"জীবনচর্চা" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

ফারজানা মৌরি

৫ বছর আগে লিখেছেন

ইটের শহরে শখের বাগান

ইট-পাথরের শহরে চনমনে রাখা যায় যদি ভবন বা অ্যাপার্টমেন্টের সামনে গাছগাছালি থাকে। ব্যস্ত দিন শেষে ক্লান্ত মনে ঘরে ফিরে নিজের বাসার গেটের সামনে দাঁড়াতেই মনটা কেমন সতেজ হয়ে যায়। বাসার সামনে এক চিলতে জায়গায় যদি কিছু গাছ-গাছালি, লতা-গুল্ম থাকে তাহলে যে কারো মন ভালো না হয়ে পারেই না।
ছয়তলা বাড়ির ফ্ল্যাটের বাসিন্দারা বিকেলটা কাটানোর জন্য ভবনের প্রবেশপথে গাছগাছালিঘেরা জায়গাটুকু বেছে নেন। আর গাছগাছালি ঘেরা এই ছোট্ট বাগানের সামনে বসার জন্য যদি কয়েকটি বেঞ্চ পাতা থাকে তাহলে সময়টা ভালো কাটে সেটি বোঝা যায়। কেউ কেউ আবার নিত্যদিনের হাঁটাও সেরে ফেলেন তখন।
এখন শহরের বাড়িগুলোর সামনে বাগান করার চল শুরু হয়েছে। অ্যাপার্টমেন্টের... continue reading

৪৬৯

ফারজানা মৌরি

৫ বছর আগে লিখেছেন

ঘরের সাজে তৈরি করুন ইতিবাচক মনোভাব

কেমন হতো যদি ঘরে ঢুকলেই মনের সব দুঃখ কষ্ট নিমিষেই দূর হয়ে যেতো। ঘরের যেদিকেই তাকাতেন সেদিকেই শুধু মন ভালো করে দেয়ার মত জিনিসপত্র থাকতো! পুরোই যেন স্বপ্নের বাড়ি তাই না? এমন একটা বাড়ির স্বপ্ন সবারই থাকে। খুব সহজেই আপনার বাড়িটিকেও সাজিয়ে নিতে পারবেন এভাবে। জানতে চান কীভাবে? জেনে নিন কিছু সহজ উপায়।
১) ঘরের দেয়ালের রং হিসেবে ব্যবহার করুন সাদা, হালকা গোলাপি, হালকা টিয়া রঙ অথবা উজ্জ্বল হলুদ। এই রঙ গুলো মনে ইতিবাচক প্রভাব বিস্তার করে। ফলে ঘরের দেয়ালে তাকালে মন ভালো হয়ে যায়।
২) ঘরের দেয়ালে খুব বেশি কিছু ঝোলাবেন না। যত খালি রাখা যায় ততই ছিমছাম দেখাবে... continue reading

৪৪৮

গোলাম মাওলা আকাশ

৫ বছর আগে লিখেছেন

মিলাদ ও শিরনি

মিলাদ ও শিরনি
 
ছোটতে গ্রামের পরিবেশে আমার বেড়ে উঠা। আমার শৈশব কৈশোরের সময় গুলি কেটেছে গ্রামীণ মুক্ত আলো বাতাস আর সবুজের সংস্পর্শে।কত মজা কত হাসি আনন্দ আর স্মৃতি মিশে আছে গ্রামীণ পথে ঘাটে। গ্রামের সমবয়সী বন্ধু বা একটু বড় বন্ধুদের নিয়ে ফুটবল, ডাংগুলি, মার্বেল, সাতার সহ কত খেলা খেলেছি। একসাথে আবার হেঁটেছি স্কুলের পথে। সেই আনন্দময় জীবনের একটি ঘটনা বা এখনো ঘটে যাওয়া বিষয় নিয়ে আজ আমার স্মৃতিচারণ বা জাবর কাটাও বলতে পারেন।
গ্রামের সহজ সরল মানুষের কাছে ধর্ম বলতে গ্রামের মাওলানারা(মলবি, মৌলভি,হুজুর) যা বলত তাই। তাদের জীবনের ও আখিরাতের জীবনের জন্য শুধু শুক্রবারের নামাজটাই কাফি( যদিও... continue reading

