"বিবিধ" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

মোকসেদুল ইসলাম

৬ বছর আগে লিখেছেন

ঘুরে আসুন আমার ব্লগবাড়ি

ব্লগে আজকে একটি ভিন্ন বিষয় নিয়ে লিখছি। না, কোন গল্প, কবিতা বা উপন্যাস নয়। আজকে সকল ব্লগারদের নিমন্ত্রণ জানাচ্ছি আমার ব্লগবাড়ি থেকে ঘুরে আসার জন্য।
‘কি আছে আমার ব্লগে’ এটা না বলে বলা যায় ‘কি নেই এই ব্লগে’।
একজন নেট ব্যবহারকারীর প্রায় সবকিছুর প্রয়োজনীয় বিষয়ই পাওয়া যাবে আমার ব্লগে। ব্লগে ঢুকলেই একটি দৃষ্টিনন্দন পেজের পাশাপাশি প্রথমেই চোখে পড়বে জ্ঞানের তথ্যভান্ডার বলে পরিচিত উইকিপিডিয়ার সার্চবার, আছে গুগল সার্চবার, শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে রেখেছি কয়েকটি শিক্ষামূলক সাইটের লিঙ্ক। আমার এই ব্লগ থেকেই দেখতে পারেন অনলাইন সংবাদপত্রের লিঙ্ক। বিনোদনের জন্য আছে টপরেটেড ইউটিউব ভিডিও দেখার সুযোগ অন্য পেজে না গিয়েও সরাসরি আমার... continue reading

৩৬৮

নাজমুল হুদা

৬ বছর আগে লিখেছেন

মৌ

মৌমাছি মৌমাছি কোথা যাও নাচি নাচি
একবার দাঁড়াওনা ভাই,
ঐ ফুল ফোটে বনে যাই মধু আহরণে
দাঁড়াবার সময় তো নাই।
এত যে ব্যাস্ততা তা শুধু অসময়ে জীবন ধারণের চিন্তায়। শীত নামার আগেই পর্যাপ্ত খাদ্য যোগাড় করতেই হবে। ফুলে ফুলে ঘুরে মধুর কাঁচামাল ‘নেকটার’ সংগ্রহ করা বেশ কষ্টসাধ্য কাজ। আর শুধু সংগ্রহ করলেই তো হয় না, জমা করে রাখার আগে তা আবার বিভিন্ন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে রীতিমত শোধন করে নিতে হয়। আমাদের রান্না করে খাবার প্রস্তুত করার চেয়ে সে কাজ কোন অংশেই কম ঝক্কির নয়। সংগৃহীত নেক্টারে পানির পরিমান থাকে কম-বেশী ৬০% ভাগ। কিন্তু সঞ্চিত মধুতে কোনক্রমেই ২০% ভাগের বেশি পানি থাকা চলবে... continue reading

৫৪৬

নীল সাধু

৬ বছর আগে লিখেছেন

 আপনার দৃষ্টি সংযত করুন!

আমাদের দেখার জন্য দুটি চোখ আছে। আমরা তা দিয়েই এই পৃথিবীর সকল কিছু দেখি।
যা ভালো লাগে তা দেখি বেশী বেশী; যা খারাপ লাগে তা হয়তো কিছু কম।
দেখার এই চোখ একেকজন মানুষের একেক রকম। কেউ কচু পাতার শিশির দেখে আনন্দিত। কেউবা ঝাউ বন, কেউবা জাগতিক কিছু।
আজকে কিছু কথা বলি এই দেখার চোখ নিয়ে। আমাদের পঞ্চেন্দ্রিয়ের মধ্যে ৮৩ ভাগই নিয়ন্ত্রণ করে এই চোখ। তাই এই ইন্দ্রিয়ের ব্যাবহার আমাদের জীবনে একটি বিশেষ গুরুত্ব বহন করে।

আমার মনে হয় এই নগরের মানুষগুলোর চোখের দৃষ্টি বদলে যাচ্ছে দিনদিন।
অশিক্ষিত মানুষদের কথা বাদ... continue reading

৬৪৬

লুব্ধক রয়

৬ বছর আগে লিখেছেন

ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল কলামঃ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিপরীক্ষা

