। মিহির মুসাকী, সরকার আমিন, লিয়াকতজুয়েল কবিতা পড়েছিলেন। সবার শেষে আমার পালা এলে আমি সে-সময়ের লেখা নিজেরসবচেয়ে ভালো কবিতাটি পড়ি। পড়ার সময় থেকে বুকে যে কাঁপুনি শুরু হয়েছিল, তাঅনুষ্ঠান শেষ-হওয়া পর্যন্ত ছিল। সবার কবিতা পড়া শেষ হলে হুমায়ুন আজাদ সে-সবনিয়ে আলোচনা শুরু করেন। কার কবিতা নিয়ে কী বলছেন সেদিকে আমার খেয়াল নেই।থাকার কথাও নয়। কারণ, (অন্যরা গোল্লায় যাক) আমার কবিতা নিয়ে তিনি কী বলেন, সেই ভাবনায় আচ্ছন্ন ছিলাম তখন। কিন্তু কিছুই... continue reading

৫৪৮