"জীবনচর্চা" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

জাকিয়া জেসমিন যূথী

৫ বছর আগে লিখেছেন

ভাই বোনেরা সবাই আসুন, বলুন সবাই- আছেন কেমন?

তুমি শৈশব পাড়ায় বেড়িয়ে এলে
শৈশব তোমায় ছুঁইয়ে ছুঁয়ে যায়
আমার একলা প্রহর কাটছে একাই বেশ
তোমার শৈশব আমায় ডাক দিয়ে যায়!

একটা উৎসবের ছুটির প্রহর শেষ
এবার নিজের ভুবনে ফেরার পালা
শহরে নেমেছে কাজের প্রহর বেশ!
একলা সুখের আমেজ করে খেলা

বন্ধু, ডাক দিয়ে যাও আমায়,
তোমার সোনালী শৈশবের ডানায়।

নাগরিক ব্যস্ততা ছেড়ে কর্মজীবী সব বন্ধুরা ঈদ উদযাপনে নিজ নিজ দেশের বাড়ি অথবা প্রিয়জনের কাছে গিয়েছিলো। ইতোমধ্যে অনেকেই ফিরেছে এবং এখনো ফিরবে বা আরও পরে ফিরবে। ব্যস্ত হয়ে উঠবে নগরী পুনরায়। এই... continue reading

২০ ৪৭০

বাংলা নিউজ

৫ বছর আগে লিখেছেন

যেসব কারণে প্রেমিকা গুডবাই জানাতে পারে

ঢাকা: চারাগাছ বোনার পর যত্ন নিলে সেটি যেমন সুস্থ-সুন্দরভাবে বেড়ে ওঠে। সম্পর্কের ক্ষেত্রেও তেমনি যত্ন নিলে আরও মজবুত হয়। অনেক সময় দেখা যায় প্রেমের সম্পর্ক হয় ঠিকই কিন্তু সামান্য ভুলত্রুটির কারণে ভেঙ্গে যেতে পারে সে সম্পর্ক। কোনো প্রেমিকা সম্পর্ক ভেঙে দিতে চান না। তারপরও প্রেমিকের খুতখুতে স্বভাব, সম্পর্কের অবহেলা, দায়ত্বজ্ঞানহীন আচরনের কারণে সম্পর্ক ভেঙ্গে যায়।
প্রেমিকার অনেক কিছুই মনের মতো নাই হতে পারে। তাই বলে সারাক্ষণ প্রেমিকার খুটিনাটি বিষয় তুলে ধরলে প্রেমিকা বিষয়টি স্বাভাবিকভাবে মেনে নিবে না। সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে চেষ্টা করুন প্রেমিকার পজিটিভ বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলতে।
পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন পুরুষ নারীর পছন্দের শীর্ষে। প্রেমিকের নোংরা ও এলোমেলো পোশাক, কালি ছাড়া... continue reading

৪২৭

ফারজানা মৌরি

৫ বছর আগে লিখেছেন

পা মালিশের ৫ গুণ

পায়ে ব্যথা হলে কিংবা পায়ের আরামের কারণে অনেকেই পায়ের পাতাসহ পা মালিশ করেন। এটা শুধু শরীরকে সাময়িক আরামই দেয় না, নানা অসুখও দূর করে থাকে।
সম্প্রতি ভারতের ন্যাশনাল ক্যান্সার ইন্সটিটিউট এবং ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব হেলথের এক দল গবেষক এ বিষয়ে গবেষণা করেন। এতে কিছু বিস্ময়কর তথ্য বের হয়ে এসেছে।
গবেষণায় দেখা যায়, প্রতিদিন কমপক্ষে ১৫ মিনিট মালিশ করলে পেশীর ব্যথা দূর হয়। সেইসঙ্গে মানসিক শান্তিও পাওয়া যায়। এছাড়া অনিদ্রা, উদ্বেগ ও বিষণ্ণতা দূর হয়।
এটা শরীরে অক্সিজেনের প্রবাহ ঠিক রেখে কোষে প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহ করে। এবং শরীরের ভেতরে জমে থাকা বিষাক্ত পদার্থের প্রভাব কমতে শুরু করে।
... continue reading

৪১৬

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

ফারজানা মৌরি

৫ বছর আগে লিখেছেন

পুরুষের কাছে নারীরা কী চায়?

