"জীবনচর্চা" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

মেঘলা মেয়ে

৪ বছর আগে লিখেছেন

হাসি হচ্ছে সেরা ‘ওষুধ’

বহু যুগ ধরে প্রচলিত একটি ধারণা হচ্ছে, হাসি সবচেয়ে সেরা ওষুধ৷ একথার খানিকটা বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা মিলেছে সাম্প্রতিক গবেষণায়৷ হাসিখুশি থাকতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে ‘হাসি সংঘ’৷
আধুনিক প্রযুক্তি এবং বিজ্ঞান অনেক রোগব্যাধি নিরাময়ের সুযোগ সৃষ্টি করেছে৷ এখন খুব কম রোগব্যাধি আছে যেগুলো নিরাময় সম্ভব নয়৷ কিন্তু অর্থও একটি বিষয় বটে৷ অনেকের পক্ষে বর্তমান সময়ের ব্যয়বহুল চিকিৎসার খরচ বহন করা সম্ভব হয় না৷ বহু যুগ ধরে প্রচলিত একটি ধারণা হচ্ছে, হাসি হচ্ছে মহা ওষুধ৷ বিষয়টি এখন বৈজ্ঞানিকভাবেও প্রমাণিত৷ শারীরিক এবং মানসিক যন্ত্রণা প্রশমনে সহায়তা করে হাসি৷
গত সেপ্টেম্বরে এই বিষয়ক একটি গবেষণা পরিচালনা করেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক নৃতত্ব... continue reading

৪৭৩

মেহেদি হাসান রাজু

৫ বছর আগে লিখেছেন

আমাদের আধুনিকতা এবং কয়েকজন নায়লা নাঈম

আমরা এক সৃষ্টিশীল জাতি। যত রকমের উল্টো-পাল্টা জিনিস আছে সেগুলোকে অনুকরণের অনেক রকম বাহানা আমরা সৃষ্টি করতে পারি। যত যা-ই হোক , আধুনিক হত হবে। আর আধুনিক হতে হলে আমাদের অন্তত সেই পথে অগ্রুদের পদাঙ্ক ( নাকি পদ-কলঙ্ক!! ) অনুসরণ করতেই হবে। এজন্যে আমরা বেছে নিতে পারি সুদূর হলিউডের সালমা হায়েক কিংবা মাইলি সাইরাসকে। অথবা কিম কারদেসিয়ানকে। তারা যে এক এক জন মস্ত বড় আইকন !  সেই লেভেলের নারী-স্বাধীনতার প্রতীক!
অথবা কেউ যদি তাদের অনুকরণ করতে ভয় পান এই ভেবে যে, এত্তো দূরের মানুষকে ফলো করব ? সব সময় তো খোঁজ রাখা সম্ভবও হবে না! তাহলে এখন কি... continue reading

৬৬১

ফারজানা মৌরি

৫ বছর আগে লিখেছেন

বাড়ি তৈরির কিছু সাধারন কৌশল.........

  নির্মান ব্যায় কমাতে চাইলে, ছাদের উচ্চতা কমিয়ে ৯’ এমনকি ৮’ ও করা যেতে পারে। উচ্চতা কমালেও বাসার কম্ফোর্ট বাড়বে। যে ভাবে ওয়েল ডেকোরেটেড অফিসগুলোর ফল্স সিলিঙ ৮’ হাইটের হয়।
 ১) প্ল্যান & ডিজাইন : বিল্ডিঙের প্ল্যান আর প্লেসিং সঠিক ভাবে করতে পারলে, ফ্ল্যাট গুলো কম্ফোর্টেবল করা সহজ হয়। 
ক/ বিল্ডিঙের প্লেসিং : সাধারন বিল্ডিং গুলো ২ ইউনিটে ভাগ করা হয়। চেষ্টা করতে হবে দক্ষিন-পশ্চিম দিকটা যেনো ২টি ইউনিটে সমান ভাবে ভাগ হয়ে যায়। কারন এই দিকটাই গরম কালে সবচেয়ে উত্তপ্ত হয়। এতে করে কোন ১ দিকের ইউনিট গুলো একক ভাবে গরমে এ্যাফেক্টেড হবে না।  
 খ/ ঘরগুলোর অবস্থান : অনেকে ঘরে... continue reading

