"দিনপঞ্জি" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

নূর মোহাম্মদ নূরু

৩ বছর আগে লিখেছেন

বাংলাদেশের খ্যাতনামা চিত্রকর, কার্টুনিস্ট রফিকুন নবীর ৭২তম জন্মবার্ষিকীতে ফুলেল শুভেচ্ছা


স্বনামধন্য চিত্রশিল্পী রফিকুন নবী যিনি রনবী নামে সমাধিক পরিচিত। দশম শ্রেণীর ছাত্র থাকা অবস্থায় জীবনের প্রথম কার্টুনটি আঁকেন তিনি। কার্টুনটি ছিল ভিক্ষুকদের উপরে। বিষয় দারিদ্র্য। লক্ষ্য ছিল ভিক্ষুকদের ব্যবহার করে বাংলাদেশে দারিদ্র্যের অবস্থানটা তুলে ধরা। জীবনের প্রথম আঁকা সে কার্টুনটি কোথাও প্রকাশিত না হলেও আগ্রহ কমেনি এতটুকু। কার্টুনের প্রতি আগ্রহটা আরও বেশি জোরাল হয় ষাটের দশকের মাঝামাঝিতে, বিভিন্ন যুব সংগঠন, বিশেষ করে ছাত্র ইউনিয়নের কার্টুন পোস্টার আঁকার আহ্বানে। রনবীর টেকাই তার কার্টুন জীবনের এক নতুন মাইল ফলক। টোকাই এমন একটি নাম যা সামগ্রিকভাবে সব পথশিশুকেই নির্দেশ করে। '৭৬-এ বিদেশ থেকে ফিরে এসে পথশিশুদের নিয়ে কার্টুন আকায় আগ্রহী হয়ে ওঠেন... continue reading

৮৩৬

নূর মোহাম্মদ নূরু

৩ বছর আগে লিখেছেন

শহীদ নূর হোসেন দিবস আজঃ বিকশিত হোক মুক্ত গণতন্ত্রের চর্চা


আজ ১০ নভেম্বর মঙ্গলবার ‘শহীদ নূর হোসেন দিবস’। স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে গড়ে ওঠা দূর্বার আন্দোলনে জীবন দিয়ে গণতন্ত্রের জন্য লড়াই-সংগ্রামের ইতিহাসে স্মরণীয় দিন। শহীদ নূর হোসেন বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে সবচেয়ে স্মরণীয় নাম। যিনি মিটিং-মিছিল ও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার অধিকার সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে ইতিহাসের অংশ হয়ে আছেন। স্বৈরাচার পতনের আন্দোলনে সবসময় তিনি সক্রিয় ছিলেন মিছিল মিটিং সমাবেশে। এই অকুতোভয় যোদ্ধা অসাম্প্রদায়িক ও গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গড়তে বুকের তাজা রক্ত দিয়ে গেছেন। সময়ের সাহসী সন্তান নূর হোসেন সেদিন রাজপথে স্বৈরাচারের ভিত কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন ‘স্বৈরাচার নিপাত যাক, গনতন্ত্র মুক্তি পাক’ শ্লোগান বুকে পিঠে লিখে । ১৯৮৭ সালের ১০ই নভেম্বর তৎকালীন স্বৈরাচারী রাষ্ট্রপতি... continue reading

৪৩৫

নূর মোহাম্মদ নূরু

৩ বছর আগে লিখেছেন

উনবিংশ শতাব্দীর বাংলা নাটকের অন্যতম শ্রেষ্ঠ রূপকার দীনবন্ধু মিত্রের ১২২তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি


উনবিংশ শতাব্দীর বাংলা নাটকের অন্যতম শ্রেষ্ঠ রূপকার দীনবন্ধু মিত্র। তিনি নাটক লিখেছেন সাধারণ মানুষের জীবন নিয়ে, বাংলা নাটকের প্রাথমিক যুগে যা ছিল অপ্রত্যাশিত। দরিদ্র কৃষক, সমাজের তথাকথিত নিম্ন স্তরের মানুষ তাঁর লেখায় জীবন্ত হয়ে ফুটে উঠেছে। কবি ঈশ্রচন্দ্র গুপ্তের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে দীনবন্ধু মিত্র ছাত্রাবস্থা থেকেই সংবাদ প্রভাকর, সাধুরঞ্জন প্রভৃতি পত্রিকায় কবিতা লিখতে শুরু করেন। তবে তিনি খ্যাত হন নাট্য অঙ্গনের বলিষ্ঠ পদচারণায়। বাংলার আধুনিক নাট্যধারার প্রবর্তক মাইকেল মধুসূদন দত্তের সমসাময়িক দীনবন্ধু মিত্র মাইকেল প্রবর্তিত পৌরাণিক বা ঐতিহাসিক নাট্যরচনার পথে না গিয়ে বাস্তবধর্মী সামাজিক নাট্যরচনায় মনোনিবেশ করেন। এই ধারায় তিনিই হয়ে ওঠেন পরবর্তীকালের নাট্যকারদের আদর্শস্থানীয়। নীলদর্পণ (১৮৬০) তাঁর শ্রেষ্ঠ... continue reading

৯২৬

নূর মোহাম্মদ নূরু

৩ বছর আগে লিখেছেন

বিংশ শতাব্দীর আধুনিক বাংলার অন্যতম প্রধান কবি জীবানানন্দ দাশের ৬১তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি


বিংশ শতাব্দীর আধুনিক বাংলার অন্যতম প্রধান কবি জীবানানন্দ দাশ। মর্মগত, সুমিত, নিরাবেগ ও সুস্থির গদ্যরীতির জন্যে তিনি বিশিষ্ট। গ্রামবাংলার ঐতিহ্যময় প্রকৃতি তাঁর কাব্যে রূপময় হয়ে উঠেছে। আধুনিক নাগরিক জীবনের হতাশা, নিঃসঙ্গতা, বিষাদ ও সংশয়ের চিত্র তাঁর কবিতায় দীপ্যমান। স্বচ্ছ, সুন্দর, শান্ত ও স্নিগ্ধ রোমান্টিক কবিতার স্রষ্টা হিসেবে তিনি স্মরণীয় ও বরণীয়। তাঁর নিসর্গ বিষয়ক কবিতা ষাটের দশকে বাঙালির জাতিসত্তা বিকাশের আন্দোলনে ও ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে এদেশের সংগ্রামী জনতাকে তীব্রভাবে অনুপ্রাণিত করেছিল। জীবানানন্দ দাশের বিখ্যাত কবিতা "বনলতা সেন"। ব্যাপক পাঠক জনপ্রিয় হয়ে ওঠে কবিতাটি। মুখে মুখে ঘুরে ফিরে এই কবিতার পঙক্তি। কবি ১৯৩৩ সালে ‘বনলতা সেন’ কবিতাটি লিখলেও জীবদ্দশায় কবি... continue reading

৮৯৬

নূর মোহাম্মদ নূরু

৩ বছর আগে লিখেছেন

তেভাগা আন্দোলনের কৃষক নেত্রী কমরেড ইলা মিত্রের ত্রয়োদশ মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি


বাঙালি মহিয়সী নারী, তেভাগা আন্দোলনের নেত্রী, বাংলার শোষিত ও বঞ্চিত কৃষকের অধিকার আদায়ে সংগ্রামী কৃষক নেত্রী ইলা মিত্র। বঞ্চিত মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় যিনি স্বেচ্ছায় জীবনের সুখ স্বাচ্ছন্দ্য বিসর্জন দিয়েছিলেন, ভোগ করেছেন অমানুষিক নির্যাতন। কিন্তু থেমে যায়নি যাঁর আদর্শের লড়াই। জীবনের শেষ দিনটি পর্যন্ত সাধারণ মানুষের জন্য লড়ে গেছেন যে সংগ্রামী, মহিয়সী নারী তিনি বাংলার কৃষকের রাণী'মা ইলা মিত্র। ১৯৪৬-৪৭ সালে ডিসেম্বর, জানুয়ারি, ফেব্রুয়ারি মাসে তখনকার পূর্ববঙ্গ (বাংলাদেশ) ও পশ্চিমবঙ্গে যে তেভাগা সংগ্রাম হয়েছিল তা ছিল যেমন বিরাট, তেমনি জঙ্গী। ৬০ লাখ দুঃস্থ ভাগচাষী হিন্দু, মুসলমান, উপজাতি মেয়ে-পুরুষ জীবনকে তুচ্ছ করে ঐ সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। বাংলার মাটি হিন্দু, মুসলমান উপজাতি... continue reading