৫৫২

ফারজানা মৌরি

৫ বছর আগে লিখেছেন

৫০০ বছরের পুরনো বাড়ি, ধসে পড়ার আগে-পরে

ছবি: সংগৃহীত   ইংল্যান্ডের ডেভন শহরের হায়েস লেনে থেকে হঠাৎ ৯৯৯ নম্বরে (এসওএস-সেভ আওয়ার সোল) ফোন আসে। বলা হলো, একটি সংস্কার প্রক্রিয়াধীন পুরনো বাড়ি ধসে পড়েছে।  
এটুকু পড়ে মনে হবে, পুরনো বাড়ি ধসে পড়তেই পারে, এ আর এমন কী! কিন্তু বাড়িটি শুধু পুরনো নয়, ৫শ’ বছরের পুরনো। 
জানা যায়, খড়চালা এ বাড়িটি পুনঃসংস্কারের জন্য তালিকাভুক্ত ছিল। বেশকিছু কাজও এগোয়। তবে হঠাৎ করে ভেঙে পড়ায় বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয় ৫শ’ বছরের পুরনো বাড়িটি।  
যথারীতি সেখানে উঠবে নতুন বাড়ি। কিন্তু কর্তৃপক্ষ পুরনো বাড়িটির স্মৃতি ধরে রাখতে ভোলেন নি। চালা আর দেয়াল ধসে পড়া ভাঙাচোরা বাড়ির ছবিই তুলে রাখা হয়েছে। ভেঙে পড়ার আগে-পরের ছবিই এখন বিভিন্ন... continue reading

৩৭০

ফারজানা মৌরি

৫ বছর আগে লিখেছেন

ফ্ল্যাট থাকুক খোলামেলা

  অনেক শৌখিন ব্যক্তি আছেন যারা তাদের সখের ফ্ল্যাটটিকে খুব সুন্দরভাবে সাজাতে ভালোবাসেন। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে যত বড় ফ্লাটেই আপনি থাকেন না কেন আপনার প্রয়োজনের তুলনায় সেটিকে অনেক ছোট মনে হয়। 
ছোট্ট ফ্ল্যাটটিকেই দেখাতে চান খোলামেলা? তাহলে আসুন জেনে নেই সহজ কিছু কৌশল।
পছন্দে নান্দনিক হন :
আপনি আপনার প্রিয় ফ্ল্যাটটিতে কি ধরনের আসবাবপত্র আনবেন সেক্ষেত্রে নান্দনিকতার ছোঁয়া দিন। অর্থাৎ ভাবুন যে কোন ধরনের আসবাবে আপনার ফ্ল্যাটটি অনেক সুন্দর হবে পাশাপাশি অতিরিক্ত জায়গা নষ্ট হবে না। বাজারে এমন আসবাবের অভাব নেই যা তার সৌন্দর্যে আপনার মনকেও ছুঁয়ে যাবে সাথে আপনার ফ্ল্যাটটিকে ঘিঞ্জি বানিয়ে ফেলবে না। এ ধরনের আসবাব পছন্দ করুন এবং... continue reading

১৬ ৪১০

ধ্রুব তারা

৫ বছর আগে লিখেছেন

পিঁপড়ার উৎপাত থেকে সহজ মুক্তি পান

  বাড়িতে পিঁপড়ার উৎপাতে অতিষ্ট! কোনোভাবেই মুক্তি পাচ্ছেন না। খাবার টেবিলে, রান্না ঘরে, শোবার ঘরে পিঁপড়া। মাঝরাতে আঁৎকা কানের ভেতরে ঢুকে রাতের ঘুম হারাম করে দিচ্ছে। বাড়িতে ছোট শিশু তাই ম্যাজিক চক ব্যবহার করতে পারছেন না। এটা বাসায় না নেয়াই ভালো কারণ বিষাক্ত। কিন্তু আপনি এসব বিষাক্ত বস্তু ছাড়াও পিঁপড়ার উৎপাত থেকে মুক্তি পেতে পারেন। যেমন:
পরিষ্কার রাখুন সবকিছু
বাসা-বাড়ির সব কোণায় নিয়মিত পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালান। পানিতে কীটনাশক লিকুইড মিশিয়ে প্রতিদিনি দু’বার করে মেঝে মুছতে পারেন। কোথাও নোংরা জমতে দেবেন না। ডাস্টবিন সব সময় খালি রাখার চেষ্টা করুন। ডাইনিং টেবিলে খাবার দীর্ঘক্ষণ ফেলে রাখবেন না। খাওয়ার শেষে বাসনপত্র ধুয়ে... continue reading

৩৭৫

ফারজানা মৌরি

৫ বছর আগে লিখেছেন

সফল হওয়ার মূলমন্ত্র

প্রবল ইচ্ছাশক্তির মাধ্যমে কাজ করলেই কেবলমাত্র কঠিন পথ অতিক্রম করে সামনে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব।ইচ্ছাশক্তি না থাকলে জীবনে সফলতা আসে না। প্রেম-ভালোবাসা, ভালো ফলাফলসহ সকল কঠিন কাজের সফলতার মূলে থাকে ইচ্ছাশক্তি। সফলতা আর ইচ্ছাশক্তি যেন একই সুতায় গাঁথা। ইচ্ছাশক্তি থাকলে জীবনে হেরে যাওয়ার সম্ভবনা কম থাকে।
বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, প্রবল ইচ্ছাশক্তি থাকলে নিয়মিত ছোট ছোট অনুশীলনের মাধ্যমে বড় বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা যায়। এবং একটি কাজ একবার চেষ্টা করে সফল না হলে বার বার চেষ্টা করতে হবে।  তাহলে কেবলমাত্র সফল হওয়া সম্ভব।
মাঝে মাঝে হয়তো আপনি ইচ্ছাশক্তি হারিয়ে ফেলেন। কিন্তু নিজের আবেগকে নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে সৃজনশীলতাকে কাজে লাগিয়ে কাজ করলে আপনি... continue reading