৬০০

ডাক্তার দ্যা বৈজ্ঞানিক

৫ বছর আগে লিখেছেন

গরম পানি পানের অবিশ্বাস্য ১২টি উপকারিতা

গরম পানি পানের
অবিশ্বাস্য ১২টি উপকারিতা:
১. ওজন কমবে গরম পানি শরীরের বিপাক ক্রিয়া খুব ভালভাবে সম্পন্ন করে। যার ফলে বাড়তি মেদ কমবে। তবে আরো বেশি কাজ দিবে যদি সকালে খালি পেটে গরম পানির সাথে লেবু মিশ্রিত করে পান করেন। এটা বডি ফ্যাট ভাঙতে সাহায্য করবে।
২. গলা ও নাসারন্দ্রের মধ্যে সমন্বয় সাধন করবে ঠাণ্ডা লাগা, কফ জমে যাওয়া এবং গলা ব্যাথায় গরম পানি খুব কার্যকর ভূমিকা রাখে। এটা কফ তরল করে বের করে দেয়। গলা ব্যথা কমায়। এছাড়া নাসারন্দ্রের পথ পরিষ্কার রাখে।
৩. মাসিক বাধা দূর করে গরম পানি মেয়েদের মাসিকের সমস্যা দূর করতে ভূমিকা রাখে। এটা পেটের পেশীকে শান্ত ও কোমল করে। যার ফলে মাসিকের সমস্যা দূর হয়।
৪. শরীরের বর্জ্য বের করে দেয় গরম পানি পান করলে শরীরের তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করে। ফলে ঘাম ঝরবে। ঘামের সাথেই শরীরের অনেক ধরনের... continue reading

১৭২৬

মেহেদি হাসান রাজু

৫ বছর আগে লিখেছেন

বলিউডের আধুনিকতা এবং আমরা

 আমাদের দেশের অনেক অনেক ছেলে-মেয়ে বলিউডের ভালো রকমের অনুসারী।
অনুসারী বলতে সেখানে যা যা হচ্ছে সেটাকে একটা ট্রেন্ড হিসেবে গ্রহণ করাটা তাদের এক রকমের ফ্যাণ্টাসি!
এটার একটা প্রমাণ হিসেবে দেখাতে পারি আমাদের ঈদের বাজারগুলোকে। 
     বিগত বছরগুলোতে যে এই ট্রেন্ড চালু হয়েছে সেটা বলা যাবে না। ভারতীয় পণ্যের মার্কেট আমাদের মাঝে প্রবেশ করেছে আরো আগেই। যখন ছোট ছিলাম তখন দেখতাম স্টারপ্লাসে আমার চাচী সিরিয়াল দেখতো। তখন উনার কাছে শুনেছিলাম তিনি নাকি রোজার ঈদে কিনেছেন "পার্বতী" শাড়ী। আর এরপরের কুরবানীর ঈদের জন্যে উনার প্ল্যান হচ্ছে "পল্লবী" শাড়ী কেনা।
   যারা কিছুটা জানেন তাদের বলার আর প্রয়োজন নেই যে পার্বতী এবং পল্লবী... continue reading

৬০২

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

চিকিৎসা বিজ্ঞানের অন্যতম পথিকৃৎ ডা.জোহরা বেগম কাজীর ১০২তম জন্মবার্ষিকীতে ফুলেল শুভেচ্ছা

ফ্লোরেন্স নাইটিংগেল অব ঢাকা খ্যাত বাংলাদেশের চিকিৎসা বিজ্ঞানের অন্যতম পথিকৃৎ, স্ত্রীরোগ ও ধাত্রীবিদ্যায় বিশেষজ্ঞ অধ্যাপিকা ডা. জোহরা বেগম কাজী। এদেশের বাঙালি মুসলিমদের মাঝে তিনিই সর্বপ্রথম মহিলা চিকিৎসক। তার পুরো জীবনই ছিল আর্তমানবতার সেবায় নিবেদিত। তিনি যখন চিকিৎসক হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেন তখন মেয়েরা নানা রকম অজ্ঞতা আর কুসংস্কারের শিকার ছিল। অসুস্থ মেয়েরা চিকিৎসকের কাছে না যেয়ে স্বেচ্ছায় মৃত্যুকে বরণ করে নিত। কারণ তাদের ধারণা চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার চেয়ে মৃত্যুই ভাল। তখন অপচিকিত্‍সা আর বিনা চিকিৎসায় মারা যেত মেয়েরা। মেয়েদের অধিকাংশ রোগকে জিন-ভূতের আছর বলে মনে করত সবাই। সেসময় মেয়েরা মনে করত বাড়ির বাইরে গিয়ে চিকিৎসা করালে মেয়েদের ইজ্জত থাকেনা। একারণে মেয়েরা... continue reading

৪৯১

এস এম আজম

৫ বছর আগে লিখেছেন

ভবোঘুরে.........