৬৮৪

নূর মোহাম্মদ নূরু

৩ বছর আগে লিখেছেন

ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম প্রভাবশালী বিপ্লবী ভগৎ সিং এর ১০৮তম জন্মবার্ষিকীতে শুভেচ্ছা


অবিভক্ত ভারত থেকে ব্রিটিশ শাসন উৎখাত করার অন্যতম প্রভাবশালী ভারতীয় স্বাধীনতা সংগ্রামী বিপ্লবী ভগৎ সিং। তাঁকে শহীদ ভগৎ সিংহ নামে অভিহিত করা হয়। ১৯১৯ সালের জালিয়ানওয়ালাবাগের নৃশংস হত্যাকাণ্ড তার মনে গভীর রেখাপাত করে। ১৯১৯ সালের ১৩ এপ্রিল ভগৎ সিং সেই মর্মান্তিক ঘটনা শোনেন, এরপর তিনি বাসে করে ৪০/৫০ মাইল দূরে অমৃতসরের জালিয়ানওয়ালাবাগে ছুটে যান। সেখানকার ত্রাস ও দুর্যোগের পরিবেশ উপেক্ষা করে কুড়িয়ে আনেন সেই রক্তরঞ্জিত মাটি। এই মাটি তাঁর কাছে সোনার চেয়েও খাঁটি। এ মাটি বিদ্রোহের প্রতীক। এভাবে ভগৎ সিং ছেলেবেলা থেকেই ব্রিটিশদের প্রতি ঘৃণা ও বিপ্লবীদের প্রতি শ্রদ্ধা প্রর্দশন করেছেন। আর দেশকে মুক্ত করার জন্য জীবন বাজী রেখে... continue reading

৮৬১

নূর মোহাম্মদ নূরু

৩ বছর আগে লিখেছেন

প্রখ্যাত ঐতিহাসিক, ছন্দবিশারদ ও রবীন্দ্র বিশেষজ্ঞ প্রবোধচন্দ্র সেনের ২৯তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি

প্রখ্যাত ঐতিহাসিক, ছন্দাসিক এবং রবীন্দ্রবিশেষজ্ঞ প্রবোধচন্দ্র সেন। বাংলা ছন্দের নিপুণ বিশ্লেষণে, বাংলা ছন্দের ইতিহাস রচনায়, রবীন্দ্রনাথ ও অন্য প্রধান কবিদের ছন্দ বিশ্লেষণে, অন্য ছন্দসিকদের ছন্দ আলোচনার বিচারে, বাংলা ছন্দের ব্যাকরণ ও পরিভাষা নির্মিতিতে অসাধারণ পাণ্ডিত্যের পরিচয় প্রদান করেন প্রবোধচন্দ্র সেন। জীবনের একটা বৃহৎ সময় তিনি ছন্দ-বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বিতর্ক-আলোচনা শেষে বাংলা ছন্দের তিন রীতির নামকরণ করেন মিশ্রবৃত্ত, কলাবৃত্ত ও দলবৃত্ত। ছন্দচর্চা ও ইতিহাসচর্চার সঙ্গে রবীন্দ্রচর্চা প্রবোধচন্দ্র সেনের আরেক সাধনা। ১৯২২ সালে কলেজে পড়ার সময়ে তিনি ‘বাংলাছন্দ’ শীর্ষক একটি দীর্ঘ প্রবন্ধ লেখেন, যা সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত-এর প্রশংসা ও সম্মতি লাভ করে ধারাবাহিকভাবে প্রবাসী পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। প্রবোধচন্দ্র সেনের ছন্দবিষয়ক এ প্রবন্ধ পড়ে রবীন্দ্রনাথ... continue reading

৪৮৮

নূর মোহাম্মদ নূরু

৪ বছর আগে লিখেছেন

বাংলা ভাষার অন্যতম শ্রেষ্ঠ কথাসাহিত্যিক, ঔপন্যাসিক ও গল্পলেখক তারাশংকর বন্দোপাধ্যায়ের ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি


বাংলা ভাষার অন্যতম শ্রেষ্ঠ কথাসাহিত্যিক, ঔপন্যাসিক ও গল্পলেখক তারাশংকর বন্দোপাধ্যায়। ছোট বা বড় যে ধরনের মানুষই হোক না কেন, তারাশঙ্কর তাঁর সব লেখায় মানুষের মহত্ত্ব ফুটিয়ে তুলেছেন, যা তাঁর লেখার সবচেয়ে বড় গুন। সামাজিক পরিবর্তনের বিভিন্ন চিত্র তাঁর অনেক গল্প ও উপন্যাসের বিষয়। তাঁর লেখায় বিশেষ ভাবে বীরভূম-বর্ধমান অঞ্চলের সাঁওতাল, বাগদি, বোষ্টম, বাউরি, ডোম, গ্রাম্য কবিয়াল সম্প্রদায়ের কথা পাওয়া যায়। সেখানে আরও আছে গ্রাম জীবনের ভাঙনের কথা, নগর জীবনের বিকাশের কথা। আজ এই ঔপন্যাসিক ও গল্পলেখকের ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৭১ সালের আজকের দিনে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক তারাশংকর বন্দোপাধ্যায়ের মৃত্যুদিনে আমাদের শ্রদ্ধাঞ্জলি।


তারাশংকর বন্দোপাধ্যায় ১৮৯৮ সালের... continue reading

৭০৪

নূর মোহাম্মদ নূরু

৪ বছর আগে লিখেছেন

গণ চীনের অবিসংবাদিত মহান নেতা কমরেড মাও সেতুং এর ৩৯তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি


সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা এবং গণ চীনের বিপ্লবী নেতা, মার্কস্‌বাদী তাত্ত্বিক ও রাজনৈতিক নেতা কমরেড মাও সেতুং। জন্ম নয়, কর্মটাই মুখ্য। কর্মের কারণেই – জন্মের র্সাথকতা, বা তার র্ব্যথতা। কিছু কিছু জন্ম র্সাথক হয়ে গড়ে ওঠে এমন এক সত্তা, যা তার মৃত্যুকেও ছাপিয়ে তার ব্যাপ্তিকে পৌঁছে দেয় এক নতুন উচ্চতায়। যে সত্তা আজীবন বিপ্লবী, মানব মুক্তির সংগ্রামে যে সত্তা সদা জীবন্ত। এমনই এক সত্তা কমরডে মাও সেতুঙ।মার্কসবাদ-লেনিনবাদে তার তাত্ত্বিক অবদান। সমর কৌশল এবং তার কমিউনিজমের নীতি এখন একত্রে মাওবাদ নামে পরিচিত। মাও ছাত্রজীবন থেকেই রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তবে ২৪ বছর বয়সে রাজধানী পিকিংয়ে গমন এবং মার্কস তত্ত্বের... continue reading

৬৮৯

নূর মোহাম্মদ নূরু

৪ বছর আগে লিখেছেন

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মনীষী ড. নীহাররঞ্জন রায়ের ৩৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি


দেশবরেণ্য ইতিহাসবিদ, সাহিত্য সমালোচক ও শিল্পকলা-গবেষক বাঙালি পণ্ডিত নীহাররঞ্জন রায়। তিনি ছিলেন বাংলার ইতিহাস, সমাজ, সাহিত্য, সংস্কৃতি এবং ভারতীয় শিল্পকলায় বিশেষজ্ঞ। শিল্প-ইতিহাস চর্চায় তিনি প্রথম খ্যাতি অর্জন করেন। ১৯৬৫ সাল পর্যন্ত তিনি ভারতীয় রাজ্যসভার মনোনীত সদস্যরূপে কর্মরত ছিলেন। বাংলাদেশে জন্মগ্রহণকারী ড. নীহাররঞ্জন রায় ভারতের শেষ বহুশাস্ত্রজ্ঞদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন। ১৯৮১ সালের আজকরে দিনে তিনি কলকাতায় নিজ বাসভবনে লোকান্তরিত হন। আজ এই মনীষীর ৩৪তম মৃত্যুবার্ষিকী। দেশবরেণ্য বাঙালি পন্ডিত নীহাররঞ্জন রায়ের মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি।


নীহার রঞ্জন রায় ১৯০৩ সালের ১৪ই জানুয়ারী ময়মনসিংহের কিশোরগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর প্রাথমিক শিক্ষা ময়মনসিংহে সম্পন্ন হয়। পিতা মহেন্দ্রচন্দ্র রায় ছিলেন স্থানীয় ন্যাশনাল স্কুলের... continue reading

৬৫৬