৩৮৪

ফারজানা মৌরি

৫ বছর আগে লিখেছেন

যৌবন ধরে রাখতে চান, অশ্বগন্ধা খান

  বাতের ব্যথা, অনিদ্রা থেকে বার্ধক্যজনিত সমস্যা এসবের নিরাময়ে অশ্বগন্ধার বিকল্প নেই। তেমনটাই বলেন বিশেষজ্ঞরা। এমনকি যৌবন ধরে রাখতেও অশ্বগন্ধার উপকারিতা অনস্বীকার্য। ত্বকের সমস্যাতেও দারুণ কাজ দেয় এই ভেষজ। বিদেশেও এর চাহিদা ব্যাপক। সে কারণে অশ্বগন্ধা চাষও অত্যন্ত লাভজনক।
যারা ভেষজ গাছের চাষ করতে চান, তারা এ বর্ষায় অশ্বগন্ধার চাষ করতেই পারেন।
অশ্বগন্ধা বার্ধক্য ঠেকিয়ে রাখে, অ্যালোপ্যাথি, হোমিওপ্যাথি, আয়ুর্বেদ সব কিছুরই বিকল্প হতে পারে এটি। ত্বকের সমস্যা, আর্থ্রাইটিস, বার্ধক্যজনিত সমস্যা থেকে অনিদ্রা, এমনকি চেহারা ফেরাতেও অশ্বগন্ধার বিকল্প নেই।
এ গাছের শিকড়েই সমস্ত ভেষজ গুণ।
continue reading

৩৭২৪

মেঘলা মেয়ে

৫ বছর আগে লিখেছেন

বৃষ্টিতে ভিজলে

আজকাল প্রায়ই বৃষ্টি হচ্ছে, এসময়ে বৃষ্টি হবে এটাই স্বাভাবিক। আর অনেক সময়ই আমরা বৃষ্টিতে ভিজে যাই। আমাদের সঙ্গে থাকে অত্যন্ত প্রয়োজনীয়  চামড়ার কিছু পণ্য। যেমন ব্যাগ, জুতা, ঘড়ির বেল্ট, চাবির রিং, ওয়ালেট আর বেল্ট। 
বৃষ্টির পানি লেগে এবং স্যাঁতসেতে আবহাওয়ায় চামড়ার পণ্যে ছত্রাক পড়ে, পন্যগুলো নষ্ট হয়ে ব্যবহারের অনুপযোগী হতে পারে। তাই এসময় পন্যগুলোর চাই একটু যত্ন। যা করতে হবে:
চামড়ার পণ্য ব্যবহারের পর অবশ্যই তা ব্রাস বা কাপড় দিয়ে পরিষ্কার করুন আলো-বাতাস চলাচল করে এমন জায়গায় রাখুন চামড়াজাত পণ্যটি ভিজে গেলে টিসু দিয়ে সঙ্গে সঙ্গে তা মুছে ফেলুন পরে রোদে শুকিয়ে নিন
তবে খেয়াল রাখবেন বেশি সময় চামড়ার পণ্য কড়া রোদে... continue reading

৪১৩

মোঃ মাতীন পাগলা

৫ বছর আগে লিখেছেন

হযরত ওয়াস করনি (র)

সুলতানুল আশেকে রাব্বানি হযরত ওয়াস করনি (র)
জন্মঃ- ইয়েমেনের করন শহরে ।
সমাধিঃ- মদিনার দক্ষিণে জোবায়দা শহরে ।
পিতাঃ- হযরত আব্দুল্লাহ (র) ।
মাতাঃ- হযরত বেদউরা (র)।
পদবিঃ- সুলতানুল আশেকিনে রাব্বানি ,আল্লাহ্‌ ও তার রাসুলের নয়ন মনি ।
চিত্র বিবরণীঃ- উক্ত চিত্রে আশেকে রাব্বানি হযরত ওয়াস করনি (র) এর রওজা মোবারক প্রদর্শিত হচ্ছে ।
আধ্যাত্মিক সাধনাঃ- ওয়াস করনি (র) আল্লাহ্‌র ইবাদতে এতই মশগুল থাকতেন যে নিজের দেহের প্রতি কোন খেয়ালই করতেন না।তিনি দেখতে ছিলেন উজ্জ্বল ফর্সা মধ্যমা আকৃতির,চোখ দুটি ছিল নীল সমুদ্রের মত, মাথার চুল ছিল আলু- থালু ,উস্ক-শুস্ক ।তিনি এতই ইবাদত করতেন যে খাওয়া,ঘুম... continue reading

৮২৩১