এই সময়ে মানুষেরা
.
একটু মিলিয়ে নিন--
√ বড় বাড়ি,
কিন্তু ছোট
পরিবার।
.
√ বড় বড়
সার্টিফিকেট,
কিন্তু
কমনসেন্স নেই।
√ দামী ঔষধ,
কিন্তু তা সাস্থ্য
কমানোর জন্যে।
.
√ আকাশ
জয়ী লোক,
কিন্তু
প্রতিবেশিকে চিনেনা।
.
√ অনেক আয়,
কিন্তু
মনে শান্তিনেই।
.
√ হাই আইকিউ,
কিন্তু ইমোশন
নেই।
.
√ ফেসবুকে অনেক
বন্ধু, কিন্তু
বেস্ট ফ্রেন্ড নেই।
.
√ কোটি কোটি মানুষ,
কিন্তু মনুষ্যত্ব নেই।
.
√ হাতে দামী ঘড়ি,
কিন্তু টাইম নেই। continue reading

৯০৫

নূর মোহাম্মদ নূরু

৫ বছর আগে লিখেছেন

কোমল পানীয় কেন খাবেন না?

দৈনিক আমাদের সময়
বৃহস্পতিবার, ঢাকা, ৯ অক্টোবর ২০১৪,
২৪ আশ্বিন ১৪২১, বর্ষ ১০, সংখ্যা ১৭৭
পৃষ্ঠাঃ ০৮, আয়ু পরমায়ূ পাতা continue reading

৪৩৩

প্রবাসী একজন

৫ বছর আগে লিখেছেন

প্রবাসে ঈদ

প্রবাসে সাপ্তাহিক কার্যদিবসগুলোতে সাধারণত কারোরই যে ফুসরত থাকে না, এটা প্রবাসী প্রত্যেকেরই জানা। আর এজন্য কখনো যদি সেই কার্যদিবসে ঈদের দিনটি পড়ে যায়, তবে অনেক মুসলমান ভাইবোনকেই কোনরকমে ভোরে ঈদের নামাজ শেষ করে ছুটে চলে যেতে হয় কর্মক্ষেত্রে। অনেকের ক্ষেত্রে হয়তো সেই সুযোগটাও ঘটে না। আর তাইতো ঈদ উদযাপনটি অনেক সময়ই হয়ে পড়ে উইকেন্ড নির্ভর – অর্থাৎ শনি অথবা রবিবার – সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতে।
অনেককেই তাঁদের প্রিয়জন ও আত্মীয়স্বজনদেরকে নিমন্ত্রণ করতে হয়েছে পরবর্তী শুক্রবার রাত থেকে শুরু করে পুরো উইকেন্ড জুড়ে। ব্যবস্থাটি অনেকেরই মনঃপুত। শুধু ঈদের দিনেই অসংখ্য নিমন্ত্রণের হাত থেকে রেহাই পাওয়া যায় বলেও অনেকেরই পছন্দ এটা।
ঈদের দিনের পরিবর্তে অন্যদিনে... continue reading

৪৭৯

ফারজানা মৌরি

৫ বছর আগে লিখেছেন

প্রিয়জন কিংবা কাছের মানুষ

আমেরিকান লেখক এবং মোটিভেশনাল বক্তা জিম রন (http://en.wikipedia.org/wiki/Jim_Rohn) একটা চমৎকার কথা বলেছিলেনঃ “যে পাঁচ জন মানুষের সাথে সবচেয়ে বেশি সময় কাটান আপনি সেই পাঁচজন মানুষের গড় (You are the average of the five people you spend the most time with.)”। এর মানে হচ্ছে আপনার বুদ্ধি হচ্ছে আপনার সবচেয়ে কাছের পাঁচ জন মানুষের গড় বুদ্ধির সমান। কথাটার মানে অবশ্য শুধু বুদ্ধির মধ্যে সীমাবদ্ধ নয় – মানুষের চিন্তা-ভাবনার অন্যান্য ক্ষেত্রেও এই কথাটা খাটে (যেমন রাজনীতি, সংস্কৃতি ইত্যাদি ব্যাপারে আমরা কাছাকাছি ভাবনার মানুষের সাথেই বেশি মিশে – আওয়ামীলীগ-মনা মানুষ আওয়ামীলীগারদের সাথে মিশে বেশি, বিএনপি-মনারা বিএনপি সমর্থকদের সাথে মিশে বেশি, রাজাকার এর ছানারা অন্য... continue reading

৩৮৯