১.
কয়েক বছর আগে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিপরীক্ষা দিতে এসে একটা ছেলে গাড়ি অ্যাকসিডেন্টে মারা গিয়েছিল। আমি এই ঘটনাটার কথা কিছুতেই ভুলতে পারি না। শুধু মনে হয় কোনো দূর এক শহর থেকে ভর্তিপরীক্ষা দিতে এত দূরে তাকে টেনে আনার জন্যেই হয়তো তাকে এত অল্পবয়সে মারা যেতে হয়েছে।
বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিপরীক্ষার নামে সবাই মিলে যে ভয়ংকর একটি হৃদয়হীন পদ্ধতি দাঁড় করিয়ে রেখেছে সেই পদ্ধতিটিই কি কোনোভাবে এর জন্যে দায়ী নয়?
আবার ভর্তিপরীক্ষা আসছে। আমি জানি হাজার হাজার ছেলেমেয়ে তাদের অভিভাবকদের নিয়ে ভর্তিপরীক্ষা দেওয়ার জন্যে এক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আরেক বিশ্ববিদ্যালয়ে পাগলের মতো ঘুরে বেড়াবে। খাওয়া-ঘুম-বিশ্রাম দূরে থাকুক, অনেক জায়গায় তাদের একটা... continue reading

৫১৮

লুব্ধক রয়

৬ বছর আগে লিখেছেন

সাহিত্যে এ বছর নোবেল পুরস্কার পেলেন কানাডার ছোটগল্পকার এলিস মুনরো।

সাহিত্যে এ বছর নোবেল পুরস্কার পেলেন কানাডার ছোটগল্পকার এলিস মুনরো।
সুইডিশ অ্যাকাডেমি বৃহস্পতিবার বিজয়ী হিসেবে এই সাহিত্যিকের নাম ঘোষণা করে। নোবেল কমিটির বিবৃতিতে তাকে উল্লেখ করা হয়েছে সমসাময়িক ছোটগল্পের দিকপাল’ হিসাবে।
৮২ বছর বয়সী এই লেখিকা সাহিত্যে নোবেল বিজয়ী ১১০তম ব্যক্তি। পুরস্কারের অর্থমূল্য বাবদ ৮০ লাখ সুইডিশ ক্রোনার পাবেন তিনি। আগামী ১০ ডিসেম্বর স্টকহোমে আনুষ্ঠানিকভাবে তার হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে।
গত বছর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান চীনের মো ইয়েন।
continue reading

৫৫৫

ছাইফুল হুদা ছিদ্দিকী

৬ বছর আগে লিখেছেন

সীমাহীন নীল আকাশ।

রোদেলা দুপুর।সময় ৪টার ও কিছু পরে।
সুর্য দক্ষিন থেকে আলো ছড়াচ্ছিল।
সাজু আনমনা হাটছিল তাদের বাড়ীর দক্ষিনে ফলের বাগানে।
সাজুদের বাড়ীর দক্ষিনে পুরোটায় নানা ধরনের দেশী ফুল ও ফলের গাছে পরিপূর্ন।
তার পরে আরও বড় ধানের ক্ষেত।
যতদূর চোখ যায় পুরোটাই সবুজ।মন জুড়ানো সবুজের সমারোহ।
সাজুদের বাড়ীর বাগানে নানা ধরনের ফলের গাছ।
কি নেই এই বাগানে আম, কাঠাল, জাম, জাম্বুরা, জামরুল, আনারস, আতা,
লিচু, বরই, বাতাবী লেবু, কামরাঙ্গা, নারিকেল, সফেদা, তেতুল, পেয়ারা, আমলকি, আরও অনেক।
গাছের ডালে নানা জাতের প্রজাপতি ও পাখী। নানা রং এর প্রজাপতি ও পাখীর সুমধুর ডাক সব মিলিয়ে দারুন অপরুপ... continue reading