নারীরা যে কী চায় তা ঈশ্বরও জানে না- বিশ্বের প্রায় সকল দেশের কোন না কোন মনীষীর এ সংক্রান্ত বাণী রয়েছে। অনেকেই মনে করেন নারীরা দামী শাড়ি, সোনা কিংবা হীরার অলংকার, ডালা ভর্তি উপহার  কিংবা বিদেশে ভ্রমণ করতে পছন্দ করেন। আবার অনেক পুরুষ বলেন ‘নারীর চাওয়ার শেষ নেই’। আদৌ কি তাই? সঙ্গী অভিনয় জগতের তারকা হোক, গৃহিনী হোক কিংবা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হোক প্রতিটি নারীর চাওয়া কিন্তু একই।
সংবেদনশীল পুরুষেরা সব সময় নারীর পছন্দের শীর্ষে। আপনার নারী সঙ্গী হয়তো খুব তুচ্ছ কারণে হাউমাউ করে কান্না করছেন,তার কান্না দেখে আপনার প্রচণ্ড হাসি পাচ্ছে, তাই বলে তখন ভুলেও হাসতে যাবেন না।  হাসি চেপে রেখে... continue reading

৩৯০

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

ফরাসি সাহিত্যক, রাজনীতিবিদ এবং মানবাধিকার কর্মী ভিক্টর হুগোর ১২৯তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি

 

ঊনিশ শতকের সবচেয়ে প্রভাববিস্তারকারী কবি, রোমান্টিসিজমের অগ্রদূত ফরাসি সাহিত্যক ভিক্টর হুগো। সারা বিশ্বে ভিক্টর হুগোর পরিচিত এক অসাধারণ ঔপন্যাসিক হিসেবে।কবি হিসেবেও অনেকে তাকে জানেন। কিন্তু তার মেধা অনেক দিকেই পরিব্যাপ্ত ছিল, যা আজো শিল্পবোদ্ধাদের চিত্তাকর্ষণ করে অনন্য মহিমায়। ফরাসি এই লেখক ছিলেন একাধারে সাহিত্যক, রাজনীতিবিদ, এবং মানবাধিকার কর্মী। তাঁর সময়ের বহু তরুণ লেখকের মত হুগোও গভীরভাবে প্রভাবিত ছিলেন রোমান্টিসিজম নামক সাহিত্যিক ধারার অগ্রপথিক এবং ১৯ শতকে ফ্রান্সের প্রখ্যাত চরিত্র François-René de Chateaubriand দ্বারা। হুগো যৌবনে এ প্রতিজ্ঞাও করেছিলেন যে, তিনি হয় চ্যাটুব্রায়েন্ডের এর মত হবেন অথবা কিছুই হবেন না। Chateaubriand এর মত হুগোও রোমান্টিসিজমের ধারাকে এগিয়ে নিয়ে... continue reading

৩৭৭

শফিক সোহাগ

৫ বছর আগে লিখেছেন

সফি ভাইয়ের চায়ের দোকান

শফিক সোহাগ

চট্টগ্রামের সংস্কৃতি কর্মীদের এবং সংস্কৃতি প্রেমীদের অতি প্রিয় স্থান জেলা শিল্পকলা একাডেমি । কর্মব্যস্ত নগর জীবনের সারাদিনের ক্লান্তি কাটাতে শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে পদচারণা না করলেই নয় । তাই সারাদিনের ব্যস্ততা শেষে সংস্কৃতিপ্রেমী মানুষ এখানে ছুটে আসেন একটু বিনোদন আর প্রশান্তির আশায় ।  
শিল্পকলা একাডেমিতে বিচরণকারী সংস্কৃতি কর্মীদের এবং সংস্কৃতি প্রেমীদের প্রশান্তি প্রদানে ওতপ্রোত ভাবে জড়িত আছে সফি ভাইয়ের চায়ের দোকান । রিহার্সালের সময় যখন সংস্কৃতি কর্মীরা ক্লান্তি বোধ করেন তখন সবাই ছুটে যান সফি ভাইয়ের চায়ের দোকানে । অনুষ্ঠান চলাকালীন সময়ে শিল্পকলা একাডেমিতে আগত সংস্কৃতি প্রেমীদের চায়ের কাপে একটু চুমুক না দিলেই যেন নয় ।
... continue reading

৭০৫

রাজীব নূর খান

৫ বছর আগে লিখেছেন

প্রেসার নিয়ন্ত্রণ করুন

আমাদের দেশে প্রতি পাঁচ জনে একজন ব্লাড প্রেসারে ভুগছে। হাই ব্লাড প্রেসার হওয়ার অন্যতম কারণ হলো পটাশিয়াম ও হাইসোডিয়াম খাবার। পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার যেমন লেবু, কমলালেবু, কলা, টমেটো, ডাবের পানি খেতে হবে।  কোলেস্টেরল সমৃদ্ধ খাবার যেমন ক্রিম, মাংস, ডিমের কুসুম, মাখন, ফ্রেঞ্জ ফ্রাইজ সম্পূর্ণভাবে এড়িয়ে চলতে হবে। প্রচুর পরিমাণ ফল ও সবজি খেতে হবে। ফ্যাট জাতীয় খাবার কখনোই খাবেন না। তেল, ঘি, মসলা এড়িয়ে চলতে পারলে আরও ভালো হয়।
নিয়মিত এক্সারসাইজ ম্যাজিকের মতো কাজ করে ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণ করতে এবং যাঁদের এখনও এই সুখী রোগটি চেপে ধরেনি তাঁদের এর থেকে শত হাত দূরে রাখতে। প্রতিদিন নিয়ম করে ১২০... continue reading

৪৮৫

তাপস কিরণ রায়

৫ বছর আগে লিখেছেন

পিরামিডের চিকিৎসা শক্তি--(৩য় পর্ব)

ঘরে পিরামিড বানাবার বিধি
পিরামিড তৈরির বিধি জানতে পারলে তবেই তার বিভিন্ন সহজ প্রয়োগগুলি আমাদের দ্বারা সম্ভবপর । এ কথা ভেবে পিরামিড বানাবার সহজ পদ্ধতি সম্বন্ধে লিখছি । সামান্য ভাবে আমরা ঘরের ব্যবহার্য বস্তু যেমন--প্লাই সিট্ , পিচ বোর্ড , পেপার ফ্লপ , প্লাস্টিক সিট্ , কাঁচ , ধাতু নির্মিত শিট , থার্মোকোল , ফাইবার ইত্যাদি ছাড়াও যে কোন প্রকার ধাতুতেই আমরা পিরামিড বানাতে পারি ।
সাধারণ নিয়ম :
এতে মোটা কাগজ বা পিজবোর্ডে চারটি সমান সম দ্বিভুজ ত্রিকোণ বানাতে হবে । এ জন্যে স্কেল , পেন্সিল , ডট পেনের সাহায্য নেওয়া যেতে পারে । মানা যাক ধরা... continue reading

৫৮৯

রাজীব নূর খান

৫ বছর আগে লিখেছেন

আক্কেল দাঁত এর সমস্যা ও প্রতিকার (বাঙালী দাত থাকতে দাতের মর্যাদা বুঝে না)

আক্কেল দাঁত উঠলেই তার আক্কেল-বুদ্ধি বেশি থাকবে, আর না উঠলে কম থাকবে তার কোনো কারণ নেই। আক্কেল দাঁতে খুব ব্যথা হয় এবং খেতে কষ্ট হয়। আক্কেল দাঁতের সমস্যার ধরন বুঝে বেশিরভাগ সময়েই দাঁতটি ফেলে দেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। দাঁতের রোগ হলে তার চিকিৎসা না করালে তা থেকে চোখ বা ব্রেইনের গুরুতর সমস্যা হতে পারে। আক্কেল দাঁত ওঠার সময় তার উপরের মাঢ়ি ফুলে যায়- ফলে তার ভেতর খাবার ঢুকে এই ব্যথার সৃষ্টি করে। ঢোক গিলতে কষ্ট অথবা হাঁ করতে কষ্ট হয়। অনেক সময় আবার আক্কেল দাঁত তার পাশের দাঁতেরও ক্ষতি করে।
আক্কেল দাতঁ সাধারনত ১৭ থেকে ২৪ বছরের মধ্যে... continue reading

৯৪১