৬৯০

নীল সাধু

৬ বছর আগে লিখেছেন

কথা সাহিত্যিক প্রিয় হুমায়ূন আহমেদ এর কবিতা

প্রয়াত কথা সাহিত্যিক প্রিয় হুমায়ূন আহমেদ বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন এটা আমরা সকলেই জানি। সাহিত্যের প্রায় সকল শাখায় তার দীপ্ত বিচরন ছিল।  তিনি কিছু কবিতাও লিখেছিলেন। আমাদের অনেকের কাছেই কবি হুমায়ূন আহমেদ খুব অচেনা। আমি সে সব যতবার পড়ি ততবার অবাক হই। এই মানুষটি যদি শুধু কবিতাও লিখতেন তবু আমরা বহু বছর তাকে মনে রাখতাম। তার লেখা অল্প কিছু কবিতার লাইন যা পাঠকের মুখে মুখে ছিল অনেকদিন। 
আসুন তার লেখা কিছু কবিতা পড়ি
তার লেখা “কে কথা কয়"বইয়ের শুরুতে ছিল এই লাইনগুলি।
জলে কার ছায়া পড়ে
কার ছায়া জলে?
সেই ছায়া ঘুরে ফিরে
কার কথা বলে?
কে ছিল সেই শিশু
কি তাহার... continue reading

১৭ ৩৭৭৮

পঞ্চসুখ

৬ বছর আগে লিখেছেন

যাত্রা হোক শুভ

এই ব্লগ এর অনেককিছু নতুন যা অন্য ব্লগে নেই আবার অনেক জরুরী ফিচার এখনও চালু করতে পারেনি। যারা ব্যাবহার করছেন সবাই হয়ত এরমধ্যেই অবগত হয়েছেন।  যেহেতু একেবারে নতুন যাত্রা সময় লাগবে সবকিছু ঠিক করতে। আমরা অপেক্ষায় থাকলাম। আশাকরি পরিচালকবৃন্দ একটি সুন্দর কারিগরি বৈশিষ্ট্য সম্বলিত ব্লগ আমাদের উপহার দিতে পারবেন। আর ব্লগাররা তাদের ক্ষুরধার লেখনী দিয়ে নিজেকে, সমাজকে, দেশকে বিশ্বায়নের ধারায় সংযুক্ত করতে পারবেন।  ব্লগ পরিচালকদের অসংখ্য ধন্যবাদ (যদিও তাদের পরিচয় জানি না)।
continue reading

৫১৯

অ্যাব্স সোহেল

৬ বছর আগে লিখেছেন

শুভেচ্ছা বার্তা

আমি বাংলায় গান গাই 
আমি বাংলার গান গাই 
আমি, আমার আমিকে চিরদিন এই বাংলায় খুঁজে পাই ।। 
আমি বাংলায় দেখি স্বপ্ন 
আমি বাংলায় বাঁধি সুর 
আমি এই বাংলার মায়াভরা পথে হেঁটেছি এতটা দূর 
বাংলা আমার জীবনানন্দ 
বাংলা প্রানের সুর 
আমি একবার দেখি, বার বার দেখি, দেখি বাংলার মুখ ।। 
আমি বাংলায় কথা কই 
আমি বাংলার কথা কই 
আমি বাংলায় ভাসি, বাংলায় হাসি, বাংলায় জেগে রই ।। 
আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে 
করি বাংলায় হাহাকার 
আমি সব দেখে শুনে ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার 
বাংলাই আমার দৃপ্ত স্লোগান 
ক্ষিপ্ত তীর ধনুক 
আমি একবার দেখি, বার বার দেখি, দেখি বাংলার মুখ ।। 
আমি বাংলায় ভালবাসি 
আমি বাংলাকে ভালবাসি 
আমি তারি হাত ধরে সারা পৃথিবীর... continue reading

১২১২

মোকসেদুল ইসলাম

৬ বছর আগে লিখেছেন

সবাই কে শুভেচ্ছা

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আমি এই ব্লগে একদম নতুন। এখানে অনেক পরিচিতজন কে দেখতে পাচ্ছি। আশা করি অন্যান্য ব্লগের মতোই এখানেও সবার ভালোবাসা পাব, পাব উৎসাহ।।
আপনাদের উৎসাহ পেলেই আমি নিয়মিত লিখতে পারব ইনশাল্লাহ্। সবার দোয়া চাচ্ছি।
continue reading

৫৮২